চট্টগ্রাম সোমবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২০

সর্বশেষ:

১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ২:৫৬ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

জিইসি কনভেনশন হলে ৬ দিনের ফার্নিচার মেলা কাল শুরু

একই ছাদের নিচে বিশেষ ছাড়ে মিলবে নান্দনিক সব পণ্য। আছে ফ্রি ডেলিভারি সুবিধা

দেশের রুচিশীল মানুষের চাহিদার কথা মাথায় রেখে প্রতিবারের মতো এবারও শুরু হচ্ছে ১১তম চট্টগ্রাম ফার্নিচার মেলা, ২০১৯। দেশের শীর্ষস্থানীয় ৩১টি প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণে জিইসি কনভেনশন হলে আগামীকাল বৃহস্পতিবার এ মেলা শুরু হবে। ‘আমরা বৃদ্ধাশ্রম চাই না’ এ থিমে এবারের মেলায় আকর্ষণ

হিসেবে ষাটোর্ধ্ব দম্পতিদের দেয়া হবে ফ্রি প্রবেশাধিকার ও সিনিয়র সিটিজেন সম্মাননা। এছাড়া প্রতিবারের ন্যায় এবারও আয়োজনে থাকছে শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, প্লে জোন ও সেলফি জোন।

ছয় দিনব্যাপী শুরু হওয়া এ মেলা চলবে আগামী ১৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল দশটা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত চলা এ মেলার প্রবেশ মূল্য রাখা হয়েছে মাত্র দশ টাকা।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর অভিজাত একটি হোটেলে বাংলাদেশ ফার্ণিচার শিল্প মালিক সমিতি চট্টগ্রাম বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান মেলা কমিটির আহ্বায়ক ও সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাকসুদুর রহমান। তিনি বলেন, প্রতিবারের মতো এবারও চট্টগ্রামের সৌখিন ও রুচিশীল এবং ফার্নিচারপ্রেমী মানুষের আগ্রহ ও বিপুল সমর্থনের কারণে মেলার আয়োজন করা হয়েছে। নগরীর জিইসি কনভেনশন হলে আগামীকাল বৃহস্পতিবার সকাল দশটায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মেলা উদ্বোধন করবেন। এছাড়া বিশেষ অতিথি থাকবেন চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাহবুবুল আলম, কাস্টম্স এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেটের কমিশনার মোহাম্মদ এনামুল হক ও বাংলাদেশ ফার্নিচার শিল্পমালিক সমিতির মহাসচিব মো. ইলিয়াস সরকার।

আমদানি নির্ভরতা কমিয়ে ফার্নিচার শিল্পকে রপ্তানিমুখী শিল্পে পরিণত করাই মেলার মূল লক্ষ্য জানিয়ে তিনি বলেন, এ শিল্প একদিন দেশের সবচেয়ে বড় রপ্তানিমুখী শিল্পে পরিণত হবে। বর্তমানে দেশের তৈরি আসবাবপত্র বিদেশেও রপ্তানি হচ্ছে। আমরা আশাকরি এ শিল্প পোশাক শিল্পের মত বিশ^ বাজারে নিজেদের একটি অবস্থান করে নিতে পারবো।

একই ছাদের নিচে দেশের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠানের তৈরি সকল পণ্য থেকে নিজের পছন্দের পণ্যটি যাচাই করে নিতে ক্রেতাদের সুবিধার্থেই এ মেলার আয়োজন উল্লেখ করে বাংলাদেশ ফার্নিচার শিল্পমালিক সমিতি চট্টগ্রাম বিভাগের সভাপতি সৈয়দ এ এস এম নুরুল উদ্দিন বলেন, মেলার লক্ষ্য-উদ্দেশ্য দেশি-বিদেশি ক্রেতাদের সামনে দেশের ফার্নিচারের গুণগতমান উপস্থান করা এবং বিদেশের পণ্যের বাজার সম্প্রসারণ করা। তাই প্রত্যেক প্রতিষ্ঠান তাদের নির্দিষ্ট পণ্যের উপর বিশেষ ছাড় দিচ্ছে এবারের মেলায়। কিছু কিছু প্রতিষ্ঠান ফ্রি ডেলিভারির সুবিধাও রেখেছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মেলা কমিটির উপদেষ্টা এমএ নাছের, সৈয়দ আই এম ইফতেখার উদ্দিন, সাইফুদ্দিন চৌধুরী দুলাল, হাজি জসিম উদ্দিন, মেলা উপকমিটির সদস্যসচিব মোহাম্মদ আল ইকবাল, যুগ্ম-আহবায়ক এম এন আজম খান, সদস্যসচিব আল ইকবাল, মাহিনুল হক টুটুল, মো. রাশেদুল ইসলাম. মো. মহিউদ্দিন, সদস্য মো. ইলিয়াছ, নাঈম উদ্দিন নোমান, মোহাম্মদ ইয়াছিন প্রমুখ।

The Post Viewed By: 71 People

সম্পর্কিত পোস্ট