চট্টগ্রাম রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯

১৮ নভেম্বর, ২০১৯ | ৩:১৩ পূর্বাহ্ন

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অরবিস’র স্বাস্থ্যসেবা

স্থানীয়-রোহিঙ্গাসহ উপকৃত ১ লক্ষ ২০ হাজারেরও বেশি মানুষ

বাংলাদেশে রোহিঙ্গা আশ্রয়প্রার্থীসহ কক্সবাজারের স্থানীয় প্রায় ১ লক্ষ ২০ হাজারের বেশি শিশু ও প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের চোখ পরীক্ষা করার পাশাপাশি প্রায় ১ হাজার ৭শ’ রোগীর চোখের অপারেশন করে দৃষ্টিশক্তি ফিরিয়ে দিয়েছে অরবিস। এছাড়া প্রায় ১৫ হাজার রোগীকে প্রয়োজনীয় ওষুধ এবং প্রায় ৮ হাজার শিশু ও প্রাপ্তবয়স্ক রোগীকে চশমা প্রদান করা হয়। প্রশিক্ষণের মাধ্যমে প্রায় ৭১৭ জন স্বাস্থ্যকর্মীকে প্রাথমিক চক্ষু চিকিৎসা সম্পর্কে দক্ষতা বৃদ্ধি করা হয়েছে। চট্টগ্রাম বিভাগের কক্সবাজার উখিয়ায় বাংলাদেশে আশ্রয়প্রার্থী রোহিঙ্গা এবং স্থানীয়দের মাঝে আড়াই হাজার চশমা বিতরণকালে অরবিস কর্মকর্তারা এসব কথা বলেন। গত শনিবার সকালে এ উপলক্ষে উখিয়া ক্যাম্পে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনের অতিরিক্ত কমিশনার মো. শামসুদ্দৌজা। তিনি বলেন, ইউএনএইচসিআর শরণার্থী ও স্থানীয় জনগণ উভয়ের জন্য কাজ করছে। এ রকম আরো সহায়তা আমাদের প্রয়োজন। এটি খুবই ভালো একটি উদ্যোগ। বিশেষ করে রোহিঙ্গা শরণার্থী এবং স্থানীয় বাংলাদেশিদের দৃষ্টিশক্তি উন্নয়নে কাজ করছে ইউএনএইচসিআর, ফুজি অপটিক্যাল কোম্পানি লিমিটেড ও অরবিস ইন্টারন্যাশনাল।

জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থী এবং স্থানীয় বাংলাদেশিদের জন্য ফুজি অপটিক্যাল কোম্পানি লিমিটেডের কাছ থেকে ১৫০০টি চশমা অনুদান পেয়েছে। এই অনুদানটির সাথে ২০১৭ সালে পাওয়া ১ হাজারটি চশমা মিলে মোট ২৫০০টি চশমা হয়েছে। উখিয়ার শরণার্থী ক্যাম্পে এবং স্থানীয় বাংলাদেশিদের জন্য পরিচালিত ‘আই কেয়ার প্রোগাম’র এর অংশ হিসেবে এগুলো অরবিসের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরে বিতরণ করা হয়। তাদের কাজের মধ্যে আছে আউটরিচ প্রোগ্রাম, স্কুলে দৃষ্টিশক্তি পরীক্ষা কার্যক্রম এবং শিশুবান্ধব স্পটগুলোতে স্ক্রিনিং। যার ফলে বালুখালী-১১ তে একটি স্ক্রিনিং সেন্টার প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে এবং উখিয়া স্থাস্থ্য কমপ্লেক্সে একটি ভিশন সেন্টার প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। সিবিবিএসএইচ ইউএনএইচসিআর এর ধীর্ঘদিন ধরে অংশীদার হিসেবে কাজ করছে।

অরবিস ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ড. মুুনির আহমদ বলেন, ২০১৮ সাল থেকে ১ লক্ষ ২০ হাজেরেরও বেশি চোখের স্ক্রিনিং করা হয়েছে এবং ২৮০০ এর বেশি রোগীর ক্যাটারাক্ট সার্জারি করা হয়েছে। এছাড়া ২০ হাজেরের বেশি লোক বিনামূল্যে ওষুধ পেয়েছে এবং ৯ হাজারের বেশি চশমা বিনামূল্যে রোগীদের বিতরণ করা হয়েছে।-বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 54 People

সম্পর্কিত পোস্ট