চট্টগ্রাম রবিবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২০

১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ৪:৪২ পূর্বাহ্ন

মোহাম্মদ আলী

চট্টগ্রাম-৮ আসনে উপ-নির্বাচনে মনোনয়ন

বাদলের আসনে মোছলেম উদ্দিন আজ সুফিয়ানের ভাগ্য নির্ধারণ

চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপ-নির্বাচনে শেষ পর্যন্ত কি মোছলেম-সুফিয়ান লড়াই হবে? এ প্রশ্ন এখন রাজনৈতিক বোদ্ধাদের। নির্বাচনে মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ চূড়ান্ত হওয়ার পর এ প্রশ্ন আরো জোরালো হচ্ছে। তবে সব প্রশ্নের উত্তর আজ মঙ্গলবার মিলে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি। বিএনপি আজ তাদের প্রার্থী চূড়ান্ত করবে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে। গুলশানের দলীয় কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র সংগ্রহকারীদের সাক্ষাৎকার নিবেন মনোনয়ন বোর্ডের সদস্যরা। সেখানে সাক্ষাৎকার দিবেন দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ানসহ অন্যরা। মনোনয়ন বোর্ডে প্রার্থিতা নিয়ে সুফিয়ানের ভাগ্য নির্ধারণ হবে।

অনেক জল্পনা-কল্পনার পর চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী, চান্দগাঁও, পাঁচলাইশ, বায়েজিদ আংশিক) সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচনে মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে চূড়ান্ত হয়েছেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগের পার্লামেন্টারি বোর্ডের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতারা।

এদিকে নৌকা প্রতীক পাওয়ার কথা স্বীকার করে মোছলেম উদ্দিন আহমদ বলেন, তিনি চট্টগ্রাম-৮ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে চূড়ান্ত মনোনয়ন পেয়েছেন।
বোয়ালখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ মোহাম্মদ মোকারম চেয়ারম্যান দৈনিক পূর্বকোণকে বলেন, মোছলেম উদ্দিন আহমদকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত করায় সভানেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।’

উল্লেখ্য, ১৯৯৬ ও ২০০১ সালের নির্বাচনে পটিয়া সংসদীয় আসন থেকে মোছলেম উদ্দিন আহমদ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। দুইবারই বিএনপি প্রার্থীর কাছে তিনি পরাজিত হন।
এদিকে একই আসনে বিএনপি প্রার্থী চূড়ান্ত হতে পারে আজ। প্রার্থী হতে গতকাল সোমবার পর্যন্ত দলের কেন্দ্রীয় অফিস থেকে দুই বিএনপি নেতা মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। এরা হলেন ২০১৮ সালে ধানের শীষ প্রতীকে এ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী বিএনপি প্রার্থী আবু সুফিয়ান ও দক্ষিণ জেলা বিএনপির সদস্য সচিব মোস্তাক আহমেদ খান। মঙ্গলবার দলীয় অফিসে তাদের সাক্ষাৎকার হবে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।
বিএনপি থেকে অপর মনোনয়ন প্রত্যাশী এরশাদ উল্লাহ’র মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তাঁর ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। পারিবারিক কাজে তিনি আমেরিকান সফরে গেছেন বলে তাঁর ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানিয়েছেন।

জানতে চাইলে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী আবু সুফিয়ান দৈনিক পূর্বকোণকে বলেন, ‘দলীয় কার্যালয় থেকে আমি ও দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক মোস্তাক আহমেদ খান মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছি। আজ মঙ্গলবার বিকেলে গুলশানে দলীয় অফিসে প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠিত হবে। এরপর বিএনপি প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে।’
প্রসঙ্গত, গত ৭ নভেম্বর সংসদ সদস্য মঈন উদ্দিন খান বাদলের মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়। আগামী ১৩ জানুয়ারি এ আসনে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
সাংসদ বাদলের মৃত্যুর পর উপ-নির্বাচনে প্রার্থিতার দৌঁড়ে ছিলেন তাঁর স্ত্রী সেলিনা খান বাদল। তিনি ইতোমধ্যে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এছাড়া আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম, নগর আওয়ামী

লীগের যুগ্ম সম্পাদক রেজাউল করিম চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ ও এস এম কফিল উদ্দিন।

অপরদিকে জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়নপত্রও সংগ্রহ করেন পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন গত ৫ নভেম্বর দল থেকে পদত্যাগকারী বিএনপির সাবেক নেতা মোরশেদ খান। তিনি এ আসন থেকে চারবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

The Post Viewed By: 161 People

সম্পর্কিত পোস্ট