চট্টগ্রাম সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯

১৭ নভেম্বর, ২০১৯ | ৪:৫৪ অপরাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রামে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণ

আর কারো বাড়ি রাঙাবেন না নুরুল ইসলাম

চট্টগ্রাম নগরীর পাথরঘাটা এলাকায় একটি ভবনে কাজ করার কথা ছিল রংমিস্ত্রি নুরুল ইসলামের (৩১)। সকাল সকাল কাজের উদ্দেশে বাসা থেকে বেরিয়েছিলেন তিনি। তবে ওই ভবনে তাঁর আর যাওয়া হয়নি। ওই এলাকার অন্য একটি ভবনে গ্যাস পাইপলাইনে বিস্ফোরণ ঘটে। সে সময় পাশের রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় ওই ভবনের দেয়াল ধসে তাঁর ওপর পড়ায় ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। নুরুলের লাশ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে সেখানে ছুটে আসেন তাঁর স্ত্রী সাদিয়া সুলতানা ও স্বজনেরা। তাঁদের আহাজারিতে ভারী হয়ে ওঠে হাসপাতালের পরিবেশ।

সাদিয়া সুলতানার কান্না থামছিল না। তাঁর মা মনোয়ারা বেগম ও বাবা সাইফুল ইসলামও বারবার কান্নায় ভেঙে পড়ছিলেন। মেয়েকে সান্ত্বনা দিতে গিয়ে মনোয়ারা বেগম বলেন, ‘আর ন কাঁদিস। আঁর নাতি হয়রান অই যার। (আর কাঁদিস না। আমার নাতি দুর্বল হয়ে যাচ্ছে)।’ নুরুল ইসলামের শ্বশুর সাইফুল ইসলাম জানান, কাজের জন্য বাসা থেকে বের হয়েছিলেন নুরুল। কিন্তু পথেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। এখন মেয়ে কেমন করে বাঁচবে? আড়াই বছর আগে নুরুল ইসলামের বিয়ে হয়। তাঁদের এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। নগরীর শাহ আমানত সেতু এলাকায় থাকতেন তাঁরা।

উল্লেখ্য, আজ রবিবার সকাল ৯টার দিকে পাথরঘাটার ব্রিক ফিল্ড রোডে ধনা বড়ুয়ার পাঁচতলা ভবনের নিচতলায় গ্যাস পাইপলাইনে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণের পর একটি ভবনের দেয়াল ধসে রাস্তার উপর  আরেকটি ভবনের ওপর গিয়ে পড়ে। এতে ৭ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন কমপক্ষে ২৪ জন। তবে হতাহত মানুষের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।

 

 

 

 

 

 

 

পূর্বকোণ/এম

The Post Viewed By: 311 People

সম্পর্কিত পোস্ট