চট্টগ্রাম বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

সর্বশেষ:

২২ জানুয়ারি, ২০২০ | ৪:২৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক হ ঢাকা অফিস

সম্পদ-পাসপোর্ট জব্দের নির্দেশ প্রশান্ত হালদারসহ ২০ জনের বিদেশে টাকা পাচার

এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্স লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রশান্ত কুমার হালদারসহ (পিকে হালদার) ২০ জনের সম্পদ ও ব্যাংক হিসাব জব্দ এবং পাসপোর্ট আটকানোর নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত আর্থিক খাতের কোম্পানি (পিকে হালদারের দখলে থাকা) ইন্টারন্যাশনাল লিজিং এন্ড ফাইন্যান্স সার্ভিস লিমিটেডের স্বাধীন পরিচালক ও চেয়ারম্যান হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদকে নিয়োগ দিয়েছেন আদালত।

গতকাল মঙ্গলবার হাইকোর্টের বিচারপতি মোহাম্মদ খুরশিদ আলম সরকারের একক বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদালতে আবেদনকারীর পক্ষে শুনানি করেন এডভোকেট শাহরিয়ার কবির। যে ২০ জনের হিসাব জব্দ ও পাসপোর্ট আটকানোর আদেশ দেয়া হয়েছে তাদের মধ্যে পিকে হালদার ছাড়াও রয়েছেন- এমএ হাসেম, জহিরুল আলম, বিষুদেব ব্যানার্জি, পাপিয়া ব্যানার্জি, মমতাজ বেগম, নওশেরুল ইসলাম, আনোয়ারুল কবির, প্রকৌশলী নুরুল কবির। প্রশান্ত কুমার হালদার, যিনি পিকে হালদার নামেই ব্যাংকগুলোর কাছে পরিচিত। এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক থাকার সময় আইনের ফাঁক গলে অর্জন করেছেন পৌনে ৩০০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ। যার বেশির ভাগই পাচার করেছেন বিদেশে। তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির মাধ্যমে ২৭৫ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে গত ৮ জানুয়ারি মামলা করেছে দুদক। মামলার এজহারে বলা হয়েছে, বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কর্মকর্তা থাকা অবস্থায় ক্ষমতার অপব্যবহার ও দুর্নীতির মাধ্যমে এ টাকার মালিকানা অর্জন করেছেন। শুধু তাই নয়, অনুসন্ধানে দেখা যায়, পিকে বেনামে অসংখ্য কোম্পানি খুলে পুঁজিবাজার থেকে বিপুল পরিমান শেয়ার কিনে ইন্টারন্যাশনার লিজিং এন্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস, পিপলস লিজিং, এফএএস ফাইন্যান্স ও বিআইএফসি দখল করে ঋণের নামে হাতিয়ে নিয়েছেন শত শত কোটি টাকা। প্রশান্ত কুমার হালদার বিগত দিনে বহাল তবিয়তে থাকলেও সম্প্রতি ক্যাসিনোবিরোধী শুদ্ধি

অভিযানে সামনে আসে তার নাম। ৩ অক্টোবর তার বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা দিয়ে ১৪ নভেম্বর দুদকে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিলেও, রহস্যজনকভাবে ইমিগ্রেশনের চোখে ধুলো দিয়ে পালিয়ে যান বিদেশে।

The Post Viewed By: 121 People

সম্পর্কিত পোস্ট