চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

সর্বশেষ:

১৬ জানুয়ারি, ২০২০ | ৪:১০ পূর্বাহ্ণ

পূর্বকোণ প্রতিনিধি হ রাঙামাটি অফিস

তিন পার্বত্য জেলায় এডভেঞ্চার উৎসবে পার্বত্য মন্ত্রী

বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা মাদার অব পার্বত্য চট্টগ্রাম

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেছেন, বুলেট নয় আন্তরিকতা দিয়ে অহিংস উপায়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি সম্পাদন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যা পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা হলেন মাদার অব পার্বত্য চট্টগ্রাম। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় পার্বত্য চট্টগ্রাম পিছিয়ে নেই। বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থার মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামে বর্তমানে ১০ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কার্যক্রম চলছে। তিনি বলেন, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকীতে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে এ ধরনের উৎসব গোটা জাতিকে উদ্বেলিত করার পাশাপাশি মহান স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে উজ্জীবিত করতে অনন্য ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে। তিনি গতকাল বুধবার রাঙামাটিতে তিন পার্বত্য জেলায় পাঁচ দিনব্যাপী বঙ্গবন্ধু জাতীয় এডভেঞ্চার উৎসব সমাপনী অনুষ্ঠানে

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের রাঙামাটিস্থ প্রধান কার্যালয় অত্যাধুনিক ‘মাইনী’ মিলনায়তনে বিকেলেঅনুষ্ঠিত পুরস্কার বিতরণী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মেসবাহুল ইসলাম, রাম এস ভার্মা, অ্যাডভেঞ্চার ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা লে. জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) এটিএম জহিরুল আলম, রাঙামাটি রিজিয়ন কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মো. মাইনুর রহমান প্রমুখ । অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং। এছাড়া সকালে রাঙামাটির উচু পাহাড় ‘ফুরোমোন’ ট্রেকিং অভিযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। সমাপনী অনুষ্ঠান শেষে সন্ধ্যায় কাপ্তাই হ্রদে ফানুস উত্তোলন ও আতশবাজির মধ্য দিয়ে পাঁচ দিনব্যাপী উৎসবের সমাপ্ত হয়।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এডভেঞ্চার ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় উৎসবটির আয়োজন করে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড। গতকাল বুধবার রাঙামাটিতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় এডভেঞ্চার উৎসব পক্ষ থেকে এভারেষ্ট বিজয়ী নিশাত মজুমদারকে বঙ্গবন্ধু এডভেঞ্চার এওয়ার্ড ও এক লক্ষ এক টাকা প্রদান করা হয়। এছাড়া দেশি-বিদেশি সকল অংশগ্রহণকারীকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। এবার উৎসবে বিভিন্ন এডভেঞ্চার কার্যক্রমে ১০০ এডভেঞ্চারার অংশ নিয়েছে।

আয়োজকরা জানান, এবারই প্রথম বঙ্গবন্ধু জাতীয় এডভেঞ্চার উৎসবের অন্যতম আকর্ষণ মাউন্টেইন বাইক, কায়াকিং, ক্যানিওনিং, কেড ডিসকভারি, হাইকিং, ট্রেইল রান, রোপ কোর্স, টিম বিল্ডিং, টি ট্রেইল হাইকিং, সেইলিং পর্যটন শিল্পের প্রসার ও বিকাশে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

The Post Viewed By: 71 People

সম্পর্কিত পোস্ট