চট্টগ্রাম সোমবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২০

৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ৪:৪৩ পূর্বাহ্ন

বিভিন্ন সংগঠনের অনুষ্ঠানে বক্তারা

প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের দক্ষতা উন্নয়ন চিকিৎসা, আইনী সহায়তার দাবি

‘অভিগম্য আগামীর পথে’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে গতকাল ৫ ডিসেম্বর বিভাগীয় ও জেলা সমাজসেবা কার্যালয়, চট্ট্রগ্রামের আয়োজনে এবং স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাসমূহের সহায়তায় ২৮তম আন্তর্জাতিক ও ২১তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস উদযাপন করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল বর্ণাঢ্য র‌্যালি, আলোচনা সভা, ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পেইন, মোবাইল ক্লিনিক সেবা, বিশেষ সম্মাননা প্রদান, প্রতিবন্ধীদের মাঝে সহায়ক উপকরণ বিতরণ, প্রতিবন্ধী শিশুদের অংশগ্রহণে চিত্রাংকন

প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সকাল ১০টায় নগরীর প্রবর্তক মোড় হতে র‌্যালি শুরু হয়ে শিশু একাডেমি প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়। জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ শহীদুল ইসলামের সভাপতিত্বে র‌্যালি ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) আবু হাসান সিদ্দিক। আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বিভাগীয় সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ শাহীনেওয়াজ, জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ ওয়াহীদুল আলম, বাংলাদেশ জাতীয় সমাজকল্যাণ পরিষদের সদস্য সৈয়দ মোহাম্মদ মোরশেদ হোসেন, প্রয়াস অটিজম স্কুলের অধ্যক্ষ লে. কর্নেল ইমরান আজাদ, শিশু বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. বাসনা মুহুরী, মমতার প্রধান নির্বাহী আলহাজ রফিক আহমদ, চট্টগ্রাম বিভাগীয় সমাজকল্যাণ ফেডারেশনের মহাসচিব হাফেজ আমান উল্লাহ,শহর সমাজসেবা প্রকল্প সমন্বয় পরিষদ-২ এর সভাপতি মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম এবং প্রতিবন্ধী সমাজের প্রতিনিধি শহীদুল ইসলাম সাজ্জাদ ও মোশাররফ হোসেন প্রমুখ। সভাশেষে সফল প্রতিবন্ধী ব্যক্তি ও সংস্থা ক্যাটাগরিতে বিশেষ সম্মাননা ও চিত্রাংকনে পুরস্কার তুলে দেয়া হয়।

ব্রাইট বাংলাদেশ ফোরাম: প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের দক্ষতা উন্নয়ন, চিকিৎসা, আইনী সহায়তা ও সেবা এবং সার্বিক ক্ষেত্রে উন্নয়নের জন্য তাদের পরিবারের সদস্য, উন্নয়ন সংগঠনসমূহ এবং সংশ্লিষ্ট সেবাপ্রদানকারী সরকারি- বেসরকারি দফতর ও প্রতিষ্ঠানসমূহকে এগিয়ে আসতে হবে। আর প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য যেকোন উন্নয়নমূলক উদ্যোগসমূহে সকলেই যদি এগিয়ে আসে তবে তাদের সমাজের মূলধারায় এগিয়ে আনা সহজ হবে। সমাজে বিত্তবান, বিভিন্ন পর্যায়ের নীতিনির্ধারক বা দায়িত্বশীলরা স্ব স্ব দায়িত্ব পালন করলে সমাজে প্রতিবন্ধী মানুষগুলোর জন্য ইতিবাচক পরিবেশ সুষ্টি হবে।” – আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে উন্নয়ন সংগঠন ব্রাইট বাংলাদেশ ফোরাম (বিবিএফ) এর এক মতবিনিময় সভায় সরকারি দফতর ও বেসরকারি সংস্থা প্রতিনিধি, প্রতিবন্ধী সংগঠক, প্রতিবন্ধী ব্যক্তি, অভিভাবক ও বিভিন্ন স্টেকহোল্ডার সহ উপস্থিত ব্যক্তিগণ উপরোক্ত মন্তব্য করেন। গতকাল বৃহস্পতিবার জেলা শিশু একাডেমির রিহার্সেল চত্বরে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা সমাজসেবা অধিদফতরের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম। মতবিনিময় সভা পরিচালনা করেন ব্রাইট বাংলাদেশ ফোরাম এর প্রোগ্রাম ম্যানেজার সোহাইল উদ দোজা। সভায় আরো বক্তব্য রাখেন উন্নয়ন সংগঠক সালাউদ্দিন কবির সুমন, এলায়েন্স অব আরবান ডিপিওস ইন চিটাগাং এর জাহানারা হেনা ও সাফিয়া বেগম, ব্রাইট বাংলাদেশ ফোরাম পরিচালিত প্রতিবন্ধী উন্নয়ন সংগঠন ‘সমলোক’ এর সাধারণ সম্পাদক ফজলুল আমিন, ব্রাইট বাংলাদেশ ফোরাম এর চন্দন কুমার বড়–য়া, প্রশিক্ষক ফরিদা আকতার, প্রশিক্ষণার্থী রোজি আকতার, প্রতিবন্ধী শিশুর অভিভাবক মেহেরুন নিছা ও বিশেষ শিশু জাসিয়া নাওয়াল ওহী।

সভায় ২৮তম আন্তর্জাতিক ও ২১ তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবসের প্রতিপাদ্য ‘অভিগম্য আগামীর পথে’র উপর আলোচনা, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য সরকারি ভাতা, শিক্ষা উপবৃত্তি, সুবর্ণ নাগরিক কার্ড প্রাপ্তি ও প্রতিবন্ধী শনাক্তকরণের প্রক্রিয়া সম্পর্কে ধারনা প্রদান, অটিজম/বিশেষ শিশুদের লালনে অভিভাবকদের করণীয়, রোটারী ও লায়ন্স ক্লাবসমূহের সহায়তার ধরন এবং সর্বোপরি বিবিএফ প্রদত্ত প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য সহায়তাসহ দক্ষতা, ক্ষুদ্র ব্যবসা ব্যবস্থাপনা ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ এর উপর তথ্য প্রদান করা হয়। মতবিনিময় সভার শেষ পর্যায়ে সমাজসেবা অধিদফতর আয়োজিত চিত্রাংকনে কৃতিত্বপ্রাপ্ত বিশেষ শিশু ইমা, ওহী ও সাদিয়াকে সভার মাধ্যমে অভিনন্দন জ্ঞাপন করা হয়।
এছাড়া সকালে সমাজসেবা অধিদফতর আয়োজিত জেলা পর্যায়ের র‌্যালি, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভায় ব্রাইট বাংলাদেশ ফোরাম অংশগ্রহণ করে।

ইপসা: প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা এখন আর দেশের বোঝা নয়। বিভিন্ন প্রশিক্ষণ, যন্ত্র কৌশল গ্রহণ করে এখন আধুনিক জীবনযাপন করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিবন্ধী ব্যক্তি বান্ধব হওয়ায় এখন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা একই ছাতার নিচে রয়েছে ।
গতকাল বৃহস্পতিবার উপজেলার হল রুমে ইপসা আয়োজিত ২৮তম আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস ও ২১ তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় মিরসরাই উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রুহুল আমিন প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত মন্তব্য করেন।
দিনটি উপলক্ষে ইপসা বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে। কর্মসূচির মধ্যে ছিলো, র‌্যালি, আলোচনাসভা ও প্রতিবন্ধীদের মাঝে সহায়ক উপকরণ বিতরণ করা হয়।
ইপসা ইনক্লুসন ওয়ার্কস প্রকল্পের সমন্বয়কারী মো. শওকত আলীর পরিচালনায় বিশেষ অতিথির হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মিরসরাই উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা রওশন আরা, ইপসা প্রোগ্রাম ম্যানেজার নেওয়াজ মাহমুদ।

আরো উপস্থিত ছিলেন মিরসরাই ওয়াহেদপুর প্রতিবন্ধী উন্নয়ন সংগঠনের সভাপতি মো. আকবর হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মো. ইশতিয়াক আহমেদ সুমন, মিরসরাই মায়ানী প্রতিবন্ধী উন্নয়ন সংগঠনের সভানেত্রী নাজমা আক্তার, লায়লা আনজুমান। এছাড়া মিরসরাই মাইক্রোফাইনেন্স এরিয়া ম্যানেজার মশিউর রহমান, ব্রাঞ্চ ম্যানেজার সুকুমার, সৈকত পাল,হাকিম মোল্লাসহ ইপসার ইনক্লুসন ওয়ার্কাস প্রকল্পের দায়িত্বরত কর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে মিরসরাই উপজেলার তিনটি প্রতিবন্ধী সংগঠনের সদস্যসহ প্রায় শতাধিক প্রতিবন্ধী নারী -পুরুষ ও শিশুসহ দুই শতাধিক স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।-বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 52 People

সম্পর্কিত পোস্ট