চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০২০

৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ৪:০৩ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা, কর্ণফুলী

মামলা তুলে নেয়ার হুমকি

জামিনে এসে ফের কলেজ- ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত

অভিযোগ গ্রাম পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে

উপজেলার বড়উঠান ইউনিয়নে পরিষদের গ্রাম পুলিশ সদস্য মো. মনিরের (২২) বিরুদ্ধে জেল থেকে জামিনে বেরিয়ে ফের কলেজছাত্রীকে উত্যক্ত ও মামলা তুলে নেয়ার হুমকি দেয়ার অভিযোগ ওঠেছে।

জীবনের নিরাপত্তার শঙ্কা প্রকাশ করে মনিরের বিরুদ্ধে ওই কলেজছাত্রী কর্ণফুলী থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। পরিবারের পক্ষ থেকেও প্রতিকার চেয়ে ওই কলেজরছাত্রীর চাচা বাদি হয়ে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। কিন্তু প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কোন কার্যকর ব্যবস্থা না নেয়ায় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে ওই ছাত্রী ও তার পরিবারের সদস্যরা। গ্রাম পুলিশ সদস্য মো. মনির উপজেলার বড়উঠান ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড, কালা ফকিরের বাড়ির আবদুছ ছবুরের পুত্র। ওই কলেজছাত্রীকে উত্যক্ত ও মারধরের মামলায় গত ২৭ অক্টোবর কর্ণফুলী থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

থানা এবং কলেজছাত্রীর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, আনোয়ারা কলেজের ২য় বর্ষে পড়ুয়া ওই কলেজছাত্রীকে মো. মনির প্রায় উত্যক্ত করতেন। বিষয়টি ওই কলেজছাত্রী মনিরের বোনকে জানান। এ কারণে ক্ষিপ্ত হয়ে মনির মারধর করলে গুরুতর আহত ওই কলেজছাত্রীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনার পরদিন ওই কলেজছাত্রীর চাচা বাদি হয়ে থানায় মামলা করলে মনিরকে গ্রেপ্তার করে কর্ণফুলী থানা পুলিশ। এর সপ্তাহখানেক পর জেল থেকে জামিনে বেরিয়ে আসে মনির। জামিনে এসে মনির আবারও উত্যক্ত করলে এবং মামলা তুলে নেয়ার হুমকি দিলে ওই কলেজছাত্রী বাদি হয়ে ১৩ নভেম্বর কর্ণফুলী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। পরিবারের পক্ষ থেকেও প্রতিকার চেয়ে ওই কলেজরছাত্রীর চাচা বাদি হয়ে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
ওই কলেজছাত্রীর চাচা শফিকুল আলম জানান, মনির জেল থেকে আসার পর থেকে আমার ভাতিজি কলেজে আসা যাওয়ার পথে পথ আটকে উত্যক্ত করছে ও মামলা তুলে নেয়ার হুমকি দিচ্ছে। সে আমার ভাতিজির জীবন দুর্বিষহ করে তুলেছে।

এ ব্যাপারে কর্ণফুলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন পূর্বকোণকে বলেন, কলেজছাত্রীকে উত্যক্ত ও মারধর করার ঘটনায় মামলার চার্জশিট শীঘ্রই দিয়ে দেয়া হবে। সাধারণ ডায়েরির বিষয়েও আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

The Post Viewed By: 99 People

সম্পর্কিত পোস্ট