চট্টগ্রাম শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সর্বশেষ:

৩০ জানুয়ারি, ২০২১ | ৫:১৬ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

ওজন কমাতে দারুণ উপকারী পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ তোকমা

প্রায় সব মানুষই তোকমার সাথে পরিচিত। এটি অনেকভাবে খাওয়া যায় এবং এটি মানব শরীরের জন্য বেশ উপকারীও। পেটের পীড়া উপশমে অনেকেই তোকমা দানার শরবত খেয়ে থাকেন।

 

তাছাড়া, বিভিন্ন ফলের জুস ও ফালুদা তৈরিতে এটির দানা ব্যবহার করা হয়। প্রচুর পুষ্টি ও মিনারেল সমৃদ্ধ একটি খাবার। বিশেষ করে ওজন কমাতে দারুণ উপকারী তোকমার বীজ। এই বীজ দ্বারা তৈরি শরবত বিপাকক্রিয়ার হার কমায়, অতিরিক্ত ক্ষুধা নিয়ন্ত্রণ করে, রক্তে ভালো কোলেস্টরল তৈরি করে।

 

তাছাড়া এটি শরীরের বাড়তি ওজন কমাতে সাহায্য করে। শরীর সুস্থ ও আকর্ষণীয় রাখতে অন্যতম কার্যকরি ভেষজ উপাদান। এটির দানায় হাইড্রোফোলিক উপাদান রয়েছে। যার কারণে খুব সহজে পানি শোষণ করে নেয়। তোকমার দানা তাদের ওজনের চেয়ে বার গুণ বেশি পানি শোষণ করতে পারে। প্রতি ১শ’ গ্রাম তোকমা দানায় পর্যাপ্ত পরিমাণে লৌহ, ক্যালসিয়াম, থিয়ামিন, ম্যাংগানিজ, দস্তা, ফসফরাস, ভিটামিন-বি, ফোলেইট এবং রিবোফ্ল্যাভিন রয়েছে।

 

গবেষণায় দেখা গেছে, তোকমা দানা রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ, শরীরের জন্য উপকারী কোলেস্টেরল উৎপন্ন করে এবং রক্তে চর্বির পরিমাণ কমায়। এটি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে, সুস্থ হার্ট এবং হাড় গঠনে সহায়তা করে। তবে তোকমা খাবারে কিছু সতর্কতা মেনে চলা উচিৎ। গর্ভবতী নারী ও শিশুরা চিকিৎসকের পরামর্শ ব্যতীত সেবন করা ঠিক নয়। এটি অবশ্যই ৭/৮ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখার পর ফুলে উঠলে তারপর সেবন করতে হবে। ঠিক মত ফুলে না উঠলে পেটে ব্যথার কারণ হতে পারে। এছাড়া যাদের বাদাম এবং উদ্ভিদ বীজে এলার্জি তৈরি হয়, তাদের তোকমা দানা থেকেও এলার্জি তৈরি হতে পারে।

 

পূর্বকোণ/মামুন

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 1083 People

সম্পর্কিত পোস্ট