চট্টগ্রাম রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৯ নভেম্বর, ২০১৯ | ৩:০২ পূর্বাহ্ন

এনআইডি কেলেঙ্কারি আরও এক অফিস সহকারী গ্রেপ্তার

রোহিঙ্গাদের ভোটার করা ও জাতীয় পরিচয়পত্র কেলেঙ্কারির মামলায় নাজিম উদ্দিন নামে আরও এক অফিস সহায়ককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ নিয়ে নির্বাচন কমিশনের ৪ কর্মচারীসহ ১১ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার দুপুর ২টার দিকে জেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয় থেকে নাজিমকে গ্রেপ্তার করেছে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের পরিদর্শক রাজেশ বড়ুয়া জানান, ‘এনআইডি জালিয়াতি মামলায় গ্রেপ্তারকৃতদের তথ্যের ভিত্তিতে নাজিমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’

গত ১৮ আগস্ট হাটহাজারীতে লাকী নামে এক রোহিঙ্গা মহিলা স্মার্টকার্ড নিতে এলে রোহিঙ্গাদের ভোটার নিবন্ধনের জালিয়াতির ঘটনা ফাঁস হয়। ২০১৪ সালে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আসার পর টেকনাফের মুচনী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ছিলেন। ভুয়া ঠিকানা দিয়ে জাল এনআইডি করেছেন তিনি। এই ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে বেরিয়ে আসছে তলের বিড়াল।
নির্বাচন কমিশনের তদন্ত দল গত ১৬ সেপ্টেম্বর ডবলমুরিং থানা নির্বাচন কার্যালয়ের অফিস সহায়ক জয়নাল আবেদীন ও তার দুই সহযোগীসহ তিনজনকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

জয়নালের তথ্যের ভিত্তিতে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট মোস্তফা ফারুক নামের এক টেকনিকেল সাপোর্টকে গ্রেপ্তার করা হয়। জালিয়াতি চক্রের হোতা জয়নাল ও ফারুকের স্বীকারোক্তিমতে ২৩ সেপ্টেম্বর ঢাকা থেকে টেকনিক্যাল এক্সপার্ট শাহনূর মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়। শাহনূরের মাধ্যমে জালিয়াতির মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের ভোটার করা ও ভুয়া এনআইডি তৈরি করে আসছে জালিয়াতি চক্র। গ্রেপ্তারকৃতদের তথ্যের ভিত্তিতে গত ১৪ নভেম্বর জেলা নির্বাচন কার্যালয়ের উচ্চমান সহকারী আবুল খায়ের ভূঁইয়া ও অফিস সহকারী আনোয়ার হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

The Post Viewed By: 76 People

সম্পর্কিত পোস্ট