চট্টগ্রাম বুধবার, ২২ জানুয়ারি, ২০২০

সর্বশেষ:

৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ৫:০৪ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা, কক্সবাজার

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ

উখিয়ায় হামলার পর মামলা দেয়ায় পরিবার ঘরছাড়া

চাঁদা না দেয়ায় হামলায় বসতবাড়ি ভাঙচুর-লুটপাটের পর উল্টো মামলা দিয়ে পুরো পরিবারকে ঘরছাড়া করার অভিযোগ উঠেছে চিহ্নিত এক মাদক কারবারির বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, এ ঘটনায় নারী ও শিশুসহ ৭ জন আহত হবার পর মামলা করতে গেলে মামলা নেয়নি পুলিশ। উল্টো মাদক কারবারিদের পক্ষ নিয়ে ভুক্তভোগী পরিবারের বিরুদ্ধে মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। এরপর থেকে পরিবারের সবাই পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

কক্সবাজার শহরের হোটেল সৈকতস্থ রিপোর্টার ইউনিটির কার্যালয়ে বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই দাবি করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার। গত ১ ডিসেম্বর কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলাধীন হলদিয়া পালং ইউনিয়নের দক্ষিণ ক্লাস পাড়া এলাকার এ ঘটনা ঘটে বলে জানানো হয়। লিখিত বক্তব্যে ভুক্তভোগী পরিবার দাবি করেন, ঘর নির্মাণের জন্য বালি আনার কাজে সন্ত্রাসী আশিক চাঁদার টাকার দাবিতে বাধা সৃষ্টি করে। চাঁদা না পেয়ে পরিকল্পিতভাবে গত (১ ডিসেম্বর) বিকেলে আছাব উদ্দিন আশিকের নেতৃত্বে তার সহযোগী সন্ত্রাসী জাফর আলম (৫২), রফিক উদ্দিন (৪৫) ও একই এলাকার বাদশা মিয়ার পুত্র খোরশেদ আলমসহ ১০/১২ জনের একদল সন্ত্রাসী অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত অবস্থায় আমাদের বসতগৃহে হামলা চালিয়ে বিক্ষিপ্তভাবে ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় সন্ত্রাসীদের হামলায় কলেজপড়–য়া আসহাব উদ্দিন প্রকাশ আশু (২৪), গর্ভবতী নয়নমনিসহ নুরুল হক, শাহ জালাল, ছৈয়দ নুর, হামিদা আক্তার, গোলবাহার বেগম, লাভলী আক্তারসহ শিশুপুত্র সাফাত উদ্দিনও গুরুতর আহত হয়।

হামলাকারীরা সন্ত্রাসী ও মাদক কারবারের সঙ্গে সরাসরি জড়িত দাবি করে আছাব উদ্দিন আশিকের বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মাদক মামলা (যার নং- ১৪/৩৫৮) আছে বলে জানানো হয়। সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন নয়নমনি, লাভলী আক্তার, মরিয়ম, মো. মানিক, নুরুল হক ও হামিদা আক্তার।

The Post Viewed By: 34 People

সম্পর্কিত পোস্ট