চট্টগ্রাম সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

১২ সেপ্টেম্বর, ২০২২ | ১০:৩৮ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশে মেডপার্কের টেলিমেডিসিন সেবা

প্রযুক্তির কল্যাণে মানুষ এখন চিকিৎসাও নিচ্ছেন ঘরে বসে। করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে স্বাভাবিক চিকিৎসাসেবা ব্যাহত হওয়ায় মানুষ অনলাইন সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের টেলিমেডিসিন সেবার ওপর ভরসা করেছে।

বিশ্বব্যাপী বেড়েছে টেলিমেডিসিন বা অনলাইন চিকিৎসার কার্যক্রম। টেলিফোন, মোবাইল, ভিডিও কনফারেন্স বা অনলাইনের মাধ্যমে দেশি-বিদেশি চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করার এই প্রক্রিয়াই মূলত টেলিমেডিসিন। তেমনটাই করছেন থাইল্যান্ডের বিখ্যাত মেডপার্ক হাসপাতাল। বাংলাদেশিদের জন্য তারা চালু করেছে টেলিমেডিসিন সুবিধা। এর ফলে বাংলাদেশে বসেই অনলাইনের মাধ্যমে ৩০টির বেশি স্পেশালাইজড বিভাগের চিকিৎসকের সেবা নেওয়া সম্ভব হবে।

শনিবার থাইল্যান্ডের মেডপার্ক হাসপাতালের পক্ষ থেকে গুলশানের ডোরিন হোটেলে অনুষ্ঠিত এক সেমিনারে এ তথ্য জানানো হয়। সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত মাকাওয়াদি সুমিতমোর। এ সময় তিনি, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা খাতের উন্নয়নে প্রযুক্তির সমন্বয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করার আশ্বাস দেন। রাষ্ট্রদূত বলেন, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা খাতে প্রযুক্তির ছোঁয়া লেগেছে। এ খাতে প্রযুক্তির ব্যাপক উন্নতি সাধন হয়েছে।

বর্তমানে বাংলাদেশ স্বাস্থ্য খাতে প্রযুক্তির সমন্বয় ঘটিয়ে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি করেছে। মেডপার্ক হাসপাতালের চিফ অপারেটিং অফিসার মাইয়াজ স্যামসেন বাংলাদেশের রোগীদের থাইল্যান্ডের মেডপার্ক হাসপাতালে বিশ্বমানের চিকিৎসাসেবাসহ আন্তর্জাতিক চিকিৎসার সম্ভাবনা তুলে ধরেন। পাশাপাশি দুই দেশ কীভাবে একসঙ্গে কাজ করতে পারে সে বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেন। আগামী দিনে উভয় দেশের উন্নয়নের জন্য চিকিৎসা ও প্রযুক্তি বিনিময়ে আগ্রহ দেখান। উল্লেখ্য, মেডপার্ক হাসপাতাল বাংলাদেশি রোগীদের উন্নত ও দ্রুত সেবার জন্য ঢাকায় রেফারেল অফিস খুলেছে। তথ্যসূত্র: যুগান্তর

 

পূর্বকোণ/সাফা/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট