চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সর্বশেষ:

১২ অক্টোবর, ২০১৯ | ১০:৫৭ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

অশ্লীলতার অভিযোগে রিয়েলিটি শো ‘বিগ বস’ নিষিদ্ধের দাবি

শুরু হতে না হতেই সমালোচনার মুখে পড়েছে বিগ বসের ১৩তম আসর। বলিউড সুপারস্টার সালমান খানের সঞ্চালনায় রিয়েলিটি শো শুরু হয়েছে ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে। বিগ বস রিয়েলিটি শো’র একটি অন্যতম অংশ ‘বেড ফ্রেন্ড ফরএভার’। এ অংশকেই ‘অশ্লীল’ ও ‘আপত্তিকর বলছেন অনেকে।
বিগ বসের ১৩তম আসর নিয়ে অভিযোগ উত্থাপনকারীদের মধ্যে রয়েছেন বিধানসভার সদস্য, রাজনীতিবিদসহ অনেকেই। তাদের বলছেন, ‘বিগ বস’ ভারতের ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ও ভাবমূর্তি নষ্ট করছে।
প্রতিযোগীরা এমন সব ভাষা ব্যবহার করছেন, যার ফলে দূরে থাকতে হচ্ছে অল্প বয়সীদের। বড়রাও পরিবার নিয়ে একসাথে বসে দেখতে পারছে না অনুষ্ঠান।
এরই মধ্যে বিগ বস বন্ধের দাবি জানিয়ে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রীকে চিঠি পাঠিয়েছে উত্তর প্রদেশ বিধানসভার সদস্যরা।
বার্তা সংস্থা আইএএনএস জানিয়েছে, কনফেডারেশন অব অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স (সিএআইটি) এই অনুষ্ঠানের সম্প্রচারের বিরোধিতা করার পাশাপাশি অনুষ্ঠানটিকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়ে চিঠি দিয়েছে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী প্রকাশ জাভাদেকরকে। সংগঠনটির মতে, এই অনুষ্ঠানে সরাসরি নগ্নতা বা যৌনতা দেখানো হচ্ছে না, কিন্তু প্রতিযোগীরা নিজেদের মধ্যে এমন সব কথা বলছেন, যা মোটেও ১৮ বছরের কম বয়সীতো দূরে থাক, পরিবারের বড়রাও একসঙ্গে বসে তা দেখতে পারবেন না।

সিএআইটির সেক্রেটারি জেনারেল প্রবীণ খান্ডেলওয়াল অভিযোগ করেছেন, ‘এই রিয়েলিটি শো দিন দিন সব সীমা লঙ্ঘন করছে।’
কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী প্রকাশ জাভাদেকরকে পাঠানো চিঠিতে ‘বিগ বস’নিষিদ্ধ করার দাবি করেছেন উত্তর প্রদেশ বিধানসভার সদস্য নন্দ কিশোর গুজ্জার। তিনি বলেছেন, ‘অনুষ্ঠানটিতে এমন কিছু অশ্লীল ব্যাপার দেখানো হচ্ছে, যা পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে বসে দেখা যায় না! নারী-পুরুষ সবাই একই বিছানায় একসঙ্গে শুয়ে আছে, নানা নোংরা কথা বলছে, আপত্তিকর ভাষা ব্যবহার করছে। এ আবার কেমন শো? অনুষ্ঠানটি ভারতীয় সংস্কৃতি নিয়ে দর্শকদের কাছে ভুল বার্তা পৌঁছে দিচ্ছে। অনুষ্ঠানটির আয়োজকেরা আমাদের ছেলেমেয়েকে ভুল পথে ঠেলে দিচ্ছে।’

পূর্বকোণ/ এস

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 561 People

সম্পর্কিত পোস্ট