চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

৭ জানুয়ারি, ২০২১ | ১১:২৯ পূর্বাহ্ণ

ওয়াশিংটনে কারফিউ জারি, গ্রেপ্তার ৩০

যুক্তরাষ্ট্রের মার্কিন কংগ্রেস অধিবেশন চলাকালীন সময়ে ক্যাপিটল হিলে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের হামলার ঘটনায় রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে ১২ ঘণ্টার কারফিউ জারি করা হয়েছে। কারফিউ জারির পরও সহিংসতা না থামায় ৩০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় বিকাল ৫টার পর ডিস্ট্রিক অব কলাম্বিয়ার (ডিসি) মেয়র মুরিল বসের এই কারফিউ জারি করেন। 

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় এই কারফিউ শুরু হয়েছে, চলবে সকাল ৬টা পর্যন্ত (বাংলাদেশ সময় ভোর ৫টায় শুরু হয়েছে, চলবে বিকাল ৫টা পর্যন্ত) । 

এছাড়া আরও তিনজনকে লাইসেন্স ছাড়া অস্ত্র বহন, গোলাবারুদ খাওয়ানোর ডিভাইস, অনিবন্ধিত গোলাবারুদ দখল করার অভিযোগে আটক করা হয়েছে। খবর এপির

মেট্রোপলিটন পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার ও বুধবার আরও ১৫ জনকে অস্ত্র বহন ও হামলাসহ বিভিন্ন অভিযোগে আটক করা হয়েছে।

এদিকে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের তাণ্ডবের পর যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবন (ইউএস ক্যাপিটল) অবরুদ্ধ করে রেখেছে দেশটির পুলিশ।

উল্লেখ্য, কংগ্রেস অধিবেশন চলাকালীন ক্যাপিটল হিলে হামলায় এক নারীসহ চারজন নিহত হয়েছেন। 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের মারমুখী বিক্ষোভের মুখে রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে ওয়াশিংটনে আমেরিকার আইনসভা কংগ্রেসের ভবন ক্যাপিটল ভবন।

স্থানীয় সময় বুধবার ওই ভবনে কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে সদ্য অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ডেমোক্রাট প্রার্থী জো বাইডেনের জয়ের স্বীকৃতির আনুষ্ঠানিকতা চলছিল।  বিক্ষোভ ঠেকাতে ফাঁকা গুলি এবং কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করেছে পুলিশ। অবরুদ্ধ করা হয় ভবন। এক পর্যায়ে গুলিবিদ্ধ হন এক নারী। পরে তার মৃত্যু হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এ ঘটনাকে ‘লজ্জাজনক দৃশ্য’ বলে উল্লেখ করেছেন। সেইসঙ্গে ‘শান্তিপূর্ণ এবং সুশৃঙ্খল ক্ষমতা হস্তান্তরের’ আহবান জানিয়েছেন তিনি।

জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাস বলেন, ‘ট্রাম্প এবং তার সমর্থকদের উচিত শেষ পর্যন্ত মার্কিন ভোটারদের সিদ্ধান্ত মেনে নেয়া এবং গণতন্ত্রের পদদলন না করা।’

এক বিবৃতিতে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ বলেন, ‘এটা পুরোপুরি অসুস্থ এবং হৃদয়বিদারক দৃশ্য। রাজনৈতিকভাবে অস্থিতিশীল কোনো দেশে এ ধরনের ঘটনার মাধ্যমে নির্বাচনের ফলকে বিতর্কিত করা হয়- আমাদের গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্রে এর কোনো স্থান নেই।’

এক বিবৃতিতে সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেন, ‘ইতিহাস সঠিকভাবেই ক্যাপিটলের ওপর এই আক্রমণকে মনে রাখবে। এই মুহূর্তটি প্রচণ্ড অসম্মান এবং এই জাতির জন্য লজ্জাজনক।’

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বলেন, ‘গণতন্ত্রের ওপর এই আঘাতের ঘটনায় কানাডীয়রা প্রচণ্ড বিরক্ত।’

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 137 People

মন্তব্য দিন :

সম্পর্কিত পোস্ট