চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০১৯

২০ নভেম্বর, ২০১৯ | ৩:২৫ অপরাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

ট্রাকে ১৫ টাকা কেজিতে লবণ বিক্রি চট্টগ্রামে

লবণের দাম বাড়ার আশঙ্কা নিয়ে সারাদেশে ‍গুজব ছড়িয়ে পড়লে দেশের শীর্ষ চারটি বসায়িক প্রতিষ্ঠান জানান, দেশে লবণের কোনো ঘাটতি নেই; বরং বাড়তি লবণ নিয়ে কোম্পানিগুলো ও চাষীরা বিপাকে আছেন। দাম বাড়ার আশঙ্কা পুরোটাই গুজব।

আজ বুধবার (২০ নভেম্বর) দুপুর ১টার দিকে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের খোলা পিকআপে সামনে লবণ মালিক ব্যবসায়ী সমিতির উদ্যোগে ১৫ টাকা কেজি দরে লবণ বিক্রি করা হয়েছে। এসময় লবণ কিনতে মানুষের ভিড় জমে যায়। অনেককে বাড়তি লবণও কিনতে দেখা গেছে।

লবণ কিনতে আসা কিছু ক্রেতা বলেন, গতকাল থেকে লবণের দাম বাড়ার সম্ভাবনার কথা শুনেছি। তাই আগেভাবে লবণ কিনতে চলে এসেছি। পেঁয়াজের মতো যদি দাম বেড়ে যায় সেজন্য লবণ কিনে রাখছি।

লবণ সরবরাহকারী শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান এসিআই সল্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ আলমগীর বলেন, ‘এটি সম্পূর্ণ গুজব। সরবরাহের কোনো সমস্যা নেই। আমরা একটি পয়সাও দাম বাড়াইনি।’

তিনি বলেন, ক্রেতাদের আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। মোল্লা সল্টের মহাব্যবস্থাপক আবদুল মান্নান বলেন, তিনি কক্সবাজারে রয়েছেন। সেখানে চাষীদের কাছেই চার লাখ টনের মত লবণ মজুদ আছে। তিনি আরও বলেন, বাজারে লবণের দাম নেই। লবণের চাহিদা কম। এ কারণে অনেক চাষী এখনো নতুন মৌসুমের লবণ চাষ শুরু করেননি। আবদুল মান্নানের কথায়, ‘আমরা দাম বাড়াইনি। সরবরাহ ঠিক আছে। মিল আগামী দুই মাস চালানোর মতো লবণ আমাদের হাতে আছে।’

কনফিডেন্স সল্টের মহাব্যবস্থাপক মো. সামসুদ্দিন বলেন, ঘাটতি তো নেই-ই, উল্টো বিক্রি কম। এর কারণ শুল্কমুক্ত বন্ডের লবণ বাজারে চলে আসছে। দেশি কৃষক ও মিলমালিকেরা বিপাকে আছেন। তিনি আরও বলেন, মিলগুলোও খুব খারাপ অবস্থায় আছে।

উল্লেখ্য, দেশে লবণের বাজার স্বাভাবিক রয়েছে, কোন ধরনের ঘাটতি নাই। বর্তমান যে পরিমাণ লবণ উদ্বৃত্ত রয়েছে তা দিয়ে আরো অন্তত দুই মাস চলবে। একশ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী লবণের সংকট দেখিয়ে দাম বৃদ্ধির অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। ইতিমধ্যে একটা কুচক্রিমহল লবণের কেজি ১৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বলে অপপ্রচার চালিয়েছে। তারা মূলত এ শিল্পকে ধ্বংস করতে চাচ্ছে। অপপ্রচারকারীদের চিহ্নিত করে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নিতে হবে।

মঙ্গলবার সকালে কক্সবাজার শহরের তারকা মানের একটি আবাসিক হোটেলের কনফারেন্স হল অনুষ্ঠিত মিল মালিক সভায় বাংলাদেশ লবণ মিল মালিক সমিতির সাধারণ সভায় সমিতির সভাপতি নুরুল কবির এসব কথা বলেন।

পূর্বকোণ/পিআর 

The Post Viewed By: 110 People

সম্পর্কিত পোস্ট