চট্টগ্রাম বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

২৫ জুলাই, ২০১৯ | ৬:৩১ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

র‌্যাগিংয়ে জুনিয়রের কান ফাটালো সিনিয়ররা

 

একের পর এক র‌্যাগিংয়ের নামে নবীন শিক্ষার্থীদের পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে। কয়েকটি ঘটনার ধারাবাহিকতায় এক জুনিয়র শিক্ষার্থীকে থাপ্পড় দিয়ে কান ফাটানোর ঘটনা ঘটেছে এবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে। এরপর র‌্যাগারদের হুমকিতে মঙ্গলবার রাতে নবীন শিক্ষার্থীরা হল ছেড়ে খোলা আকাশের নিচে রাত্রিযাপন করলে ও গণরুম খালি দেখলে বিষয়টি জানাজানি হয়। এর আগেও জাবির সিনিয়র শিক্ষার্থীদের থাপ্পড়ে কান ফাটার অভিযোগ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবীন শিক্ষার্থীরা।

ঘটনার সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাত ১টার দিকে জাবির ২য় বর্ষের ৩০-৩৫ জন শিক্ষার্থী বঙ্গবন্ধু হলের গণরুমে যায়। এ সময় ২য় বর্ষের শিহাবসহ ইতিহাস বিভাগের সারোয়ার শাকিল ও ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের ফয়জুল নিরব নবীন শিক্ষার্থীদের সাথে দুর্ব্যবহার করে। এক পর্যায়ে গণিত বিভাগের ৪৮ ব্যাচের নবীন শিক্ষার্থী ফয়সাল আলমকে কয়েকটি থাপ্পড় মারে মার্কেটিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের মো. শিহাব। ফলে ফয়সাল আলমের কান থেকে রক্তক্ষরণ শুরু হয়। তারপর রাতেই বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে তাকে চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়।

এ ঘটনাকে ধামাচাপা দেয়ার জন্য হাসপাতালে গিয়েও হুমকি দিয়ে আসে র‌্যাগাররা। থাপ্পড় ও র‌্যাগের বিষয়ে অভিযোগ করলে আর হলে উঠেতে দিবে না বলেও সাফ জানিয়ে দেয় তারা। এ ভয়ে রাতে প্রায় অর্ধশত নবীন ছাত্র হলে না গিয়ে অন্য হলে বন্ধুদের সাথে ও খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করে বলে জানা যায়।

এ বিষয়ে মূলহোতা অভিযুক্ত শিহাবের সাথে একাধিকবার চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। তবে আরেক অভিযুক্ত ফয়েজুল নীরব বলেন, ফয়সালের কাছে পরিচয় জানতে চাইলে দেরি করে পরিচয় দেয়। তখন আমরা তাকে কিছু নির্দেশনা দিলে তা পালনে অস্বীকার করে। আমাদের ব্যাচমেট শিহাব ফয়সালকে মেরে বসে। তবে বিষয়টি এত মারাত্মক হবে, তা আমরা বুঝতে পারিনি।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ফরিদ আহমেদ জানান, ভুক্তভোগী কয়েকজন শিক্ষার্থী বুধবার রাতে আমাদের কাছে অভিযোগ করেছে। এই বিষয়ে আমরা দ্রুত কাজ করছি। তদন্ত প্রতিবেদন তৈরিও শেষ পর্যায়ে আছে। ডিসিপ্লিনারি বোর্ডে আজ-কালকের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়ে দিবো।

এদিকে, এ ঘটনার পর ক্যাম্পাসের সচেতন মহলে ক্ষোভ তৈরি হলে বুধবার সন্ধ্যায় এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন র‌্যাগিয়ের সঠিক বিচারের আশ্বাস দেয় ও অপরাধীদের শনাক্ত করতে সংশ্লিষ্ট সকলের সহায়তা কামনা করে।

 

 

 

পূর্বকোণ/রাশেদ

 

The Post Viewed By: 414 People

সম্পর্কিত পোস্ট