চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০২ মার্চ, ২০২১

সর্বশেষ:

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১:২৮ পূর্বাহ্ণ

রাকিবুল হক

বোতল বিষাক্ত কি না জেনে নিন নম্বর দেখে

প্লাস্টিক ছাড়া আমরা জীবন ভাবতেই পারি না। ঘুম থেকে ওঠা থেকে রাতে শুতে যাওয়া- সারাদিন আমরা
নানারকমভাবে প্লাস্টিকের সংস্পর্শে আসি। তার কোনোটা ভীষণভাবে ক্ষতিকারক, কোনোটা কম। কোনোটা আবার নিরাপদ।
আপনার ব্যবহৃত প্লাস্টিকগুলো কোনটা কোন ক্যাটাগরিতে পড়ে জানেন?
প্রতিটা প্লাস্টিকের গায়েই একটি

ত্রিভুজাকৃতি চিহ্ন থাকে। এটা আসলে রিসাইকেল অর্থাৎ পুনর্ব্যবহারযোগ্যতার প্রতীক। অর্থাৎ আপনি রোজ যে বোতলে পানি খাচ্ছেন, যে প্লাস্টিকের মধ্যে তাজা সবজি ভরে রেফ্রিজারেটরে রেখে দিচ্ছেন বা আরও কোনো দৈনন্দিন কাজে লাগাচ্ছেন সেটা কতটা নিরাপদ বা আপনার জন্য আদৌ নিরাপদ কি না তা বোঝা যাবে এই প্রতীক থেকেই।
লক্ষ্য করে দেখবেন, প্রতিটা প্লাস্টিকের জিনিসের গায়ে ত্রিভুজাকৃতি এই রিসাইকেল বা পুনর্ব্যবহারযোগ্য প্রতীকের মধ্যে একটি নম্বর থাকে। ১ থেকে ৭ পর্যন্ত নম্বরের কোনো একটি এই প্রতীকের মধ্যে থাকে। আর প্রতিটা নম্বরই আলাদা অর্থ বহন করে। কোন নম্বর থাকলে কী হতে পারে তা দেখে নিন।
নম্বর ১: ত্রিভুজাকৃতি প্রতীকের মধ্যে যদি ১ লেখা থাকে, তার অর্থ সেটা পলিইথিলিন টেরেফটালেট দিয়ে তৈরি। সাধারণত পানির বোতল, বিভিন্ন কোল্ড ড্রিঙ্কের বোতল এই রাসায়নিক দিয়ে তৈরি হয়। কোনো বোতলে ১ লেখা থাকলে তা নিরাপদ হিসেবেই গণ্য হয়। তবে তা একবারেই পুনর্ব্যবহারযোগ্য নয়। কারণ এই বোতলে সুক্ষ ছিদ্র থাকে। ফলে খুব সহজেই ব্যাকটেরিয়া ঢুকে যেতে পারে।

নম্বর ২: যে সমস্ত প্লাস্টিকের বোতল অস্বচ্ছ পলিইথিলিন দিয়ে তৈরি, তাতে ২ নম্বর লেখা থাকে। ডিটারজেন্ট বোতল, দুধের বোতল লক্ষ্য করলে দেখবেন, তাতে ২ লেখা থাকে। এই নম্বরের অর্থ নিরাপদ। কারণ তাতে ব্যাকটেরিয়া তৈরি হওয়ার আশঙ্কা খুব কম। তবে পুনর্ব্যবহারযোগ্য নয় এটাও। (সূত্র : আনন্দবাজার)
(আগামী সংখ্যায় সমাপ্য)

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 346 People

সম্পর্কিত পোস্ট