চট্টগ্রাম সোমবার, ০৮ মার্চ, ২০২১

সর্বশেষ:

৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ | ১:৩৬ অপরাহ্ণ

ইমরান বিন ছবুর 

১৫ দিনে ফেরত মিলছে টাকা

২০২০ সালের এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের কেন্দ্র ও বোর্ড ফি’র টাকা ফেরত পাচ্ছেন। বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা জনপ্রতি ১ হাজার ৬৫ টাকা এবং ব্যবসায় শিক্ষা ও মানবিকের শিক্ষার্থীরা ৬২৫ টাকা করে ফেরত পাবেন।

গতকাল চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডর ওয়েবসাইটে ‘এইচএসসি পরীক্ষা-২০২০ এর অব্যয়িত কেন্দ্র ফি এবং বোর্ড ফি ফেরত প্রদান’ সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে।

করোনা মহামারীর কারণে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা বাতিল হওয়ায় পরীক্ষার ফরম পূরণ বাবদ আদায় করা ফি ফেরত দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। শিক্ষা বোর্ডগুলো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কাছে এ অর্থ ফেরত দেবে। আর ট্রান্সক্রিপ্ট নেয়ার সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীদের এই অর্থ ফেরত দেবে। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের থেকে ট্রান্সক্রিপ্ট পাবে বলে জানান চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক নারায়ন চন্দ্র নাথ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত বছরের ৭ অক্টোবর শিক্ষামন্ত্রী পরীক্ষার ফরম পূরণকারী পরীক্ষার্থীদের এসএসসি/সমমান এবং জেএসসি/সমমান পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে ২০২০ সালের এইচএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশের ঘোষণা প্রদান করেন। তাই পরীক্ষার্থীদের উত্তরপত্র মূল্যায়ন বাবদ ধার্যকৃত অর্থ এবং ব্যবহারিক ও কেন্দ্র ফি বাবদ আদায়কৃত অর্থের অব্যয়িত অংশ আন্তঃবোর্ড পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক উপ-কমিটির ১৫৮ তম সভায় ফেরত প্রদানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় এবং বাংলাদেশে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব কমিটি’র ৫২৮তম সভায় অনুমোদিত হয়।

বোর্ড থেকে পরীক্ষার্থীকে ফেরত : যেসব পরীক্ষার্থী পরীক্ষার ফরম পূরণ করেছিল তাদের প্রতি পত্রের (তত্ত্বীয়) জন্য বোর্ড নির্ধারিত ফি থেকে পত্র প্রতি ৩০ টাকা এবং ব্যবহারিক বিষয়ের ক্ষেত্রে পত্র প্রতি আরও ১০ টাকা শিক্ষা বোর্ড থেকে ফেরত দেওয়া হবে।

কেন্দ্র ফি হতে পরীক্ষার্থীকে ফেরত :  কেন্দ্র ফি বাবদ পরীক্ষার্থী প্রতি ২০০ টাকা করে এবং আইসিটি বিষয়ক পরীক্ষার্থীদের অতিরিক্ত আরও ২৫ টাকা ফেরত পাবে। আইসিটি ছাড়া অন্য সব ব্যবহারিক বিষয়ের ক্ষেত্রে পত্রপ্রতি অতিরিক্ত ৪৫ টাকা করে ফেরত প্রদান করা হবে। কেন্দ্র ফি বাবদ অব্যয়িত অর্থ প্রতিষ্ঠান থেকে গ্রহণ করবে শিক্ষার্থীরা।

এ সম্পর্কে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক নারায়ণ চন্দ্র নাথ বলেন, বিজ্ঞান বিভাগের নিয়মিত একজন শিক্ষার্থী সর্বমোট ১ হাজার ৬৫ টাকা ফেরত পাবেন। মানবিক ও ব্যবসা শিক্ষা শাখায় একজন নিয়মিত শিক্ষার্থী পাবেন মোট ৬২৫ টাকা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ট্রান্সক্রিপ্ট নেয়ার সময় এ টাকা ফেরত পাবে শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা বিভাগ ভিত্তিক যেভাবে টাকা পাবে : এইচএসসি’র বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা ও মানবিক বিভাগে মোট ১৩টি বিষয়ে পরীক্ষা হয়। বিজ্ঞান বিভাগে ১৩টি বিষয়ের জন্য ৩০ টাকা করে শিক্ষা বোর্ড থেকে মোট ফেরত পাবে ৩৯০ টাকা। এর সঙ্গে বিজ্ঞান বিভাগে ৯ বিষয়ে ব্যবহারিক পরীক্ষা হয়। প্রতিটি পত্রে ১০ টাকা করে মোট ৯০ টাকা ফেরত দেওয়া হবে। এছাড়া, কেন্দ্র ফি বাবদ ২০০ টাকা এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে ব্যবহারিক খাতা থেকে ২৫ টাকা। আর ব্যবহারিকে ৪৫ টাকা করে আট বিষয়ে মোট ৩৬০ টাকা। সব মিলিয়ে বিজ্ঞানের একজন শিক্ষার্থী সর্বমোট ১ হাজার ৬৫ টাকা ফেরত পাবেন।

অন্যদিকে, মানবিক ও ব্যবসা শিক্ষা বিভাগের নিয়মিত একজন শিক্ষার্থী ১৩টি বিষয়ে মোট ৩৯০ টাকা, পরীক্ষা কেন্দ্র ২০০ টাকার সঙ্গে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যবহারিক বিষয়ে শিক্ষাবোর্ড ১০ টাকা এবং কেন্দ্র দেবে ২৫ টাকা। সে হিসেবে মানবিক ও ব্যবসা শিক্ষা বিভাগের একজন নিয়মিত শিক্ষার্থী মোট পাবে ৬২৫ টাকা।

এছাড়া, অনিয়মিত শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে একজন শিক্ষার্থী যে কয়টি বিষয় লিখিত ও ব্যবহারিক পরীক্ষার জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছিলেন সে অনুপাতে টাকা ফেরত পাবেন।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 486 People

সম্পর্কিত পোস্ট