চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

সর্বশেষ:

২২ জানুয়ারি, ২০২০ | ৪:১৪ পূর্বাহ্ণ

মা ও শিশু হাসপাতাল নার্সিং ইনস্টিটিউটে ওরিয়েন্টেশন

চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল নার্সিং ইনস্টিটিউট ও শামসুন নাহার খান নার্সিং কলেজ-এ ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স এন্ড মিডওয়াইফারী ও বি.এসসি ইন নার্সিং কোর্সে ভর্তিকৃত ছাত্র-ছাত্রীদের ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত।

চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল নার্সিং ইনস্টিটিউট ও শামসুন নাহার খান নার্সিং কলেজ এর অডিটোরিয়ামে গতকাল ২১ মঙ্গলবার ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স এন্ড মিডওয়াইফারী ও বি.এসসি ইন নার্সিং কোর্সে ভর্তিকৃত ছাত্র-ছাত্রীদের ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়।

শামসুন নাহার খান নার্সিং কলেজ এর (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যক্ষ স্মৃতি রানী ঘোষের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন মা ও শিশু হাসপাতাল কার্যনিবাহী কমিটির ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট প্রফেসর (ডা.) এম. এ তাহের খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেনারেল সেক্রেটারি ডা. আঞ্জুমান আরা ইসলাম। পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত, গীতা ও ত্রিপিটক পাঠের মাধ্যমে শুরু হওয়া উক্ত অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন নার্সিং ইনস্টিটিউটের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ঝিনু রানী দাশ। নবাগত শিক্ষার্থীদের মধ্যে একজন শিক্ষার্থীর বক্তব্য-এর পর মঞ্চে উপবিষ্ট অতিথিদেরকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন ডিপ্লোমা নার্সিং ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থীবৃন্দ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর (ডা.) এম, এ তাহের খান বলেন ‘খুব যতœ করে ঔষধপত্র প্রদান ও অন্যান্য সেবা দানের মাধ্যমে আমাদের নার্সরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের পাশাপাশি যদি তারা রোগীদের সাথে সুন্দর ব্যবহার ও হাসি দিয়ে তা করতে পারে তবেই আসবে নার্সিং পেশার সার্বিক সাফল্য। এই পেশায় যারাই আসছে কিংবা এ নিয়ে পড়াশুনা করছে তাদের অনাগত ভবিষ্যত জীবনও খুব সুন্দর ও চমকপ্রদ কেরিয়ার গঠনের জন্য খুবই উপযোগী। কাজেই সেবার এই মহান দিকটির প্রতি তাদেরকে অত্যধিক মনোযোগ দেওয়া জরুরী বলে আমি মনে করি।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মা ও শিশু নার্সিং ট্রেনিং সেন্টারের প্রতিষ্ঠাতা ডা. আঞ্জুমান আরা ইসলাম বলেন, রোগীদের সাথে হাসিমুখে কথা বলে তাদের প্রতি সুন্দর ব্যবহার ও উত্তম আচরণের মধ্য দিয়ে যারা এই পেশায় অক্লান্ত পরিশ্রম করে রোগীর সেবা দিয়ে যায় তারাই সর্বাগ্রে জয়ী।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ভাইস-প্রেসিডেন্ট এস এম মোরশেদ হোসেন ও ডা. এম. মাহফুজুর রহমান, জয়েন্ট-জেনারেল সেক্রেটারি ডা. মো. আরিফুল আমীন, ডোনার মেম্বার ইঞ্জিনিয়ার মো. জাবেদ আবছার চৌধুরী, ডা. মো. পারভেজ ইকবাল শরীফ, রেখা আলম চৌধুরী, মো. আহছান উল্যাহ, এস. এম কুতুব উদ্দীন, খায়েজ আহমেদ ভূঁইয়া, অধ্যক্ষ প্রফেসর (ডা.) এ.এস.এম মোস্তাক আহমেদ, হাসপাতালের পরিচালক (প্রশাসন) ডা. মো. নুরুল হক, নার্সিং সুপারিনটেনডেন্ট রঞ্জু কনা পাল প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন হাসপাতালের সহকারী পরিচালক (মেডিকেল এফেয়ার্স) ডা. ফাহিম হাসান রেজা।-বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 30 People

সম্পর্কিত পোস্ট