চট্টগ্রাম সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

২২ নভেম্বর, ২০১৯ | ৩:১৭ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

চড়ের প্রতিশোধ নিতে মেরেই ফেলল বন্ধুকে, গ্রেপ্তার ১

চারদিন আগে বন্ধুর হাতে চড় খেয়েছিলেন সাদ্দাম। সেই চড়ের প্রতিশোধ নিতে সুযোগের অপেক্ষায় ছিলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সুযোগ পেয়েই কাজে লাগান। ছুরিকাঘাতে হত্যা করেন বন্ধু ইরফান আহমদকে। গতকাল বিকেল ৩টার দিকে হালিশহর থানার পড়পুল এলাকায় পিডিবি অফিস সংলগ্ন আড়ং ভবনের সামনে এই ঘটনা ঘটে। নিহত ইরফান (১৮) হালিশহর থানাধীন মইন্যাপাড়া এলাকার ইদ্রিস সওদাগরের পুত্র। তিনি কাট্টলীর মোস্তফা হাকিম ডিগ্রি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিলেন। এই ঘটনায় খুনের অভিযোগে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় সাদ্দামকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল ছিলো ইরফানের জন্মদিন। জন্মদিনেই খুন হয়ে গেল সে।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ(চমেক) হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক আব্দুল হামিদ জানান, বিকেল ৪টার দিকে রক্তাক্ত অবস্থায় ইরফান আহমেদ নামে একজনকে হাসপাতালে আনার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত ইরফানের শরীরের বিভিন্নস্থানে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন আছে। সংশ্লিষ্টরা জানান, চারদিন আগে রাস্তায় দেখা হলে ইরফানকে কর্কশভাবে ডাক দেন সাদ্দাম। এ কারণে সেদিন সন্ধ্যায় সাদ্দামকে থাপ্পড় মেরেছিল ইরফান। এতে সাদ্দাম প্রচ-ভাবে ক্ষেপে যান। পরদিন একটি ছুরি কিনে নিয়ে তিনি ঘুরছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে হালিশহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম ওবায়দুর রহমান বলেন, ইরফান ও সাদ্দাম দুই বন্ধু। সম্ভবত তাদের মধ্যে আগে থেকেই কোনো বিষয় নিয়ে ঝগড়া ছিল। গতকাল সাদ্দাম তাকে আঘাত করার পরিকল্পনা নিয়ে একটি ছুরি কেনে। আড়ংয়ের সামনে ইরফানকে দেখার পর সাদ্দাম ডাক দেয়। সাদ্দাম ও ইরফানের মধ্যে প্রথমে কিছুক্ষণ কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সাদ্দাম ইরফানকে ছুরিকাঘাত করেন।

The Post Viewed By: 86 People

সম্পর্কিত পোস্ট