চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২১

২০ মে, ২০১৯ | ১:৫১ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, রাজস্থলী

বাঙ্গালহালিয়ায় বন্যহাতির তা-বে তছনছ কলাবাগান

রাঙামাটির রাজস্থলী উপজেলার বাঙ্গালহালিয়ায় বন্য হাতির হানা বেড়েছে। ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের কাকড়াছড়ি পাড়ায় গত এক সপ্তাহ ধরে একদল হাতি বার বার আক্রমণ চালাচ্ছে।
আক্রমণে তছনছ হয় প্রায় ১০ একর জায়গায় গড়ে তোলা কলা বাগান। কলাসহ হাজার হাজার কলা গাছ ল-ভ- হয়ে গেছে। এতে প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতির শিকার হয়েছে পাড়ার কৃষকরা। ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে রয়েছেন সাবেক মেম্বার ও বাঙ্গালহালিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হ্লাথোয়াই মারমা, সাগ্যনু মারমা, রেহ্লাপ্রু মারমা প্রমুখ। তারা বলেন প্রতি বছর যে হারে বন্যহাতির আক্রমণে জমির ধানসহ কলা বাগানের ক্ষতি হয় তা সহজে পুষিয়ে নেওয়া যায় না। গত বছরের ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই ৩৫/৪০টি বন্যহাতির আক্রমণ আবার বাগান মালিকদের অনিশ্চয়তায় ফেলে দেয়। দল বেঁধে এসে সন্ধ্যা হতে রাত পর্যন্ত বাগানে হানা দিয়ে আমাদের প্রায় ১০ একর জমিতে রোপণকৃত কলাসহ বাগানগুলো ল- ভ- করে দেয়। ক্ষতিগ্রস্ত সাবেক ইউপি সদস্য হ্লাথোয়াই অং মারমা গঞ্জ বলেন, চার একর জমিতে রোপণ করা কলা গাছগুলো থেকে প্রতি সপ্তাহে ৫ থেকে ৬ হাজার টাকার কলা বাজারে বিক্রি করে আমাকে সাংসারিক খরচ মেটাতে হয়। কিন্তু প্রতিবছর বন্যহাতির দলটি যে হারে আমাদের ক্ষতি করে চলছে তাতে করে সরকারি সহযোগিতা ছাড়া এই ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া কোনভাবেই সম্ভব না। বাঙ্গালহালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ঞোমং মারমা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন প্রতিবছরই এ সময়ে বন্যা হাতির দলটি বাঙ্গালহালিয়া এলাকার বিভিন্ন স্থানে হানা দিয়ে কৃষকদের উৎপাদিত ফসল নষ্ট করে। এতে লাখ লাখ টাকার লোকসান গুনতে হচ্ছে। তাই সরকারি সহযোগিতা ছাড়া এই ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া কোনভাবেই সম্ভব নয় বলে তিনি বলেন।

বিজ্ঞাপন

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 193 People

মন্তব্য দিন :

সম্পর্কিত পোস্ট