চট্টগ্রাম বুধবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২১

২০ মে, ২০১৯ | ২:৩০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

৩৩ নম্বর ফিরিঙ্গীবাজর ওয়ার্ড

­ডাবেই স্বস্তি রমজানে

ফিরিঙ্গীবাজারের আড়তগুলোতে জমে উঠেছে ডাবের পাইকারি বাজার। গরম বাড়ার সাথে সাথে এসব আড়তে ডাবের চাহিদাও বাড়তে থাকে। আর রমজান মাসে ডাবের দামও অন্যান্য মাসের তুলনায় একটু বেশি। এক একটি আড়তে প্রতিদিন বিক্রি হচ্ছে ৫ থেকে ৬ হাজার ডাব। ছোট সাইজের ডাব বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২৫ টাকায়। মাঝারি সাইজের ডাব বিক্রি হচ্ছে ৩৫ থেকে ৩৮ টাকায়। আর সবচেয়ে বড় সাইজের ডাবগুলো বিক্রি হচ্ছে ৪৫ থেকে ৪৮ টাকা দরে। চট্টগ্রামের আশপাশের উপজেলাগুলো থেকে এখানে ডাব আসে। এছাড়া নোয়াখালী, ভোলা, চকরিয়া, কক্সবাজার, ফেনী, বন্দরবান ও বরিশাল থেকে এখানে প্রচুর পরিমাণে ডাব আসে।
ডাব কিনতে আসা আরমানের সাথে কথা হলে বলেন, বাসার সবাই ডাবের পানি দিয়ে ইফতার করতে চায়। রমজান মাসে ফ্রেশ খাওয়ারের মধ্যে ডাব একটি। বাইরের দোকানের তুলনায় এখানে পাইকারিতে দাম কিছুটা কম রয়েছে। তাই এখান থেকে কিছু ডাব ক্রয়ের জন্য এসেছি। বাসা কাছে হওয়ায় কিছুদিন পরপর এসে এখান থেকে ডাব নিয়ে যায়। দামও ভালো, আর ফ্রেশও পাওয়া যায়।
এ সম্পর্কে ফিরিঙ্গীবাজার ডাবের আড়তদারের সাথে কথা হলে জানান, অন্যান্য সময়ের তুলনায় রমজানে ডাবের চাহিদা এবং বেচা-বিক্রি ভালো হচ্ছে। প্রতিটি আড়তে দৈনিক ৫ থেকে ৬ হাজার ডাব বিক্রি হচ্ছে। তিন সাইজের ডাব বিক্রি করা হয়। ছোট ডাব বিক্রি করা হয় ২০ থেকে ২৫ টাকায়। মাঝারি ডাব বিক্রি হয় ৩৫ থেকে ৩৮ টাকায়। আর বড় ডাব বিক্রি করা হয় ৪৫ থেকে ৪৮ টাকায়। আমাদের আড়ত থেকে আশপাশের এলাকার দোকানদাররা ডাব নিয়ে যায়। বিশেষ করে পানের দোকানদার এবং যারা ভ্যানে করে বিক্রি করে। তবে আগের তুলনায় এখন ডাবের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই ব্যবসায় আগের মত মুনাফা করতে পারছি না।আড়তদাররা আরো জানান, ফিরিঙ্গীবাজার ১৬৪ ব্রিজ ঘাট রোডে ১১টির মত ডাবের আড়ত রয়েছে। প্রতিটি আড়তে নোয়াখালী, কক্সবাজার, চকরিয়া, ফেনী, বান্দরবান, ভোলা ও বরিশালের থেকে কিছু কিছু ডাব আসে। এছাড়া, চট্টগ্রামের আশপাশের কিছু কিছু উপজেলা থেকে এখানে ডাব আসে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 558 People

মন্তব্য দিন :

সম্পর্কিত পোস্ট