চট্টগ্রাম শনিবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

১৫ ডিসেম্বর, ২০২০ | ১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রে করোনার প্রথম টিকা নিলেন কৃষ্ণাঙ্গ নার্স

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে। নিউইয়র্কের কুইন্সে ‘লং আইল্যান্ড জুইশ মেডিকেল সেন্টার’ হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের (আইসিইউ) একজন নার্সকে টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে গণমাধ্যমের খবরে।

সোমবার নার্স সান্দ্রা লিন্ডসেকে টিকা দেওয়ার মুহূর্তটি ক্যামেরায় ধারণ করা হয় এবং তা সরাসরি নিউ ইয়র্কের গভর্নর এন্ড্রু ‍কুমোর টুইটার ফিডে দেখানো হয়।

টিকা নেওয়ার পর নার্স লিন্ডসে বলেছেন, “এই টিকা নেওয়াটা অন্য কোনও টিকা নেওয়ার থেকে আলাদা কিছু মনে হয়নি। কোনও যন্ত্রণাও অনুভব করিনি। আশা করি এটি আমাদের ইতিহাসের অত্যন্ত বেদনাদায়ক একটি সময়ের সমাপ্তির সূচনা করবে।”

“আমি মানুষের আস্থা বাড়াতে চাই, বলতে চাই এই টিকা নিরাপদ। আমরা একটি মহামারীর মধ্যে আছি এবং আমাদের সবাইকে নিজ নিজ কাজ করে যেতে হবে। মহামারীতে ক্ষত-বিক্ষত মানবতার পরিত্রাণে এই টিকার বিকল্প ছিল না। তাই সবাইকে তা নেওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি। তাহলেই করোনাকে পরাস্ত করা সম্ভব হবে।”

এই টিকা দেওয়ার কয়েক মিনিট পরই প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প একটি টুইট করেন। তাতে তিনি লেখেন, “প্রথম টিকা প্রয়োগ করা হয়েছে। অভিনন্দন যুক্তরাষ্ট্র! অভিনন্দন বিশ্ব।”

গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের ফুড এন্ড ড্রাগ এডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) জরুরি ব্যবহারের জন্য ফাইজার-বায়োএনটেকের কোভিড-১৯ টিকা ব্যবহারের অনুমোদন দেয়। সোমবারই টিকার ৩০ লাখ ডোজের প্রথম চালান সারা দেশে বিতরণ করা হয়েছে।

বিবিসি জানায়, সোমবার যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে প্রায় ১৫০টি হাসপাতাল এই টিকা হাতে পেয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের টিকাদান প্রকল্পে আগামী এপ্রিলের মধ্যে ১০ কোটি মানুষকে টিকার আওতায় ‍আনার লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হয়েছে।

নিউ ইয়র্কের গভর্নর বলেছেন, রাজ্যটিতে প্রথম দফায় পাওয়া টিকার ৭২ হাজার ডোজ প্রয়োগ করা হবে। প্রথমবার টিকা নেওয়ার তিন থেকে চার সপ্তাহ পর আবার টিকা নিতে হবে সংশ্লিষ্টদের।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম দফা সংক্রমণের সময় নিউইয়র্ক দেশটির মহামারির উপকেন্দ্র হয়ে উঠেছিল। তাই সেই জায়গাতেই প্রথম টিকার যাত্রা। এতে আনন্দিত অঙ্গরাজ্যটির গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো। 

টিকার আনন্দে অ্যান্ড্রু কুমো বলেন, এই টিকা মানবতাকে অশুভ শক্তির আক্রমণের রক্ষাকবচ। এর মধ্য দিয়ে করোনাভাইরাস-বিরোধী যুদ্ধের সফল সমাপ্তি হবে।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 122 People

সম্পর্কিত পোস্ট