চট্টগ্রাম শনিবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২০

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ৫:০৮ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা, টেকনাফ

৮ লক্ষাধিক ইয়াবা, ৬টি অস্ত্র ও ৭০ রাউন্ড গুলিসহ আটক ৮ টেকনাফ

র‌্যাব সদস্যরা টেকনাফের হ্নীলা ও সদর ইউনিয়নে পৃথক অভিযান চালিয়ে ৮ লক্ষ ১৪ হাজার ৯৭০ পিস ইয়াবা, ৬টি অস্ত্র, ৭০ রাউন্ড গুলিসহ ৮ জনকে আটক করেছে। এব্যাপারে পৃথক মামলা রুজু করে ধৃতদের টেকনাফ মডেল থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

র‌্যাব-১৫ এর সহকারী (মিডিয়া) পরিচালক এএসপি আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী জানান, গত ১২ ডিসেম্বর বিকাল পৌণে ৫টার দিকে র‌্যাব-১৫ কক্সবাজার ক্যাম্পের একটি চৌকষ আভিযানিক দল মাদক বিক্রি ও বহনের গোপন সংবাদের ভিত্তিতে টেকনাফ সদর ইউপির হাবিরছড়া মেরিন ড্রাইভ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। এসময় টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের পশ্চিম লেদার বহুল আলোচিত ইয়াবা কারবারি মকতুল হোছনের পুত্র কামাল হোছন (২৯), আক্তার হোছন (৩২), মো. নুর (২০) ও আবুল হোছনের পুত্র আব্দুল মালেককে (২৬) আটক করে। পরে স্বাক্ষীদের উপস্থিতিতে ধৃতদের দেহ তল্লাশি করে ৪ হাজার ৯৭০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। ধৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়েরের জন্য উদ্ধারকৃত ইয়াবাসহ টেকনাফ মডেল থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

র‌্যাব-৭ চট্টগ্রামের অপারেশন অফিসার এএসপি মাশেকুর রহমান জানান, টেকনাফের হ্নীলায় র‌্যাব সদস্যরা সন্ত্রাস, মাদক বাণিজ্য নিয়ন্ত্রণ, অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়ের অন্যতম জনপদে অভিযান চালিয়ে তালিকাভুক্ত ৪ জন মাদক কারবারি এবং সন্ত্রাসীকে ৮ লাখ ইয়াবা ও ৬টি অস্ত্রসহ আটক করেছে। গতকাল শুক্রবার ভোরে র‌্যাব-৭ এর একটি চৌকষ আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের রঙ্গীখালী এলাকায় অভিযান চালিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত ইয়াবা কারবারি ইয়ার মোহাম্মদের পুত্র নুর হাফেজ (৩৮), দলিলুর রহমানের পুত্র ছৈয়দ আলম প্রকাশ কালু (৩৪), ছৈয়দ হোসেনের পুত্র ছৈয়দ নুর (৪১), সব্বির আহমদের পুত্র মোহাম্মদ সোহেলকে (৪৩) আটক করা হয়। পরে আটককৃতদের স্বীকারোক্তিতে তল্লাশি চালিয়ে ৮ লাখ ১০ হাজার ইয়াবা, ৬টি অস্ত্র ও ৭০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। দীর্ঘদিন ধরে তাদের কার্যক্রমের উপর নজর রাখার পর শুক্রবার ভোররাতে তাদের এসব অস্ত্র ও ইয়াবাসহ আটক করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ শেষে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

The Post Viewed By: 62 People

সম্পর্কিত পোস্ট