চট্টগ্রাম শনিবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২০

৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ৫:২৮ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা হ চকরিয়া-পেকুয়া

চকরিয়ায় সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে গণডাকাতি, আহত ৪

চকরিয়ায় কাকারা-মাঝেরফাঁড়ি-সুরাজপুর সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে গণডাকাতি হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নের সুরাজপর ছিরা মুরা এলাকায় ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সিএনজি চালকসহ ৫ জন আহত হয়েছেন। এসময় ডাকাতদল বন্দুকের ভয় দেখিয়ে সিএনজির যাত্রী ও পথচারীদের নগদ টাকা, মোবাইল সেট লুটে নেয়। আহতরা হলেন, সিএনজি চালক ওসমান গণি, তৌহিদ, নুরুল আবছার ও যাত্রী সালাহউদ্দিন। আহতরা চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন। আহত সিএনজি চালক ওসমান গণি বলেন, মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে যাত্রী নিয়ে সুরাজপুর যাচ্ছিলাম। সুরাজপুর ছিরা মুরা এলাকায় সড়কে স্কুলের বেঞ্চ ফেলে ব্যারিকেড দেয় ডাকাত দল। এসময় আমাকে মারধর করে গাড়ির চাবি নিয়ে ফেলে। আমার পর আরো ২টি সিএনজি, একটি টমটম ও ম্যাজিক গাড়ি এবং পথচারী ঘটনাস্থলে পৌঁছলে সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে সড়কের পাশর্^বর্তী একটি পরিত্যক্ত ঘরে রশি দিয়ে বেঁধে আটকে রাখে। ডাকাত দল সবার পকেটে থাকা আনুমানিক ৫০ হাজার নগদ টাকা ও ১৫টি মোবাইল সেট লুটে নেয়। এসময় প্রতিবাদ করলে আমাকে ছুরিকাঘাত করা হয়। পরে আরো তিনজনকে ছুরি মেরে আহত করে ডাকাত দল। তিনি আরো বলেন, ডাকাত দলের সদস্য ১৬/১৭ জন হতে পারে। তাদের হাতে দেশীয় তৈরি ৬টি বন্দুক দেখা যায়। এছাড়া দেশীয় তৈরি ধারালো দা, ছুরি ও হাতুড়ি ছিল ডাকাত দলের হাতে। প্রায় ২ ঘণ্টা পরে স্থানীয় মসজিদের মাইকে ডাকাতির বিষয়টি প্রচার হলে ডাকাত দল পাহাড়ের দিকে পালিয়ে

যায়। স্থানীয় লোকজন এসে আমাদের উদ্ধার করে।

সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিমুল হক বলেন, ডাকাতির ঘটনাটি রাতেই স্থানীয় লোকজন আমাকে অবহিত করেছেন।
চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হাবিবুর রহমান বলেন, ঘটনাটি আমি শুনেছি। ঘটনা জানার পরপরই পুলিশ পাঠানো হয়। এব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

The Post Viewed By: 38 People

সম্পর্কিত পোস্ট