চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

১৬ মে, ২০১৯ | ২:৫১ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

১০ দিন পরপর লটারি ড্র করে মেগা পুরস্কার

ঈদকে ঘিরে মাসব্যাপী বিক্রয় উৎসব চলছে আমীন সেন্টারে। ৫০০ টাকার পণ্য কিনলেই পাওয়া যাবে একটি স্ক্র্যাচ কার্ড। পণ্য কেনার সাথে সাথেই কার্ড ঘষে নিজের ভাগ্যের পুরস্কার নিয়ে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। এতে কফি মগ, সুপ বাটি ও ফ্লাস্ক- এ তিনটি থেকে যেকোনো একটি উপহার হিসেবে দেওয়া হচ্ছে। আবার যেসব ক্রেতার স্ক্র্যাচ কার্ডে শুধুমাত্র ‘ধন্যবাদ’ লেখা পাওয়া যাবে; তারা মেগা পুরস্কারে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। স্ক্র্যাচ কার্ডে তারা নিজের মোবাইল নম্বর লিখে মেগা পুরস্কারের লটারি বক্সে ফেলবেন। প্রতি ১০ দিন পরপর সেখান থেকে লটারির মাধ্যমে কমপক্ষে ৩০টি পুরস্কার দেওয়া হবে। মেগা পুরস্কারের মধ্যে রয়েছে ৪০ ইঞ্চি একটি এলইডি টিভি, ফ্রিজ, মোবাইল ফোন সেট, ওয়াশিং মেশিন, মাইক্রো ওভেন, ব্লেন্ডার মেশিন, রাইচ কুকার, ডিনার সেট ইত্যাদি। শুধু স্ক্র্যাচ কার্ড নয়, ঈদকে ঘিরে নতুন রূপে সেজেছে আমীন সেন্টার। পুরো মার্কেটে

আলোকসজ্জা করা হয়েছে। রমজানের প্রথম থেকে অল্প-স্বল্প কেনাকাটা শুরু হলেও ধীরে ধীরে বাড়ছে। নগরীর লালখানবাজার মোড়ে আমীন সেন্টারের অবস্থান। ১৪ তলার বহুতল ভবনের নিচের গ্রাউন্ড ফ্লোর ছাড়া প্রথম ৫তলা পর্যন্ত রয়েছে মার্কেট। মার্কেটের ২০০ দোকানে আধুনিক সব কাপড়-চোপড়, গার্মেন্টস আইটেম, জুতা, স্বর্ণালংকার, কসমেটিকস, খাবারের দোকান থেকে শুরু করে সবই রয়েছে।
আমীন সেন্টার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহেদুল আনোয়ার দৈনিক পূর্বকোণকে বলেন, ‘ঈদের কেনাকাটায় আকর্ষণ বাড়াতে চালু করা হয়েছে ঈদ উৎসব। মার্কেটের ব্যবসায়ী সমিতি এ উৎসব চালু করেছে। মার্কেটে ৫০০ টাকার পণ্য কিনলে একটি স্ক্র্যাচ কার্ড দেওয়া হচ্ছে ক্রেতাকে। এটি ঘষলে পুরস্কার মিলছে। প্রতিদিন পুরস্কারের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। তবে ১০, ২০ ও ২৯ রমজানে ড্র’য়ের মাধ্যমে আকর্ষণীয় পুরস্কার দেওয়া হবে।’ তিনি বলেন, ‘কেনাকাটার আধুনিক সব সুযোগ সুবিধা রয়েছে আমীন সেন্টারে। সিঁড়ির পরিবর্তে স্কেলেটর, ক্যাপসুল লিফট, কার্গো লিফট এবং কার পার্কিয়ের সুব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়া পুরো মার্কেটটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। এতে কেনাকাটায় ক্রেতারা অত্যন্ত স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন।’
ব্যবসায়ীরা জানান, নগরীর অত্যন্ত আধুনিক আমীন সেন্টারে প্রতিটি দোকানে এবার ঈদ উপলক্ষে পণ্যের সমাহার করা হয়েছে। নি¤œবিত্ত, নি¤œ মধ্যবিত্ত ও উচ্চবিত্ত- সকল শ্রেণির ক্রেতার চাহিদামতো পণ্য রয়েছে এ মার্কেটে। বিশেষ করে নারীর পোশাকের সম্ভার ঘটানো হয়েছে। রয়েছে থ্রিপিস, শাড়িসহ আধুনিক কাপড়-চোপড়। পুরুষের জিন্সের প্যান্ট, টি-শার্ট ও শিশুর কাপড় তোলা হয়েছে দোকানগুলোতে। এছাড়া রয়েছে জুতা ও জুয়েলারি সামগ্রী।
ব্যবসায়ীরা জানান, ক্রেতার আকর্ষণ বাড়াতে আমীন সেন্টারে পণ্যের যেমন আধুনিকতা রয়েছে, তেমনি দামও সহনীয় পর্যায়ে রয়েছে। এতে ক্রেতারা কেনাকাটায় স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট