চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

২৪ নভেম্বর, ২০২২ | ৫:২৪ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

মনিরুজ্জামান মনিরের ৩টি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার চুরি

বিখ্যাত গীতিকার মনিরুজ্জামান মনিরের বাসায় চুরি হয়েছে। তবে চোর শুধুতার ৫টি ট্রফি নিয়ে গেছে। এর মধ্যে ৩টি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের ট্রফি।

 

বুধবার (২৩ নভেম্বর) রাতে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর টের পান তিনি। এরপর সেগুলো উদ্ধারের লক্ষ্যে ৫ নভেম্বর বাড্ডা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। ডায়েরি নম্বর ৩৬১।

 

চুরি যাওয়া ৩টি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের মধ্যে রয়েছে, ১৯৮৮ সালে মুক্তি পাওয়া ‘দুই জীবন’ সিনেমার ‘তুমি ছাড়া আমি একা পৃথিবীটা মেঘে ঢাকা’, ১৯৮৯ সালের ‘চেতনা’ ছবির ‘এই হাত করে নাও হাতিয়ার’ এবং ১৯৯০ সালের ‘দোলনা’ চলচ্চিত্রের ‘তুমি আমার কত চেনা’ গানগুলো। বাকি দুটি হচ্ছে চায়না বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশীপ অ্যাওয়ার্ড ও চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতির পুরস্কার।

ঘটনায় নিন্দা ও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে গীতিকবি সংঘ। সেইসাথে অবিলম্বে ট্রফিগুলো উদ্ধারের দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

 

সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে গীতিকবি সংঘ জানায়, গীতিকবি সংঘ বাংলাদেশ-এর আজীবন সদস্য সর্বজন শ্রদ্ধেয় মনিরুজ্জামান মনিরের অনবদ্য সৃষ্টির সুবাদে অর্জিত ৫টি ট্রফি চুরি হয়ে গেছে। ৩ নভেম্বর রাতে তার পশ্চিম মেরুল বাড্ডার বাসার জানালা ভেঙে চুরি হওয়া এই ট্রফিগুলোর মধ্যে ৩টিই ছিলো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।

সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে গীতিকবি সংঘ জানায়, গীতিকবি সংঘ বাংলাদেশ-এর আজীবন সদস্য সর্বজন শ্রদ্ধেয় মনিরুজ্জামান মনিরের অনবদ্য সৃষ্টির সুবাদে অর্জিত ৫টি ট্রফি চুরি হয়ে গেছে। ৩ নভেম্বর রাতে তার পশ্চিম মেরুল বাড্ডার বাসার জানালা ভেঙে চুরি হওয়া এই ট্রফিগুলোর মধ্যে ৩টিই ছিলো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।

 

ট্রফি না পেলে কর্মসূচিতে যাওয়ার কথা উল্লেখ করে বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আমরা মনে করি, এই ঘটনাটি দেশের সামগ্রিক আইন-শৃঙ্খলার প্রতি বড় হুমকি এবং শিল্পীদের প্রতি অসহায়ত্বের বার্তা দেয়। তাই জাতীয় এই বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে দেখার অনুরোধ করছি সরকার তথা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি। আমরা মনে করি, সরকারের দেওয়া স্বীকৃতি চুরি বা ডাকাতি হলে সেটা ফিরিয়ে দেওয়া সরকারের ওপরেই বর্তায়। অবিলম্বে এই বিষয়টির সমাধান না হলে আমরা সাংগঠনিকভাবে কর্মসূচিতে যাবো। কারণ আমাদের প্রতিটি সদস্য ও সংগীত সংশ্লিষ্টদের কাছে এই বিষয়টি প্রচণ্ড আবেগ ও অভিমানের।’

পূর্বকোণ/পিআর 

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট