চট্টগ্রাম সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

২১ নভেম্বর, ২০১৯ | ২:২৮ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

শখের বশে মুরগি পালন এখন জীবিকা

ওয়ার্ড ৪, চান্দগাঁও

নানা রকম দেশি-বিদেশি মুরগি। দল বেধে এদিক-ওদিক ঘুরছে, একে অন্যের সাথে ঝগড়া করছে ও খাবার খাচ্ছে। আবার পাশেই কয়েকটা মুরগি। একটি মুরগির সাথে প্রায় ১২ থেকে ১৫টি করে বাচ্চা রয়েছে। তাদের মধ্যে কেউ খাবার খাচ্ছে। কেউবা মায়ের সাথে খেলা করছে। খোলা মাঠের চারপাশে ছোট বড় মিলে প্রায় ৪শ’ থেকে সাড়ে ৪শ’ মোরগ-মুরগি দেখা যায়। বেশির ভাগই দেশি মুরগি। তার মধ্যে ২৫ থেকে ৩০টি বিদেশি মুরগিও রয়েছে। দৃশ্যটি নগরীর পুরাতন চান্দগাঁও থানার পাঠানিয়া গোদা এলাকার।

স্থানীয় বাসিন্দা মো. জামাল উদ্দীন শখের বশেই শুরু করেন মুরগি পালন। তার সেই শখ বর্তমানে একটি খামারে রূপ নিয়েছে। তবে এটি ঠিক খামার বলা যায় না। খোলামেলা পরিবেশে পালন করছেন মুরগি। সাড়ে ৪শ’ মুরগির মধ্যে ইন্ডিয়ান সরাইল, ফাইটিং সরাইল, কক, ব্যাংগাম, তিতির ও টার্কি রয়েছে। দেশি মুরগির মধ্যে সব জাতের মুরগিই আছে। মাথার উপর বড় ঝুঁটি ও পেছনে লম্বা পালকওয়ালা মোরগ, রঙবেরঙের পালকওয়ালা মুরগিসহ নানা আকারের ছোট, মাঝারি ও বড় সব মুরগি রয়েছে মো. জামাল উদ্দিনের কাছে। বছর খানেক আগে দুইটি দেশি ও একটি ইন্ডিয়ান মিলে মাত্র তিনটি মোরগ-মুরগি নিয়েই তার যাত্রা শুরু। সেই তিনটি মুরগি থেকে বর্তমানে ৪শ’ থেকে সাড়ে ৪শ’ মোরগ-মুরগির মালিক তিনি।

এ বিষয়ে জামাল উদ্দীন বলেন, এখানে মোরগ লড়াই হয়। এটি খুব আনন্দদায়ক খেলা। সেখানে প্রতিযোগিরা অনেক ফাইটার মোরগ নিয়ে আসতো।

এটা দেখতে আমার খুব ভালো লাগতো। সেখান থেকে উৎসাহ পাই। তাই প্রথমে একটি ফাইটার মোরগ কিনেছি। তারপরে শখের বসে দেশি মোরগ-মুরগি পালতে শুরু করি। একটি মোরগ ও একটি মুরগি কিনেছি। এখন প্রায় সাড়ে ৪শ’ মোরগ-মুরগি আছে। আমি আগে মাছের ব্যবসা করতাম। সেখানে বেশ কয়েকবার লোকসান দিয়েছি। ব্যবসা ছেড়ে অনেক দিন বেকার ছিলাম। পরে এখানে কয়েকটা কলোনীর কেয়ারটেকারের দায়িত্ব পাই। যা বেতন পাইতাম তা দিয়ে স্ত্রীসহ চার মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে সংসার চলে না। সংসারে অভাব লেগেই থাকতো। কিন্তু শখের বশেই শুরু করি মোরগ-মুরগি পালন। এখন আমি মুরগির ডিম, দেশি মোরগ-মুরগি বিক্রি করি। এখন আগের চেয়ে অনেকটা ভালো আছি। এক মেয়েকে বিয়ে দিয়েছি। ছেলে বড় হয়েছে। সে তেমন কিছু করে না। তবে আমার এক মেয়ে অনার্স শেষ করেছে ও আরেক মেয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী ও একজন ছোট। আমিতো গরীব মানুষ! তাই সঠিক উপায়ে খামার করে মুরগি পালন করতে পারছি না। এতে অনেক টাকা খরচ হবে। তবে আমার খুব ইচ্ছে একটি খামার করার।

The Post Viewed By: 69 People

সম্পর্কিত পোস্ট