চট্টগ্রাম বুধবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২১

সর্বশেষ:

৫ মার্চ, ২০২১ | ৩:০৩ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

শীতকালে গরম পানিতে গোসল করবেন কেন?

সুস্থ থাকার প্রয়াসে হোক অথবা ঠান্ডাভীতির কারণে, শীতকালে অনেকেই প্রতিদিন গরম পানি দিয়ে গোসল করেন। এসময় আমরা শিশু ও বয়স্কদেরও ঠান্ডা পানিতে গোসল করানোর কথা ভাবতে পারি না। কারণ আমাদের মনে এই ধারণা বদ্ধমূল হয়ে গেছে যে, শীতে শিশু ও বয়স্কদের জন্য ঠান্ডা পানি ঝুঁকিপূর্ণ। কিন্তু কেবল শিশু-বয়স্ক নয়, তরুণরাও গরম পানি দিয়ে গোসল করে উপকার পেতে পারেন। যেমন:

* ক্যালরি ক্ষয় : আপনি হয়তো কল্পনাও করেননি যে, গরম পানিতে গোসল করলে ক্যালরি ক্ষয় হয়। গবেষণায় দেখা গেছে, এক ঘণ্টা গরম পানিতে শরীর ভেজালে ত্রিশ মিনিট হাঁটলে যতটুকু ক্যালরি পোড়ে ততটুকু ক্যালরি পুড়েছে। কিন্তু তাই বলে গরম পানি দিয়ে গোসল করাকে এক্সারসাইজের বিকল্প ভাববেন না। শীতে অলসতার কারণে শরীরের বাড়তি ক্যালরি পোড়ানোর হার কমে যায়। তাই এসময় গরম পানিতে গোসল করে কিছু ক্যালরি পোড়াতে পারলে মন্দ কি!

* রক্তে শর্করা কমে : লাফবোরাফ ইউনিভার্সিটির গবেষণা বলছে, গরম পানিতে গোসল করলে রক্তে শর্করার মাত্রা কমতে পারে। গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের খাবার খাওয়ার পর গরম পানিতে গোসল করতে বলা হয়। দেখা গেছে, এক ঘণ্টা গরম পানিতে শরীর ডুবিয়ে রাখায় রক্তে শর্করার মাত্রা সাইকেল চালানোর চেয়ে ১০ শতাংশ কমে গেছে। এভাবে রক্তে শর্করার মাত্রা কমে যাওয়ার একটি সম্ভাব্য কারণ হলো হিট শক প্রোটিনের নিঃসরণ। কিন্তু তাই বলে শর্করা কমাতে এক্সারসাইজ বাদ দিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা হট বাথটাবে শরীর ডুবিয়ে রাখবেন না।

* ত্বক পরিষ্কার হয় : যখন আমরা গরম পানিতে গোসল করি, আমাদের ত্বকের ছিদ্র খুলে যায়। ফলে ত্বকে জমে থাকা বিষাক্ত পদার্থ ও টক্সিন দূর হয়ে যায়। গরম পানিতে গোসলে কেবল ত্বক পরিষ্কার হয় না, ত্বকে ভালো অনুভূতিও পাওয়া যায়। কিন্তু ত্বকের শুষ্কতা ও বিরূপ প্রতিক্রিয়া এড়াতে বেশি গরম পানিতে দীর্ঘসময় গোসল করবেন না। সচেতন থাকুন যে কুসুম গরম পানিতে শরীর ভেজাচ্ছেন।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 223 People

সম্পর্কিত পোস্ট