চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি, ২০২৩

সর্বশেষ:

২ ডিসেম্বর, ২০২২ | ৯:৫২ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

ডায়াবেটিস নিয়ে যত ভ্রান্ত ধারণা

স্বাস্থ্যসংক্রান্ত এমন অনেক ধারণা বা বিশ্বাস আমাদের দেশে প্রচালিত আছে, যার কোনো সত্যতা নেই। মেডিক্যাল সায়েন্সেও তার কোনো ভিত্তি নেই। কিন্তু বহু যুগ ধরে লালিত এ বিশ্বাসগুলো এতটাই শক্তিশালী যে অনেক সময় ডাক্তাররা পর্যন্ত রোগীর বিভ্রান্তি কাটাতে সক্ষম হন না।

 

প্রচলিত কিছু ভ্রান্ত ধারণা:
১) ডায়াবেটিসে আক্রান্তরা কখনোই রক্তদান করতে পারে না, এমনটাই ধারণা বেশির ভাগ মানুষের। তবে এ ধারণা সম্পূর্ণ সঠিক নয়। কারণ শুধু যারা নিয়মিত ইনসুলিন ইনজেকশন নেয়, তারাই শুধু রক্তদান করতে পারে না।

২) বহু ডায়াবেটিক রোগীই মনে করে, ইনসুলিন নেওয়া ক্ষতিকর। ইনসুলিন মানেই ডায়াবেটিসের শেষ চিকিৎসা। অনেকেই মনে করে, চিকিৎসক ইনসুলিন নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন মানেই রোগী মোটেও নিয়ম মেনে চলছে না। বাস্তবে এ ধারণা সম্পূর্ণ ভুল। কারণ টাইপ-২ ডায়াবেটিসে নিয়মিত ওষুধ খাওয়া সত্ত্বেও একটা সময়ের পর ইনসুলিন নেওয়ার প্রয়োজন হতে পারে।

 

৩) ডায়াবেটিস ধরা পড়লে শর্করাজাতীয় খাবার একেবারেই খাওয়া যাবে না, এমনটাই ধারণা বেশির ভাগ মানুষের। তবে বাস্তবে এ ধারণা সম্পূর্ণ ভুল। শর্করাজাতীয় খাবার সম্পূর্ণ বাদ দেওয়ার বদলে কম পরিমাণে খাওয়া উচিত।

৪) বেশি মিষ্টি খেলে ডায়াবেটিস হবে, ধারণাটি মোটামুটি সব মানুষের মধ্যেই আছে। আসলে ডায়াবেটিস হওয়ার জন্য মিষ্টি দায়ী নয়। ডায়াবেটিস হওয়ার পর মিষ্টি খেলে রক্তে সুগারের পরিমাণ বেড়ে যায়। কিন্তু ডায়াবেটিস হওয়ার আগে যতই মিষ্টি খাওয়া হোক, সুগারের পরিমাণ কিন্তু ঠিকই থাকবে।

 

৫) অনেকেই মনে করে, ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের সব সময় উচিত খাওয়াদাওয়া নিয়ন্ত্রণে রেখে যতটা সম্ভব কম পরিশ্রম করা। তবে এ ধারণা সম্পূর্ণ সঠিক নয়। কারণ নিয়ম মেনে চললে আর রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকলে স্বাভাবিকভাবে জীবনযাপন করা সম্ভব।

৬) যাদের ওজন বেশি তাদেরই শুধু ডায়াবেটিস হয়, পরিবারের কারো ডায়াবেটিস না থাকলে ডায়াবেটিস হবে না এটি ভুল ধারণা। অতিরিক্ত ওজন ছাড়া টাইপ-২ ডায়াবেটিসের অন্য অনেক ঝুঁকি আছে। অন্যদিকে টাইপ-১ ডায়াবেটিসের সঙ্গে অতিরিক্ত ওজন এবং পরিবারের অন্য সদস্যদের ডায়াবেটিস থাকার কোনো সম্পর্ক নেই।

 

৭) ডায়াবেটিস হলে ইনসুলিন নিতে হবে এটি একটি ভুল ধারণা। টাইপ-১ ডায়াবেটিসের মূল চিকিৎসা ইনসুলিন। কিন্তু টাইপ-২ ডায়াবেটিসে সুশৃঙ্খল জীবনযাপনের পাশাপাশি ওষুধের মাধ্যমে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়।

৮) মায়ের গর্ভকালীন ডায়াবেটিস থাকলে গর্ভের শিশু সম্পূর্ণ সুস্থ হয় না এটিও ভুল ধারণা। নিয়মিত চেকআপ, সুষম খাবার, পর্যাপ্ত পরিশ্রম, সঠিক ও নিয়মিত মাত্রায় ইনসুলিন সেবনের মাধ্যমে সুস্থ-সবল সন্তান জন্মদান সম্ভব।

পরামর্শ দিয়েছেন: ডা. শাহজাদা সেলিম, সহযোগী অধ্যাপক, এন্ডোক্রাইনোলজি বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়

 

পূর্বকোণ/সাফা/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট