চট্টগ্রাম বুধবার, ২২ জানুয়ারি, ২০২০

সর্বশেষ:

৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ৫:১৭ পূর্বাহ্ন

নাগরিক উদ্যোগের সভায় সুজন

নগরবাসীকে ধুলাবালির হাত থেকে রক্ষা করুন

নগরবাসীকে ধুলা বালির হাত রক্ষা করার জন্য বিভিন্ন সেবা সংস্থার প্রতি আহবান জানিয়েছেন জনদুর্ভোগ লাঘবে জনতার ঐক্য চাই শীর্ষক নাগরিক উদ্যোগের প্রধান উপদেষ্টা ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন। তিনি গতকাল ৬ ডিসেম্বর শুক্রবার বিকাল ৫টায় প্রেসক্লাবস্থ সংস্থার কার্যালয়ে নাগরিক উদ্যোগের কর্মপন্থা নির্ধারণী সভায় উপরোক্ত মন্তব্য করেন।

এ সময় জনাব সুজন বলেন, প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামের উন্নয়নের দায়িত্ব নিজ কাঁধে নেওয়ার পর থেকেই চট্টগ্রামে উন্নয়নের সুবাতাস বইতে শুরু করেছে। এতে করে ধারাবাহিকভাবে বিভিন্ন মেগা প্রকল্প থেকে শুরু করে ছোট বড় উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। স্বাভাবিকভাবে উন্নয়ন প্রকল্পসমূহ বাস্তবায়ন করতে গিয়ে জনগণ ভোগান্তিতে পড়ছে। বর্তমানে শুস্ক মৌসুমে সে ভোগান্তি আরো প্রকট আকার ধারণ করেছে। জনগণের দুর্দশা লাঘবে তাই সেবা সংস্থাসমূহকে উন্নয়ন প্রকল্প চলাকালীন সময় নিয়মিত পানি ছিটানোর জন্য আহবান জানান তিনি। বিশেষ করে বহদ্দারহাট আরাকান সড়ক, নিমতলা বিশ্বরোড, আগ্রাবাদ এক্সেস রোড, টাইগারপাস আমবাগান সড়কসহ বিভিন্ন সড়কে উন্নয়ন কর্মকা- শেষ না হওয়া পর্যন্ত দুই বেলা পানি ছিটিয়ে নগরবাসীর দুর্ভোগ লাঘব করার জন্য চসিক মেয়রের প্রতি অনুরোধ জানান জনাব সুজন। এছাড়া নগরীর যে সকল মসজিদ, মন্দির, স্কুল, মাদ্রাসা, কলেজসহ বিভিন্ন ধর্মীয় ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নানাবিধ কারণে বিদ্যুৎ, ওয়াসা এবং গ্যাসের বিল বকেয়া থাকলে সেগুলোর সারচার্জ মওকুফ করে বকেয়া বিল পরিশোধের সুযোগ দানের জন্য সেবা সংস্থাসমূহের নিকট আহবান জানান তিনি। দেখা যাচ্ছে যে ডিসেম্বর মাস আসলেই বিদ্যুৎ, ওয়াসা, গ্যাসসহ বিভিন্ন সেবাসংস্থা তথাকথিত গড়বিলের নামে গ্রাহকদের অহেতুক হয়রানি করে। এসব হয়রানিও দূর করার জন্য সেবা সংস্থাসমূহের নিকট দাবি জানান তিনি। তাছাড়া বকেয়া বিলের জন্য কোন প্রকার ধর্মীয় কিংবা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংযোগ যেন বিচ্ছিন্ন করা না হয় সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখারও আহবান জানান জনাব সুজন। তিনি সেবা সংস্থাগুলোকে নিয়মিত তাদের সঞ্চালন লাইনসমূহ পরীক্ষা নিরীক্ষা করার জন্যও অনুরোধ জানান। বিশেষ করে বিদ্যুৎ এবং গ্যাসের অব্যবস্থাপনার জন্য যাতে কোন ধরণের প্রাণহানি না ঘটে সেদিকেও লক্ষ্য রাখার আহবান জানান। তিনি নগরবাসীকে চলমান শুষ্ক মৌসুমে অত্যধিক সতর্ক থাকার আহবান জানিয়ে বলেন, সাধারণত শুষ্ক মৌসুমে আগুনের লেলিহান শিখা জান ও মালের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করে। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে নগরবাসীকে নিয়মিত বাসা বাড়ির বৈদ্যুতিক সংযোগ এবং সার্কিট অভিজ্ঞ টেকনিশিয়ান দ্বারা নিয়মিত পরীক্ষা করার আহ্বান জানান। রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে গ্যাসের চুলা বন্ধ আছে কি-না তা যাচাই করে দেখার অনুরোধ জানান। রান্না ঘরে পর্যাপ্ত আলো বাতাস চলাচলের ব্যবস্থা এবং সকালে রান্না করার আগে ঘরের দরজা জানালা খুলে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে তারপর রান্নাঘরে যাওয়ার আহ্বান জানান। তাছাড়া নগরবাসীকে অগ্নিকা- কিংবা যে কোন দূর্যোগে তাড়াহুড়ো না করে ধৈর্য্যরে সাথে পরিস্থিতি মোকাবেলা করার অনুরোধ জানান তিনি। যে কোন প্রয়োজনে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এর সহায়তা নেওয়ারও আহবান জানান জনাব সুজন।
নাগরিক উদ্যোগের সদস্য নিজাম উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন হাজী মো. ইলিয়াছ, আব্দুর রহমান মিয়া, সাইদুর রহমান চৌধুরী, সংগঠনের সদস্য সচিব হাজী মো. হোসেন, মোরশেদ আলম, মো. শাহজাহান, ছালেহ আহমদ জঙ্গী, অধ্যক্ষ কামরুল হোসেন, হাফেজ মো. ওকার উদ্দিন, শেখ মামুনুর রশীদ, সমীর মহাজন লিটন, সোলেমান সুমন, সাইফুল্লাহ আনছারী, জাহাঙ্গীর আলম, স্বরূপ দত্ত রাজু, রাজীব হাসান রাজন, রকিবুল আলম সাজ্জী, এম ইমরান আহমেদ ইমু, মো. ওয়াসিম, মাহফুজ চৌধুরী, মনিরুল হক মুন্না প্রমুখ।-বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 37 People

সম্পর্কিত পোস্ট