চট্টগ্রাম শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২১

৬ মার্চ, ২০২১ | ২:২৪ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক 

ছয় সপ্তাহ পতনের পর ঊর্ধ্বমুখী শেয়ার বাজার

অবশেষে ঘুরে দাঁড়িয়েছে দেশের শেয়ার বাজার। টানা ছয় সপ্তাহ পতনের পর গত সপ্তাহে কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে। গত সপ্তাহে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন ৬ হাজার কোটি টাকার ওপরে বেড়েছে। অবশ্য আগের টানা ছয় সপ্তাহের পতনে প্রায় ৩৫ হাজার কোটি টাকা বাজার মূলধন হারায় ডিএসই। সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে সবকটি মূল্য সূচক বেড়েছে। বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণও। ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক বেড়েছে প্রায় দুই শতাংশ। আর লেনদেন বেড়েছে প্রায় ৫৪ শতাংশ।

গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসের লেনদেনশেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ৭৩ হাজার ৯৫ কোটি টাকা, যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৪ লাখ ৬৬ হাজার ৯৫৫ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন বেড়েছে ৬ হাজার ১৪০ কোটি টাকা।

এদিকে গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে ৯৯ দশমিক ৩৯ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৮৪ শতাংশ। আগের ছয় সপ্তাহের টানা পতনে সূচকটি কমে ৪৯৩ পয়েন্ট। প্রধান মূল্য সূচকের পাশাপাশি টানা ছয় সপ্তাহ পতনের পর ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচকও গত সপ্তাহে বেড়েছে। গত সপ্তাহজুড়ে সূচকটি বেড়েছে ৪৬ দশমিক ৮৯ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ২৭ শতাংশ। আগের ছয় সপ্তাহের টানা পতনে সূচকটি কমে ১৭০ দশমিক ৯৮ পয়েন্ট হয়।

অপরদিকে ইসলামী শরীয়াহ ভিত্তিতে পরিচালিত কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই শরিয়াহ সূচক গত সপ্তাহজুড়ে বেড়েছে ২২ দশমিক ৭২ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৮৫ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি কমে ১৬ দশমিক ৬১ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৩৪ শতাংশ। অবশ্য তার আগের সপ্তাহে সূচকটি বেড়েছিল।

সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে ডিএসইতে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৭১৯ কোটি ১৯ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয় ৫৮৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা। গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৩ হাজার ৫৯৫ কোটি ৯৭ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ২ হাজার ৩৩৫ কোটি ২৮ লাখ টাকা। সেই হিসাবে মোট লেনদেন বেড়েছে ১ হাজার ২৬০ কোটি ৬৯ লাখ টাকা বা ৫৩ দশমিক ৯৮ শতাংশ।

গত সপ্তাহে ডিএসইর মূল বাজারে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হওয়া ১০ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে, বেক্সিমকো, রবি, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো, বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, সামিট পাওয়ার, জিবিবি পাওয়ার, লাফার্জহোলসিম, ওরিয়ন ফার্মা এবং স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে গত বৃহস্পতিবার মোট লেনদেন হয়েছে ৭৯.৭৮ কোটি টাকা। মোট ১১,০৮২টি লেনদেনের মাধ্যমে ১.৩৫ কোটি শেয়ার হাতবদল হয়েছে। প্রধান ইনডেক্স সিএসই সার্বিক শেয়ার মূল্যসূচক ৬০.২৯ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়ায় ১৫,৯৭৬.৩৫ পয়েন্টে। সিএসই-৫০ সূচক ৮.১৮ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২২২.৫৬ তে। এছাড়াও সিএসই শরিয়াহ ইনডেক্স ১.০৪ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০০৫.৬৮ তে। গতকাল দিনশেষে সিএসই’র বাজার মূলধনের পরিমাণ ছিল ৪০০,১০৮.৫৯ কোটি টাকা এবং পরিশোধিত মূলধনের পরিমাণ ৮১,০৩৪.৯৬ কোটি টাকা। সিএসই’তে ৩৪১ স্ক্রিপ্টের মধ্যে লেনদেন হয়েছে ২৫০টির। দাম বেড়েছে ৮০টির, কমেছে ১০৫ টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৬৫টির।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 215 People

সম্পর্কিত পোস্ট