চট্টগ্রাম বুধবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২০

১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ২:৫৬ পূর্বাহ্ন

ইফতেখারুল ইসলাম

চসিকের আরসিসি স্ল্যাব নির্মাণে মারাত্মক কারচুপি

নালার স্ল্যাব আড়াই ইঞ্চি পুরু !

নালার আরসিসি স্ল্যাব নির্মাণে মারাত্মক কারচুপি চলছে। ৪ ইঞ্চি অথবা ৫ ইঞ্চি পুরু স্ল্যাবের স্থলে ঠিকাদার মাত্র আড়াই ইঞ্চি পুরু স্ল্যাব নির্মাণকরে কাজ সেরে দিচ্ছে। এতে চসিকের অর্থের অপচয় ছাড়াও স্ল্যাবের স্থায়িত্ব নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। কয়েকটি সংস্থার প্রকৌশলীর সাথে আলাপ করে জানা গেছে, যদি নালার উপর দিয়ে হাল্কা যানবাহন চলাচল কর তাহলে স্ল্যাবের পুরুত্ব থাকতে হবে কমপক্ষে ৬ ইঞ্চি। পথচারী চলাচলের সø্যাব হতে হবে ৪ ইঞ্চি। স্ল্যাব নির্মাণে কিভাবে কারচুপি চলছে তার জলন্ত প্রমাণ নগরীর মোহরা ওয়ার্ডের পশ্চিম মোহরা এলাকা। সেখানে অন্তত ৩০০ ফুট স্ল্যাব নির্মাণ করা হয়েছে মাত্র আড়াই ইঞ্চি পুরুত্ব দিয়ে। তবে চসিকের সুপারভাইজার স্বীকার করেছেন, সেখানে চার ইঞ্চি পুরুত্বে স্ল্যাব নির্মাণের নির্দেশনা রয়েছে। স্থানীয়রা জানান, গোলাপের দোকান সংলগ্ন শহর আলী ডাক্তারের বাড়ি থেকে শুরু করে সেলিমার পিতার বাড়ি পর্যন্ত সড়কটি উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ করার দীর্ঘ দিনের দাবি ছিল তাদের। সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন তাদের

দাবি পূরণ করে প্রকল্প গ্রহণ করায় সবাই অনেক বেশি খুশি হয়। কিন্তু ঠিকাদারের কাজের মান দেখে এলাকাবাসী চরম হতাশ। এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, জনগণের রাজস্বের টাকায় প্রধানমন্ত্রী প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছেন। সিটি মেয়র আন্তরিক প্রচেষ্টায় প্রকল্প এনেছেন। প্রায় অর্ধকোটি টাকার সড়ক উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্পের কাজ যেভাবে করা হচ্ছে তা একসময় টিকবে না। কারণ সড়কটি সরু হওয়ায় এই স্ল্যাবের উপর দিয়েও গাড়ি চলাচল করবে। মালবোঝাই কোন গাড়ির চাকা স্ল্যাবের উপর উঠলেই স্ল্যাব ভেঙে গাড়িটি ওখানেই বসে যাবে। তখন জনদুর্ভোগ চরমে উঠবে।
একাধিক প্রকৌশলীর সাথে আলাপকালে তারা জানান, নালার প্রশস্ততা এবং যানবাহনের চাপের উপর ভিত্তির করে চার থেকে পাঁচ ইঞ্চি পুরুত্বের স্ল্যাব নির্মাণ করার নিয়ম রয়েছে। ভারী যানবাহন চলাচল করলে আরো মজবুত করে নির্মাণ করতে হয়।

জানতে চাইলে ওই প্রকল্পে চসিকের সুপারভাইজার ইউনুস পূর্বকোণকে জানান, যেদিন মহামান্য রাষ্ট্রপতি এসেছিলেন সেদিন তারা মূল সড়কের কাজ নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন। ওই ফাঁকে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজে কিছুটা কারচুপি করেছে। আড়াই ইঞ্চি পুরুত্বের স্ল্যাব নির্মাণ করেছে। প্রায় ৩০০ ফুটের মত কাজ তারা এভাবে করেছে। তবে সেই কাজটি গ্রহণ করা হবে না। এ বিষয়ে তিনি চসিকের নির্বাহী প্রকৌশলীকে অবহিত করবেন বলে জানান। সুপারভাইজার ইউনুস জানান, সেখানে চার ইঞ্চি পুরুত্বের স্ল্যাব নির্মাণের নির্দেশনা রয়েছে। যেখানে কম পুরুত্বের স্ল্যান নির্মাণ করা হয়েছে তা ভেঙে চার ইঞ্চির স্ল্যাব নির্মাণ করতে ঠিকাদারকে বাধ্য করা হবে।

জানতে চাইলে চসিকের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু সিদ্দিক পূর্বকোণকে জানান, বিষয়টি তার জানা ছিল না। তিনি আজ বুধবার সেখানে যাবেন। যদি এই ধরনের কোন ত্রুটি হয় তাহলে অবশ্যই তা ভেঙে নতুন করে করার নির্দেশ দেবেন।

The Post Viewed By: 127 People

সম্পর্কিত পোস্ট