চট্টগ্রাম রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৯ নভেম্বর, ২০১৯ | ২:২১ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা ম বাঁশখালী

মালয়েশিয়ায় যুবককে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি

প্রতারকচক্রকে ধরতে থানায় মামলা স্ত্রীর

বাঁশখালীর শেখেরখীল ইউনিয়নের ৩ মানবপাচারকারীর বিরুদ্ধে নৌ-পথে মালয়েশিয়ায় লোক পাচার এবং ভিসা দেয়ার নাম করে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে মালয়েশিয়ায় অপহরণের শিকার নেজাম উদ্দিনের স্ত্রী সাবিনা আক্তার বাদি হয়ে বাঁশখালী থানায় মামলা দায়ের করেছেন। জানা যায়, বাঁশখালীর শেখেরখীল ও ছনুয়া ইউনিয়নের জামাল উদ্দিন, গোলাম নুর কবির চৌধুরী ও মনির মাঝির নেতৃত্বে একটি মানব পাচারকারী চক্র কুতুবদিয়া, মহেশখালী, বাঁশখালী থেকে মালয়েশিয়ায় ভিসা দেয়ার নাম করে নদী ও সাগরপথে বিদেশে পাচার করছেন। মানবপাচার চক্রটি সাধারণ মানুষ থেকে প্রতারণা করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। তাদের একটি গ্রুপ ঢাকায় অবস্থান করছে বলে অভিযোগ সূত্রে জানা যায়। প্রতারকচক্রের শিকার ছনুয়া ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের খুদুকখালী গ্রামের সাবিনা আক্তার নামে এক গৃহবধূ তার স্বামী নেজাম উদ্দিনকে মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত সক্রিয় দালালচক্র অপহরণপূর্বক মুক্তিপণ দাবি করছেন বলে জানান। স্থানীয় শেখেরখীল ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. শাকের উল্লাহ বলেন, শেখেরখীল ও ছনুয়ায় একটি দালালচক্র রয়েছে। মালয়েশিয়ার ভিসা দেয়ার নাম করে অর্থ আত্মসাতের বিষয়ে একাধিকবার সালিশি বৈঠক করা হয় গোলাম নূর চৌধুরী ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে। শেখেরখীল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ইয়াছিন বলেন, গোলাম নূর কবির চৌধুরীর বিরুদ্ধে আমার ইউনিয়ন পরিষদে মালয়েশিয়ায় নদীপথে একাধিক লোক নেয়ার নাম করে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে।বাঁশখালীর থানার এসআই রুবেল আফ্রাদ জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর আসামিদের বিরুদ্ধে তদন্ত করা হচ্ছে। ওই এলাকায় মানবপাচারকারী একটি সংঘবদ্ধ চক্র রয়েছে বলে জানা গেছে।

The Post Viewed By: 28 People

সম্পর্কিত পোস্ট