চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট, ২০২২

সর্বশেষ:

৩ আগস্ট, ২০২২ | ১১:০২ পূর্বাহ্ণ

আইটি দক্ষতায় প্রফেশনাল ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়তে বীকন আইটি

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে অন্যতম সম্ভাবনাময় একটি খাত হলো ফ্রিল্যান্সিং। সময়ের পরিবর্তনে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে অভূতপূর্ব অবদান রাখছে ফ্রিল্যান্সাররা। প্রতিনিয়ত বাংলাদেশের তরুনদের মাঝে ফ্রিল্যান্সিং এর প্রতি আগ্রহ বেড়েই চলছে। নিজেদের দক্ষতা এবং সৃজনশীলতাকে পুঁজি করে ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে স্বনির্ভর হচ্ছে লক্ষ লক্ষ তরুণ। আর ফ্রিল্যান্সিং এর ভবিষ্যতটাও কিন্তু একদম উজ্বল, বেকারত্বের ছোবল থেকে মুক্ত করে নিজেকে স্বাধীনভাবে মেলে ধরতে পারছে ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে।
বাংলাদেশের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, আমরা তথ্যপ্রযুক্তিতে রপ্তানি আয় যে ৫ বিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছি তার একটা বড় ক্ষেত্র হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং এবং পুরো পৃথিবীতে এই মুহূর্তে ১.৫ ট্রিলিয়ন ডলারের মার্কেট যেটা আইটি ফ্রিল্যান্সারদের ।

তিনি বলেন, বিশ্বে এখন বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সাররা প্রতিবছর প্রায় একশো মিলিয়ন ডলার বিদেশী রেমিটেন্স আয় করছে। ফ্রিল্যান্সিং ও আউটসোর্সিং-এ এরুপ অসংখ্য তরুণের অংশগ্রহণ সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশে এক ধরণের বিপ্লবে রূপ নিয়েছে। পরিশ্রম, ধৈর্য আর ইচ্ছাশক্তির মাধ্যমে নিজে স্বাবলম্বী হয়েছেন, সাথে সাথে অন্যদেরও কাজের ক্ষেত্র তৈরি করেছেন। চট্টগ্রামে বীকন আইটি এক্ষেত্রে বিশাল ভূমিকা রেখে চলেছে। ২০০৮ সাল থেকে শুরু করে এই প্রতিষ্ঠান দীর্ঘ ১৪ বছর ধরে আউটসোর্সিং প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বহু তরুণের জীবন বদলে দিয়েছে। সম্ভাবনাময় এই ক্যারিয়ার সম্পর্কে জানতে চাইলে বীকন আইটি ’র কর্ণধার প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম তুলে ধরেন এক্ষেত্রে সম্ভাবনার নানা খাত।
প্রয়োজনীয় সব কোর্স :
ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার জন্য আইটির কোনো একটি বিষয়ে দক্ষতা থাকা জরুরি। ক্রিয়েটিভ গ্রাফিক্স ডিজাইন, ডিজিটাল মার্কেটিং এন্ড এসইও, ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট উইথ পিএইচপি এন্ড লারাভেল ফ্রেমওয়ার্ক, মোবাইল অ্যাপস ডেভেলপমেন্ট, সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট, ফুল স্ট্যাক ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ইত্যাদি প্রফেশনাল কোর্স সমূহের মধ্যে যে কোন একটিতে দক্ষতা অর্জন করতে পারলে আন্তর্জাতিক মার্কেটে ক্যারিয়ার গড়া ও একজন ভাল ফ্রিল্যান্সার হওয়া সম্ভব হবে।
উল্লেখ্য যে, চট্টগ্রামের প্রাণ কেন্দ্র জিইসি’র ৭ নং ও আর নিজাম রোডে অবস্থিত বীকন আইটি ইতোমধ্যে নিজেদের অফিসে প্রশিক্ষণের পাশাপাশি বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমী (বিএমএ), বাংলাদেশ নেভীসহ বেশ কিছু সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষণ দিয়েছে। বীকনের রয়েছে স্ব স্ব বিষয়ে অত্যন্ত দক্ষ ও অভিজ্ঞ প্রশিক্ষক, যারা ফ্রিল্যান্সার হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত। প্রশিক্ষণ শেষে এসাইন্টমেন্ট পেতে, চাকুরী পেতে কিংবা আউটসোর্সিং কাজে সবধরণের সহযোগিতা করে থাকে প্রতিষ্ঠানটি।
ডিজিটাল মার্কেটিং এন্ড এসইও :
একটা কোম্পানির গুরুত্বপূর্ণ সব বিষয়বস্তুর মাঝে মার্কেটিং একটি অন্যতম সেক্টর। বর্তমানে সকল কোম্পানির মার্কেটিং এর কাজগুলোও ডিজিটাল মিডিয়াতেই হচ্ছে। আর ডিজিটাল মিডিয়া যেমন- ফেসবুক, ইন্সটাগ্রাম, টুইটার, গুগল, বিং, ইউটিউব ইত্যাদি ডিজিটাল প্লাটফর্মগুলো ব্যবহার করে যে মার্কেটিং করা হয় তাই হল ডিজিটাল মার্কেটিং। বিশ্বায়নের যুগে গতানুগতিক মার্কেটিং থেকে বেরিয়ে সবাই ঝুঁকছে ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে । উদ্যোক্তা থেকে শুরু করে প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী সবাই এখন ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে জানতে চায়। বর্তমান যুগ ডিজিটাল মার্কেটিং এর যুগ। এখন ঘরে বসে অনলাইনে কেনা কাটা থেকে শুরু করে, অনলাইনে ইনকাম করা সবটাই এই ডিজিটাল মার্কেটিং এর ওপর নির্ভর করে। তাই প্রতিনিয়ত বাড়ছে ডিজিটাল মার্কেটারদের চাহিদা। ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে আপনি যে সেক্টরে ক্যারিয়ার গড়তে চান না কেন, ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে ভালো ধারণা আপনাকে সব দিকেই এগিয়ে রাখবে। আপনি যদি ভবিষ্যতে আপনার ব্যবসাকে সফল হিসাবে দেখতে চান তাহলে এখনি সময় নিজেকে এবং নিজের ব্যবসাকে ডিজিটাল মার্কেটিং এর আওতায় নিয়ে এসে, ক্রেতার সামনে আকর্ষনীয়ভাবে নিজের পণ্যকে তুলে ধরার।
বর্তমান মার্কেটের চাহিদার সাথে সমন্বয় রেখে বীকন আইটিতে আপডেটেড মডিউলে ৩ মাসের প্রফেশনাল ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স করানো হচ্ছে। সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাউজেশন (এসইও), সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং (এসইএম), সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং (এসএমএম) নিয়ে গঠিত এই কোর্সে রয়েছে অসংখ্য লাইভ প্রোজেক্ট করার সুযোগ, ২৪ ঘণ্টা অনলাইন সাপোর্ট, অসাধারণ কাজের কৌশল । এই কোর্সটির মাধ্যমে আপনি বেসিক থেকে এডভান্স ডিজিটাল মার্কেটিং শিখে ফ্রিল্যান্সিং বা অনলাইনে প্রফেশনালি কাজ করতে পারবেন এবং কাজের ক্ষেত্রেও প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা পাবেন। বিস্তারিত- https://beaconit.org/digital-marketing-training/

ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট :

সাধারণত প্রতিদিনের প্রযুক্তি আমাদেরকে তার ওপর নির্ভরশীল করে রেখেছে। যেমন ধরুন- যেকোন অতি সাধারণ মোবাইল থেকে শুরু করে অতিথিশালা যন্ত্রপাতি সবকিছু মিলিয়ে প্রযুক্তি যেন আমাদেরকে আচ্ছন্ন করে ফেলেছে। আর আপনারা হয়তো এই জিনিসটা জানেন না অনেকেই আমরা মোবাইল বা ব্রাউজার দিয়ে সফটওয়্যার বা সাইটে ব্রাউজ করি সেগুলো কিন্তু সবই তৈরি ওয়েব ডেভেলপারদের দিয়ে। আর সাধারণত এই ওয়েব ডেভলপার বা ওয়েব ডিজাইনাররাই নিত্য নতুন ওয়েবসাইট তৈরি করে আমাদের জীবনকে দিন দিন করে তুলছে আরো বৈচিত্র্যময়। তবে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এবং ডিজাইন একই জিনিস নয়। একে অপরের পরিপূরক। সাধারণত আপনি যখন ওয়েব ডেভেলপমেন্টের কাজ শিখবেন তখন আপনাকে একটা কথা মাথায় রাখতে হবে যে আপনি একটি বিরাট বড় প্রতিযোগিতায় নামতে চলেছে এবং এই প্রতিযোগিতায় আপনার প্রতিযোগী হবে সাধারণত সারা পৃথিবীর আরো অনেক মানুষ। সাধারণত আপনি যখন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতে যাবেন তখন আপনি আউটসোর্সিং এর জন্য অনেক ধরনের কাজ পাবেন কিন্তু সবচেয়ে বেশি যে কাজটা আপনি সেখানে পাবেন সেটি হচ্ছে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট সংক্রান্ত কাজ। তবে আপনি যখন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতে যাবেন তার আগে অবশ্যই আপনাকে যে কোন একটি বিষয় নিয়ে কাজটা ভালোভাবে শিখিয়ে নিতে হবে তারপর সেখানে আপনাকে যেতে হবে কাজের জন্য। এছাড়াও বর্তমানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানেও এর চাহিদা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং আমাদের দেশের তুলনায় বাহিরে দেশে এর চাহিদা দ্বিগুণেরও বেশি হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে যত দিন যাচ্ছে মানুষ ততই প্রযুক্তি নির্ভর হচ্ছে। প্রথম দিকে হয়তো ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস এর তুলনায় কম পারিশ্রমিকের কাজ করতে হতে পারে তবে লং টার্ম কাজ করতে করতে পারিশ্রমিক বাড়তে থাকবে ।
বীকন আইটি ওয়েব ডিজাইন এন্ড ফ্রন্ট-এন্ড ডেভেলপমেন্ট ও ফুল স্ট্যাক ওয়েব ডেভেলপমেন্ট নিয়ে খুবই মানসম্মত কোর্স অফার করে থাকে। যেখানে বেশ কিছু রিয়েল লাইফ প্রজেক্ট সহ ফ্রিল্যান্সিং এর খুঁটিনাটি সব শেখানো কম্পিউটার বেসিক জানা থাকলেই ওয়েব ডিজাইন কোর্সে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। উল্লেখিত বিষয়সমূহে দক্ষতা অর্জন করে একজন ওয়েভ ডেভেলপার কিংবা ওয়েব ডিজাইনার হিসেবে আপনার ক্যারিয়ার শুরু করতে পারেন।
ক্রিয়েটিভ গ্রাফিক ডিজাইন :
গ্রাফিক্স ডিজাইন বর্তমান সময়ে একটি জনপ্রিয় পেশা। এ কাজটি একই সাথে আনন্দদায়ক এবং সৃজনশীল। যদি আপনার মাঝে ক্রিয়েটিভিটি থাকে আর স্বাধীনভাবে কাজ করতে চান তাহলে ফ্রিল্যান্স গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবে গড়ে তুলতে পারেন নিজেকে। অনলাইনে হাজারোও রকমের কাজের চাহিদা রয়েছে।
সাধারণত একজন নতুন (৬মাস-১বছর অভিজ্ঞতাসম্পন্ন) ফ্রিল্যান্স গ্রাফিক ডিজাইনার অনলাইন মার্কেটপ্লেসে প্রতি ঘন্টায় ৫-২০ ডলার রেটে কাজ করেন এবং মাসে এভারেজ ২০,০০০-৫০,০০০ টাকা আয় করতে পারেন। একজন কয়েক বছরের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ডিজাইনার প্রতি ঘন্টায় ২০/৬০ ডলার বা তার বেশি রেটে কাজ করেন এবং মাসে লক্ষাধিক টাকা আয় করতে পারেন। বীকন আইটির অনেক স্টুডেন্ট রয়েছেন যারা প্রতি মাসে লক্ষাধিক টাকা আয় করেন। আয়ের বিষয়টি সম্পুর্ণ নির্ভর করে স্কিল এবং অভিজ্ঞতার উপর।
চট্টগ্রামে বীকন আইটিতে প্রফেশনাল কোর্সে প্রশিক্ষণ নিয়ে আপনিও গড়তে পারেন স্মার্ট ক্যারিয়ার।
কোথায় জব/কাজ পাবেন- ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস, বিজ্ঞাপন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান, পত্রিকা/ম্যাগাজিন/প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান, – অনলাইন মার্কেটপ্লেইস, প্রিন্টিং এবং ডিজাইনিং প্রতিষ্ঠান, ওয়েব ডেভেলপিং প্রতিষ্ঠানে।
যে ক্যাটাগরিগুলোর উপর প্রশিক্ষণ হবে :
Logo & Branding, Web & App Design, Print Design, Graphic Design, Product & Merchandise, Art & Illustration, Photo Editing & Manipulation।

প্রায় সব মার্কেটপ্লেসেই গ্রাফিক্স ডিজাইনের জন্য রয়েছে তুমুল চাহিদা। দক্ষতা অনুযায়ী বিভিন্ন ধরনের কাজ একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার করে থাকেন। যেমন, লোগো ডিজাইন, ভিজিটিং কার্ড ডিজাইন, ওয়েব ব্যানার ডিজাইন, টি-শার্ট ডিজাইন, বিজ্ঞাপন ডিজাইন, ব্রুশিয়ার ডিজাইন, ম্যাগাজিন ডিজাইন, ওয়েবসাইট পিএসডি টেম্প্লেট ডিজাইন, বুক কভার ডিজাইন, পোস্ট কার্ড ডিজাইন, আইকোন ডিজাইন, ডিজিটাল ইমেজ প্রসেসিং, মোবাইল অ্যাপ, ইউআই ডিজাইন ইত্যাদি।
ফ্রিল্যান্সিংয়ে হোক কিংবা দেশের বিভিন্ন কোম্পানিতেই হোক, সবখানেই কিন্তু একজন দক্ষ গ্রাফিক ডিজাইনারের যথেষ্ট চাহিদা রয়েছে। গ্রাফিক্স ডিজাইন বর্তমান সময়ে একটি জনপ্রিয় পেশা। যদি আপনার মাঝে ক্রিয়েটিভিটি থাকে আর স্বাধীনভাবে কাজ করতে চান তাহলে ফ্রিল্যান্স গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবে গড়তে পারেন স্মার্ট ক্যারিয়ার।
কোর্স কো অর্ডিনেটর জানান, বীকন আইটিতে ক্লাস নিচ্ছেন দেশের স্বনামধন্য সব শীর্ষ সফল ফ্রিল্যান্সার ও আইটি উদ্যোক্তাগণ, যারা সুদীর্ঘ সময় ধরে অনলাইনে রাজত্ব করে আসছেন। কোন কারণে ক্লাস মিস করলে পরের দিন ওই ক্লাসের ভিডিও পেয়ে যাবেন। কোর্স শেষে আপওয়ার্ক, ফাইভার, ফ্রিল্যান্সারসহ বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসের উপর স্পেশাল ফ্রিল্যান্সিং ক্লাস। কোর্স শেষ হওয়ার পরও রিভিউ/প্রবলেম সলভিং ক্লাসসমূহ।কোর্স শেষে থাকছে এক্সপার্ট ফ্রিল্যান্সারদের তত্ত্বাবধানে লাইফ টাইম সাপোর্ট। থাকছে সার্টিফিকেট। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সবকটি কোর্সে ৪০% ছাড় দিচ্ছে বীকন আইটি। আরও বিস্তারিত জানতে বাড়ি#৮৩, রোড#৭, ও আর নিজাম রোড, জিইসি মোড়, চট্টগ্রাম এই ঠিকানায় এবং ০১৮৬০৬০২০২০, ০১৭৯০০০৪৪৮৮ নম্বরে যোগাযোগ করা যাবে। ভিজিট করতে পারেন ফেসবুক পেজ https://fb.com/beaconit এবং www.beaconit.org সাইটে।

শেয়ার করুন