চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১২:৪৯ এএম

ড. মাহফুজ পারভেজ

একজন স্বপ্নসফল মানুষ

সব মানুষই স্বপ্ন দেখে। কারণ মানুষ স্বপ্নপ্রবণ। কিন্তু সব মানুষই স্বপ্নসফল হতে পারে না। স্বপ্ন দেখলেই স্বপ্নসফল হওয়া যায় না। আলহাজ মোহাম্মদ ইউসুফ চৌধুরী। তার স্বপ্নের সফলতার অন্য নাম দৈনিক পূর্বকোণ।
বায়োলজিক্যাল দিক থেকে, অসুস্থ ও মানসিক বিকলাঙ্গ ছাড়া সকল স্বাভাবিক মানুষই স্বপ্ন দেখে। এটাই মানুষের নিয়মতান্ত্রিক ও শরীর-বৃত্তিয় প্রবণতা। প্রকৃতি-প্রদত্ত মানব-ধর্মই হলো স্বপ্ন দেখা। মানবসত্ত্বার মধ্যেই লুক্কায়িত রয়েছে নানা রকম স্বপ্ন দেখার একটি অতি সহজাত প্রবৃত্তি; একই সঙ্গে রয়েছে স্বপ্ন সফল করার একটি দৃঢ়-প্রত্যয়। যারা স্বপ্নকে সফল করতে পারেন, তারা হয়ে ওঠেন ইতিহাসের জাতক; স্বপ্নসফলপুরুষ।

স্বপ্ন দেখা সম্ভব হলেও স্বপ্ন সফল করা অনেক মানুষের ক্ষেত্রেই সফল হয়না। আসলে সমাজ জীবনে, নানা প্রতিকূলতার মধ্যে ইতিবাচক বা সফলতার স্বপ্ন দেখতে পারে কয়জন মানুষ-জন? কিংবা নিজের স্বপ্নকে সফল করতে পারে কয়জন? সঙ্কুল পরিবেশ পেরিয়ে স্বপ্নকে সার্থক করা কতজন মানুষের ক্ষেত্রে শেষ পর্যন্ত সম্ভব হয়, এটাই একটি মৌলিক প্রশ্ন; বড় জিজ্ঞাসা। বস্তুতপক্ষে, স্বপ্ন দেখা আর স্বপ্ন পূরণ করতে পারা বা না-পারার মধ্যেই মানবজীবনের অনাদীকালের চক্রবৎ ঘূর্ণন চলছে, এটাই যেন মানুষের এক শাশ্বত নিয়তি, যা স্বপ্ন ও বাস্তবের পরিভ্রমণে প্রসারিত হয় জন্ম থেকে মৃত্যুর সীমানা অবধি। এটা মানবজীবনের মৌলিক সত্য।
সভ্যতার ইতিহাস বলছে, মানুষের গভীর প্রত্যাশার জায়গাটিতে দাঁড়িয়ে রয়েছে স্বপ্ন সফলের প্রত্যয়। এই প্রত্যয় মানুষকে বাঁচায়; জীবন্ত রাখে; প্রতিনিয়ত এগিয়ে নেয়; অবশেষে পৌঁছে দেয় ভবিষ্যত সাফল্যের ঠিকানায়। পৃথিবী ও সভ্যতার সুপ্রাচীন ইতিহাস এ রকম অনেক স্বপ্ন দেখার আর সেইসব স্বপ্ন সফল করার সংগ্রামে ভরপুর কাহিনীতে সমৃদ্ধ। কখনো স্বপ্ন সফল করতে না পারার ট্র্যাজিডিতে ভারাক্রান্ত। এই সফলতা আর ব্যর্থতার দ্বৈরথে আকীর্ণ আমাদের চিরায়ত মানবজীবন। এভাবেই লিপিবদ্ধ হয় সফল ও ব্যর্থ মানুষের ইতিবৃত্ত।

স্বপ্ন আর পূর্বকোণ একে অপরের পরিপূরক, যার কেন্দ্রস্থলে রয়েছেন স্বপ্নপুরুষ আলহাজ মোহাম্মদ ইউসুফ চৌধুরী। তার জীবনের সুদীর্ঘ সংগ্রাম পথে দৈনিক পূর্বকোণ পত্রিকাটিও একটি সফলতার স্বপ্নকাহিনী। গভীর-ভালোবাসাময়-মমতাপূর্ণ একটি স্বপ্ন দেখার এবং সেটাকে সফলতায় পৌঁছে দেওয়ার ইতিহাসই হলো দৈনিক পূর্বকোণ-এর ইতিকথা। পূর্বকোণ আর তাকে ঘিরে স্বপ্ন দেখা এবং সে স্বপ্নকে বাস্তবায়নের পথে ও পরিম-লে আলোকবৃত্তের মতো আবর্তিত হচ্ছে একটি নাম; আলোকস্তম্ভের মতো মাথা উঁচিয়ে দাঁড়িয়ে আছে একটি জীবন; আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইউসুফ চৌধুরী। আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইউসুফ চৌধুরীর স্বপ্নের অন্য নাম ‘দৈনিক পূর্বকোণ’; তাঁর স্বপ্ন সফলের রোমাঞ্চকর ঘটনাবহুল ইতিহাস হলো আজকের সকলের প্রিয় ও প্রশংসিত ‘দৈনিক পূর্বকোণ’।

গোড়াতে চট্টলদরদী আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইউসুফ চৌধুরী একটি ব্যক্তিগত স্বপ্ন দেখেছিলেন। তিনি তাঁর স্বপ্নকে সকলের মধ্যে সঞ্চারিত করে দিয়েছিলেন এবং সকলকে সঙ্গে নিয়ে সেই অমোঘ স্বপ্নটিকে সফলও করেছিলেন। একা নয়, সম্মিলিত মহৎ উদ্যোগে তিনি সেই ব্যক্তিগত স্বপ্নকে সামাজিক কাঠামোতে সফল করতে সক্ষম করেছিলেন। তার স্বপ্ন হয়ে ওঠেছিল চট্টগ্রামের সাংবাদিকতা জগতের সকলের স্বপ্ন; পাঠক, লেখক আর সংবাদপত্রসেবীদের মিলিত স্বপ্নকথা।

ব্রিটিশ ও পাকিস্তানি যুগে আন্তর্জাতিক-আঞ্চলিক পর্যায়ের উচ্চাঙ্গের প্রকাশনা ও সাময়িকী পত্রসমূহ বিপণন ও পরিবেশন করতে করতে তিনি স্বপ্ন দেখেছিলেন চট্টগ্রাম থেকে একটি উন্নতমানের এবং অগ্রসর রুচি ও চিন্তার দৈনিক পত্রিকা প্রকাশ করবেন। তিনি স্বপ্ন দেখেছিলেন, তাঁর সেই পত্রিকা প্রযুক্তি ও মেধায় কেবল চট্টগ্রামেরই নন, তাবৎ বাংলাদেশের মধ্যেই শ্রেষ্ঠ হবে। কেবল স্বপ্ন দেখেই তিনি থেমে যান নি; স্বপ্নের পক্ষে আরো বহুজনকে একত্রিত করেন; এবং শেষ পর্যায়ে স্বপ্ন-সফলের অদম্য আগ্রহে তিনি একদল সমমনা-সহযোগী মানুষকে নিয়ে স্বপ্ন-সফল-করার-যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েন। আধুনিক প্রেস ও প্রযুক্তি আহরণ করেন; যোগ্য লোকদের খুঁজে খুঁজে বের করে নিয়ে আসেন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে; উন্নত প্রশাসনিক ও ব্যবস্থাপনা নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেন। এভাবেই গত শতাব্দীর আশি দশকে বঙ্গের এই দূর প্রান্তের পাহাড়-সমুদ্র-মিথিলাঘেরা সবুজ-সুন্দর-নান্দনিক ভূমি ঐতিহ্যবাহী চট্টগ্রাম থেকে বের হলো ‘দৈনিক পূর্বকোণ’। প্রায় তিন যুগ আগের সেই সূচনা-লগ্নের কথা ও কাহিনী আজ ইতিহাসের অংশ; বাংলাদেশের সংবাদপত্র-প্রকাশনা জগতের আধুনিক পুনরুত্থানের নাটকীয় ইতিবৃত্ত। যে কাহিনীকাব্যের নায়ক হয়ে ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণ-খচিত হয়ে আছে তার অম্লান নাম।

তিনি একজন স্বাপ্নিক ও স্বপ্ন-সফল মানুষ হিসাবে জাগতিক জীবন পাড়ি দিয়ে অনন্তলোকে চলে গেলেও রেখে গেছেন প্রচ্ছন্ন ছাপ। ভালোবাসার দ্যুতি। ¯েœহের পরশ। পূর্বকোণ নামক দেশপ্রিয় পত্রিকাটির পাতায় পাতায়, অক্ষরে অক্ষরে মিশে আছে তার স্মৃতি ও স্বত্ত্বা।

তিনি, আলহাজ মোহাম্মদ ইউসুফ চৌধুরী, স্বপ্নপুরুষ হয়ে পূর্বকোণ পরিবারের বৃহত্তর অঙ্গনে কর্মরত শত শত কর্মী, সাংবাদিক, লেখক, পাঠক মহলে আশাজাগানিয়া প্রতীতীতে অবস্থান করছেন। মৃত্যুই তার অবসান নয়; বরং মৃত্যুহীন চেতনার সমার্থক হয়ে রয়েছেন তিনি সকলের মাথার ওপর বটবৃক্ষের অপার ছায়ায় ছায়ায়, মায়ায় ও ভালোবাসায়-শ্রদ্ধায়। তার স্মৃতি সহ¯্র প্রদীপ শিখার আলোয় আলোয় ভরিয়ে দিচ্ছে আমাদের চারপাশ। শুধু মৃত্যুদিনে নয়, তাকে সতত স্মরণ করা হয় কর্মের পরিধিতে, পূর্বকোণের প্রাত্যহিতার প্রতিটি ক্ষণে ও মুহূর্তে। মৃত্যহীন স্বপ্নপুরুষ তিনি, প্রেরণার অনিঃশেষ বাতিঘর।

লেখক : কবি-লেখক-গল্পকার। প্রফেসর, রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

The Post Viewed By: 84 People

সম্পর্কিত পোস্ট