চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০১৯

৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ২:৩৬ অপরাহ্ন

চন্দনাইশ সংবাদদাতা

নদীতে লাফ দিয়ে নিখোঁজ সাবেরের লাশ উদ্ধার

চন্দনাইশ উপজেলার পূর্ব দোহাজারী এলাকার মৃত নজির আহমদের ছেলে সাবের আহমদ (৫৫) পুলিশ দেখে শঙ্খনদীতে লাফ দেয়ার ২৮ ঘন্টা পর ভেসে উঠেছে লাশ। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সাবেরের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছেন বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

জানা যায়, গত ১ ডিসেম্বর রাত ৮টার দিকে দোহাজারী তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশদল দোহাজারী পৌরসভার বার্মা কলোনীতে আসামী গ্রেপ্তারের অভিযান চালায়। এসময় পুলিশ দেখে সাবের আহমদ পালানোর চেষ্টাকালে পার্শ্ববতী শঙ্খনদীতে লাফ দেয়। স্থানীয় জনগণ গত রাত ৮টা থেকে তার সন্ধান করে এবং পরবর্তীতে গতকাল ২ ডিসেম্বর দুপুর থেকে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের একটি দল শঙ্খনদীতে দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত তল্লাশী চালিয়ে তাকে খুঁজে পায়নি। এসময় উৎসুক জনতা শঙ্খনদীর দু’পাড়ে ভিড় জমায়। তার পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, সাবের আহমদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা রয়েছে।

এদিকে ডুবুরী দল গত ২ নভেম্বর সন্ধ্যায় তাদের অভিযান শেষ করে চলে গেলেও তার পরিবারের সদস্যরা শঙ্খনদীর পাড়ে রাতে অবস্থান নেয়। রাত আড়াইটার দিকে শঙ্খনদীতে তার লাশ ভেসে উঠলে পুলিশ গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে। 

দোহাজারী তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মনিরুল ইসলাম ভুইয়া শঙ্খনদীতে নিখোঁজ সাবের আহমদ প্রকাশ গাঁজা সাবের (৫৫) নামে ওই ব্যক্তির লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। দোহাজারী বার্মা কলোনী একটি অপরাধ প্রবণ এলাকা। পুলিশের নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে গত ১ ডিসেম্বর দোহাজারী বার্মা কলোনীতে পুলিশদল অভিযান চালায়। অভিযানকালে কাউকে নদীতে ঝাঁপ দিতে তারা দেখেননি। গত ২ ডিসেম্বর সকালে খবর আসে শঙ্খব্রীজ থেকে এক ব্যক্তি আত্মহত্যার চেষ্টা করছে। এসময় ফায়ার সার্ভিসকে সহায়তা করতে পুলিশদল ঘটনাস্থলে যাওয়ার পর স্থানীয় জনগণ থেকে সাবের আহমদের বিষয়টি সম্পর্কে অবগত হন।

পূর্বকোণ/পিআর

The Post Viewed By: 70 People

সম্পর্কিত পোস্ট