চট্টগ্রাম সোমবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

৪ জুন, ২০১৯ | ২:২০ পূর্বাহ্ণ

ভুতুড়ে ভোটার!

প্রশ্নের মুখে ১০০-র বেশি লোকসভা আসনের ফল!

ইন্টারন্যাশনার ডেস্ক : লোকসভা নির্বাচনে বিপুল জয় পেয়েছে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি জোট। ভোটের ফলপ্রকাশের দিন দশেকের মধ্যেই এ বার ‘ভুতুড়ে ভোটারে’র অভিযোগ সামনে এল। একটি ওয়েবসাইটের অন্তর্তদন্তে দেখা গিয়েছে, বিহার ও উত্তরপ্রদেশের ১১৯টি আসনে প্রদত্ত ভোট এবং ইভিএমে গোনা ভোটের মধ্যে বিস্তর ফারাক। নির্বাচন কমিশনের অবশ্য জানিয়েছে, প্রদত্ত ভোট এবং ইভিএমের ভোটের মধ্যে কোনও ফারাক নেই। যদিও কয়েক জন প্রাক্তন নির্বাচন কমিশনারের মতে, এই ধরনের অভিযোগ এলে কমিশনের অবস্থান স্পষ্ট করা উচিত।
সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটটি প্রদত্ত ভোটের ক্ষেত্রে তথ্য সংগ্রহ করেছে কমিশন এবং বিহার ও উত্তরপ্রদেশের নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইট থেকে। ভোটের শতাংশের হিসেব জোগাড় করেছে ‘ভোটার টার্নআউট অ্যাপ’ এবং রাজ্যেগুলির ওয়েবসাইট থেকে। তথ্য বিশ্লেষণে পোস্টাল ব্যালটকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। তদন্তে দেখা যাচ্ছে, কোনও লোকসভা কেন্দ্রে প্রদত্ত ভোটের তুলনায় ইভিএমে গণনা হওয়া ভোটের সংখ্যা বেশি, আবার কোথাও এর বিপরীত চিত্র। এ বার পটনা সাহিব ছিল নজরকাড়া কেন্দ্র। সেখানে বিজেপির রবিশঙ্কর প্রসাদ জয়ী হয়েছেন কংগ্রেসের শত্রুঘœ সিন্হাকে পরাজিত করে। ওয়েবসাইটটির বিশ্লেষণ, ওই কেন্দ্রে মোট ভোটার ২১,৩৬,৮০০ জন। ভোট প্রদানের হার ৪৩.১ শতাংশ অর্থাৎ ভোট পড়েছে ৯,২০,৯৬১টি।
কিন্তু ইভিএমের গণনায় দেখা গিয়েছে ভোট পড়ছে ৯,৭৮,৬০২। অর্থাৎ, ইভিএমে ৫৭,৬৪১টি ভোট অতিরিক্ত গণনা হয়েছে। একই ছবি, নগরের একাধিক কেন্দ্রে। চার হাজার থেকে আট হাজার ভোটের ব্যবধানে জয়পরাজয় নির্ধারিত হওয়া বিহারের ১৭টি আসনে অতিরিক্ত ভোটের তথ্য সামনে এসেছে। বিহারের কারাকাট, সাসারাম, জেহানাবাদ, পাটালিপুত্র, বক্সার এবং আরা কেন্দ্রে দেখা গিয়েছে, প্রদত্ত ভোটের তুলনায় ইভিএম-ভোট বেশ খানিকটা কম।
যেমন, কারাকাট আসনে প্রদত্ত ভোট ৯,৬২,৭২১ এবং ইভিএমে গণনার পর ভোটের সংখ্যা ৮,৬৪,৫০৭। প্রশ্ন উঠছে, তা হলে কি অনেক ভোট গণনা হয়নি!

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 240 People

মন্তব্য দিন :

সম্পর্কিত পোস্ট