চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

৩ অক্টোবর, ২০১৯ | ২:১৪ এএম

মরিয়ম বেগম

দূষণ ডেকে আনছে অকাল ডিমেনশিয়া

পারিবারিক আলোচনায় কোনও আত্মীয়কে নিয়ে কথা বলতে গিয়ে হঠাৎই তাঁর চেনা নামটা ভুলতে বসছে মন। বাজারের ফর্দ হোক বা সংসারের খরচ, সহজ হিসেবও গুলিয়ে যাচ্ছে প্রায়ই। কথা অসংলগ্ন তো বটেই, সঙ্গে মনে পড়ছে বহু বছর আগের নিখুঁত ঘটনা। অথচ সকালে কী খেলেন মনে পড়ছে না কিছুতেই। প্রিয় কারও জন্মদিন, বিবাহবার্ষিকী এ সব মনে পড়ছে সে সব দিন পেরিয়ে যাওয়ার অনেক পরে। স্মৃতি চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে অসুখ। চেনা নাম ডিমেনশিয়া।

(গত সংখ্যার পর)

প্রয়োজন বায়ুদূষণের কারণগুলোর হাত থেকেও নিজেদের বাঁচানো। স্মৃতির ভা-ার সাজিয়ে রাখতে নজর দিতে হবে খাবার পাতেও। ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, মাছের তেল, ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবারদাবার তো খেতেই হবে।
সঙ্গে তেল-মশলা এড়িয়ে একটু শাকপাতাও রাখতে হবে পছন্দের মেনুতে। শরীরচর্চা স্নায়ুদের কার্যকারিতা বাড়াতে সাহায্য করে বলে ডিমেনশিয়ায় আক্রান্তদের প্রয়োজনীয় ব্যায়ামের নিদান দেন চিকিৎসকরা। শুধু বাইরের ধোঁয়াই নয়, ঘরের বাতাসও নষ্ট হয় লাগামছাড়া কীটনাশক ধূপ, স্প্রে, রুম ফ্রেশনার ইত্যাদি থেকে। রান্নার ধোঁয়া, ফোড়নের ঝাঁজ- এ সবেও দূষিত হয় ঘরের হাওয়া। তাই সমরবাবুর মতে, এ সব তো বটেই, আবার তার সঙ্গে এড়াতে হবে দূষণের জালও।
বেশ কিছু নিয়ম মেনে চললে বায়ুদূষণের প্রকোপ থেকে কিছুটা হলেও দূরে থাকা যায়। স্মৃতিশক্তি বাঁচাতে এটুকু নাহয় করলেনই!
– ধোঁয়া-ধুলো-দূষণ

বেশি এমন জায়গায় ঘন ঘন যাতায়াত থাকলে অর্থাৎ কলকারখানা সমৃদ্ধ বা বাজার এলাকায় গেলে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করুন। তবে সস্তা দামে বাজারচলতি মাস্ক নয়। একটু দামী ও
চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে কিনুন মাস্ক।
– গাছ লাগান। বায়ুকে শুদ্ধ করে তোলার অন্যতম সেরা পদক্ষেপ। আজকাল ছোট ফ্ল্যাট বা ঘরেও বিভিন্ন বাগান করার প্রবণতা তৈরি হয়েছে। কোনও অন্দরসজ্জাবিদের পরামর্শ নিতে পারেন এ ক্ষেত্রে।
– ঘরের ভিতর ব্যবহার করুন এয়ার

পিউরিফায়ার। ধূপ-ধুনোর ধোঁয়ায় রাশ টানুন।
– রুম ফ্রেশনার নয়, ভরসা রাখুন টাটকা ফুল।
– রান্নার সময় আঁচে চাপা দিন। এতে ফোড়নের ঝাঁজ হাওয়ায় খুব একটা মিশতে পারে না। (শেষ)
[সূত্র : ম্যানস হেলথ]

The Post Viewed By: 51 People