চট্টগ্রাম বুধবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯

১ নভেম্বর, ২০১৯ | ১:০৮ অপরাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক

ক্যান্সারকেও দিতে পারে জবাব, টকমিষ্টি তেঁতুলের গুণ!

তেঁতুলের নাম শুনলেই জিভে জল আট থেকে আটচল্লিশের। ছোটবেলায় লুকিয়ে আচার চুরির কথা মনে পড়ছে? বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সেসব অতীত। তেঁতুলের যেমন অনেক গুণ আছে তেমনি কিছু ক্ষেত্রে অপকারীও। সেগুলো কী কী? আগে উপকারের কথাই জানুন। ওবেসিটি কমিয়ে ঝরঝরে রাখে আপনাকে। হৃদস্পন্দন  নিয়মিত রেখে হৃদরোগ হওয়ার সম্ভাবনাও কমায়। রোজ পাতে একটু তেঁতুল মানেই রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা অনেকটাই বেড়ে যাওয়া।  

টক-মিষ্টি তেঁতুলের অনেক গুণ। তেঁতুলের নাম শুনলেই জিভে জল চলে আসে। তেঁতুল খেলে হৃদরোগ হওয়ার সম্ভাবনাও কমে যায়। এ ছাড়া তেঁতুল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে লিভার ভালো রাখে।

 তেঁতুল কেন খাবেন?

ভিটামিন সি, ই, বি ছাড়াও তেঁতুলে পাবেন ক্যালসিয়াম, আয়রন, ফসফরাস, পটাশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ আর ফাইবার। আর রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট,যা স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।

অতিরিক্ত ওজন কমাতে

অতিরিক্ত ওজন কমাতে তেঁতুল খেতে পারেন। তেঁতুলে থাকা হাইড্রোসিট্রিক অ্যাসিড শরীর থেকে অতিরিক্ত চর্বি ঝরাতে সাহায্য করে।

ক্যান্সার প্রতিরোধ

ক্যান্সার রোধে তেঁতুল অপ্রতিরোধ্য। এর মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আর টার্টারিক অ্যাসিড প্রচুর রয়েছে, যা ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধিতে বাধা দেয়।

সুগার নিয়ন্ত্রণ

সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রেখে ডায়াবেটিস কমায়। কার্বোহাইড্রেট তৈরি হতে দেয় না রক্তে। এর জন্য সকালে খালি পেটে তেঁতুলের রস খেতে পারেন সুগারের রোগীরা।

লিভার ভালো রাখে

তেঁতুল লিভার ভালো রাখে। খাবার দ্রুত হজম হয়ও ওজন ধরে ঝটপট।

ব্লাডপ্রেসার নিয়ন্ত্রণ

এর মধ্যে থাকা আয়রন আর পটাশিয়াম লোহিত রক্তকনিকার পরিমাণ বাড়িয়ে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে।

বিছে কামড়ালে তেঁতুলের প্রলেপ

বিছে কামড়ানোর ব্যথা-জ্বালা কমায় তেঁতুলের রস। সূত্র: এনডিটিভি

পূর্বকোণ/পিআর

The Post Viewed By: 70 People

সম্পর্কিত পোস্ট