চট্টগ্রাম শনিবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

২ জানুয়ারি, ২০২১ | ১০:৫৬ পূর্বাহ্ণ

ইফতেখারুল ইসলাম

১ এপ্রিল থেকে কার্যকর আইপিওতে লটারিযুগ থাকছে না

পুঁজিবাজারে নামে-বেনামে হিসাব খুলে শুধুমাত্র আইপিও পেয়ে অর্থ তুলে নেয়ার দিন শেষ। আগামী ১ এপ্রিল থেকে শুধুমাত্র বিনিয়োগকারীরাই বিনিয়োগের আনুপাতিক হারে আইপিও পাবেন। এক্ষেত্রে লটারির ব্যবস্থা উঠে যাচ্ছে। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে বিনিয়োগকারীরা।

ইনভেস্টর ফোরাম চট্টগ্রামের আহবায়ক আসলাম মোরশেদ পূর্বকোণকে বলেন, পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা খুবই ভাল একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে বিনিয়োগকারীদের আশঙ্কা, যাদের লোন কোড আছে এবং যাদের লোন কোডে ইকুইটি মাইনাস তাদের ক্ষেত্রে কি হবে। তারাও একইভাবে সুবিধা পাবে কি পাবে না তা স্পষ্ট করা উচিত।

বিএসইসি সূত্র জানায়, গত বছরের শেষদিন বিএসইসি যে সিদ্ধান্ত দেয় তাতে বলা হয়, আইপিওতে আবেদনের আগে একজন বিনিয়োগকারীর তালিকাভুক্ত সিকিউরিটিজ বা সেকেন্ডারি মার্কেটে ন্যূনতম ২০ হাজার টাকা বিনিয়োগ থাকতে হবে। আইপিওতে বিনিয়োগের জন্য আগে এ নিয়ম ছিল না। আগামী ১ এপ্রিল থেকে শেয়ার বিক্রির নতুন নিয়ম কার্যকর হবে। প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে একজন সাধারণ বিনিয়োগকারীকে ন্যূনতম ১০ হাজার টাকার শেয়ারের জন্য আবেদন করতে হবে। কেউ চাইলে ১০ হাজার টাকার গুনিতক হারে আবেদন করতে পারবেন।

এছাড়া বুক-বিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজার থেকে টাকা সংগ্রহের সময় আরও কমিয়ে আনার উদ্যোগ নিয়েছে বিএসইসি। আগামী ১ এপ্রিলের পর বিডিং এবং প্রসপেক্টাস প্রকাশের বিষয়টি একসাথেই অনুমোদন দেবে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা। আগে বিডিং ও প্রসপেক্টাস প্রকাশের ক্ষেত্রে আলাদা সম্মতিপত্র দিতে হত বলে সময় বেশি লাগত।

ইনভেস্টর ফোরামের যুগ্ম আহবায়ক এম এ কাদের পূর্বকোণকে বলেন, শেয়ার বাজারকে আমরা জুয়ার বাজার হিসেবে দেখতে চাই না। আমরা চাই এখানে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আসুক। একটি সিন্ডিকেট আছে যারা নামে-বেনামে একাউন্ট খুলে আইপিও’র লাভ নিয়ে চলে যায়। তারা সেকেন্ডারি মার্কেটে আসে না। অথচ যারা সেকেন্ডারি মার্কেটে বিনিয়োগ করেন তারাই প্রকৃত বিনিয়োগকারী। কারণ তারা লাভক্ষতি উভয়রই ঝুঁকি নেন।

আইপিও’র লটারি প্রথা বাতিলের ঘোষণা পুঁজিবাজারের জন্য নতুন বছরের সুসংবাদ উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা অনেক সময় আন্দোলন করি, স্মারকলিপি দিই। এসব কিন্তু সরকারের বিরুদ্ধে নয়। পুঁজি বাজারকে টেকসই এবং বিনিয়োগ বান্ধব করতেই আমাদের আন্দোলন।

 

 

 

 

পূর্বকোণ/পি-আরপি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 662 People

সম্পর্কিত পোস্ট