চট্টগ্রাম রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১

সর্বশেষ:

১ মার্চ, ২০২১ | ১২:১৭ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

টিকা নিলেন লক্ষ্যমাত্রার মাত্র সাড়ে ৬৬ শতাংশ

গণহারে টিকাদান কার্যক্রমের ১৮তম দিনে চট্টগ্রামে টিকাদানের লক্ষমাত্রা ছিল সাড়ে ১৯ হাজারের একটু বেশি। অথচ এদিনে টিকা নিয়েছেন মাত্র ১৩ হাজার ৯৭ জন। অর্থাৎ লক্ষ্যমাত্রার মাত্র ৬৬ দশমিক ৪৮ শতাংশ টিকা গ্রহণ করেছেন এ দিনে।

একই অবস্থা টিকা পাওয়ার নিবন্ধনে এসেও। অন্যদিনগুলোর চেয়ে কম সংখ্যক নিবন্ধন হয়েছে এদিনে এসে। তবুও সার্বিকভাবে নিবন্ধনের সংখ্যা ইতোমধ্যে চার লাখের দ্বারপ্রান্তে এসে পৌঁছেছে। আর টিকাদানের সংখ্যাও প্রায় পৌনে তিন লাখের দ্বারে। চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে প্রাপ্ত তথ্য পর্যালোচনা করে এমনটি পাওয়া গেছে।

তথ্য অনুসারে, গতকাল রবিবার চট্টগ্রামের ২৫ টি টিকাদান কেন্দ্রে ১৩ হাজার ৯৭ জন টিকা নিয়েছেন। যাদের মধ্যে শুধুমাত্র নগরের ১১ কেন্দ্র থেকে টিকা নিয়েছেন ৭ হাজার ৯৫৪ জন। আর ১৪ উপজেলার কেন্দ্রগুলো থেকে টিকা গ্রহণ করেন ৫ হাজার ১৪৫ জন। যা নিয়ে এখন পর্যন্ত চট্টগ্রামে টিকা নেয়ার সংখ্যা ২ লাখ ৬৯ হাজার ১৪৮ জনে এসে দাঁড়িয়েছে। যার মধ্যে সবচেয়ে বেশি টিকা দেয়া হয়েছে নগরের কেন্দ্রগুলো থেকে। তাতে ১ লাখ ৩৫ হাজার ১৮৬ জনকে ইতোমধ্যে টিকার আওতায় আনা হয়েছে। আরও উপজেলায় ১ লাখ ৩৩ হাজার ৯৬২ জনকে দেয়া হয় টিকা।

অন্যদিকে, গেল ২৪ ঘণ্টায় করোনার টিকা পেতে নতুন করে আরও ৬ হাজার ৮৬৬ জন অনলাইনে নিবন্ধন সম্পন্ন করেছেন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত টিকা গ্রহণে নিবন্ধন সম্পন্ন করেছেন ৩ লাখ ৯১ হাজার ৬১৬ জন। যাদের মধ্যে নগরের বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে টিকা নিতে নিবন্ধন করেছেন ২ লাখ ১৩ হাজার ৯৮০ জন এবং উপজেলায় ১ লাখ ৭৭ হাজার ৬৩৬ জন।

চট্টগ্রামে এল আরও ৯০ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন

চট্টগ্রামে আরও নয় হাজার ভ্যাকসিন (৯০ হাজার ডোজ) এসেছে। গতকাল রবিবার রাতে ঢাকা থেকে গাড়িযোগে এসব ভ্যাকসিন এসে পৌঁছায়। যা চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ের চেইন কোল্ড সেন্টারে রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি।
তিনি বলেন, সিটি কর্পোরেশন এলাকায় টিকাদানের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। যার কারণে সম্প্রতি আরও ভ্যাকসিন বরাদ্দ চেয়ে চিঠি ইস্যু করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এরমধ্যে রবিবার রাতে গাড়িযোগো ঢাকা থেকে আরও ৯ হাজার ভ্যাকসিন আসে। বর্তমানে এসব ভ্যাকসিন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের ইপিআই স্টোরে রাখা হয়েছে। যা পরবর্তীতে বিতরণ করা হবে।
এর আগে গত ৩১ জানুয়ারি করোনার ভ্যাকসিনের প্রথম চালান আসে চট্টগ্রামে। ওই সময়ে চট্টগ্রামের জন্য ৪ লাখ ৫৬ হাজার ডোজ বরাদ্দ পাওয়া যায়। এরমধ্যে সবশেষ দ্বিতীয় চালানে গতকাল এসেছে ৯০ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট ভ্যাকসিন এসেছে ৪ লাখ ৬৫ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 235 People

সম্পর্কিত পোস্ট