চট্টগ্রাম রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৬ নভেম্বর, ২০১৯ | ২:৪২ পূর্বাহ্ন

‘ইম্পেরিয়াল হাসপাতালে’ বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবসে অধ্যাপক ডা. রবিউল

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রেখে দীর্ঘ জীবন লাভ করা যায়

পাহাড়তলীস্থ বহুমূখী বিশেষায়িত চিকিৎসাকেন্দ্র ‘ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল লিঃ’ (আইএইচএল) এ বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস উপলক্ষে ‘ফ্রি ডায়াবেটিস স্ক্রিনিং এন্ড কাউন্সিলিং’ অনুষ্ঠিত হয়। এ উপলক্ষে রোগীদের নিয়ে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। গতকাল ১৫ নভেম্বর শুক্রবার আয়োজিত অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন আইএইচএল’র চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. রবিউল হোসেন। এর আগে আইএইচএল এর মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মেজবা উদ্দিনের কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। উদ্বোধনকালে আইএইচএল’র চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের সবার কাছেই বেশ পরিচিত ডায়াবেটিস শব্দটি। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এটি মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। এমন কোনো পরিবার খুঁজে পাওয়া যাবে না, যেখানে কোনো ডায়াবেটিসের রোগী নেই। ডায়াবেটিসকে বলা হয় সাইলেন্ট কিলার। ডায়াবেটিস একবার হয়ে গেলে তা হয়ে যায় সারাজীবনের সঙ্গী। শিশু থেকে বৃদ্ধ, যে কেউ এ রোগে আক্রান্ত হতে পারে।

সিইআইটিসি’র ম্যানেজিং ট্রাস্ট্রি অধ্যাপক ডা. রবিউল হোসেন বলেন, ডায়াবেটিস ও হৃদরোগ এ দুটো পরস্পরের সঙ্গে অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত।

দুনিয়াজুড়ে কিডনি ফেইলিওর বা কিডনি বিকল হওয়ার অন্যতম কারণ হলো অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস। ডায়াবেটিস হলে হার্ট, কিডনি এবং দৃষ্টিশক্তির সমস্যা হয়। ৭০ শতাংশ ডায়াবেটিসের রোগী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েই অকালে মৃত্যুবরণ করে থাকেন। তবে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে পরিবারের ভূমিকা সবার আগে। আমাদেরকে সুস্থ সবলভাবে বাঁচতে হলে নিয়মিত ডায়াবেটিস আছে কি-না পরীক্ষা করতে হবে। ডায়াবেটিস হলে হতাশাগ্রস্থ হওয়া যাবে না, নিয়মতান্ত্রিক জীবন যাপন করতে হবে। সুষ্ঠু সুশৃঙ্খল জীবনযাপন, নিয়মিত ডায়াবেটিস পরীক্ষা এবং সুষ্ঠু চিকিৎসা পদ্ধতি গ্রহণের মাধ্যমে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রেখে দীর্ঘ জীবন লাভ করা যায়। ডায়াবেটিস রোগীদের এই রোগ নিয়ন্ত্রণে আরো সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেন। হাসপাতালের প্রধান পুষ্টিবিদ মাহফুজা আফরোজ সাথীর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে আগত রোগীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন হাসপাতালের হরমোন ও ডায়াবেটিস বিশেষজ্ঞ মো. মোস্তফা কায়সার। অনুষ্ঠান শেষে শতাধিক রোগীকে বিনামূল্যে ডায়বেটিস নির্ণয় করা হয়।-বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 49 People

সম্পর্কিত পোস্ট