চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯

১৪ নভেম্বর, ২০১৯ | ২:২২ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

শ্রেষ্ঠ পাঁচ জয়িতার মুখে বিজয়ের হাসি

নারীদের উন্নয়ন ছাড়া দেশের কাক্সিক্ষত উন্নয়ন সম্ভব নয় উল্লেখ করে মহিলা শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা এমপি বলেছেন, বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার অর্ধেক নারী। তারা দেশের উন্নয়নে যথেষ্ট ভূমিকা রাখছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নারীদের উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। সরকারের এ ধারা অব্যাহত থাকলে নারীদের কেউ দমিয়ে রাখতে পারবে না। প্রতিটি কর্মক্ষেত্রে প্রত্যেক নারী হবে একজন জয়িতা। গতকাল বুধবার দুপুরে নগরীর ষোলশহরস্থ এলজিইডি কনফারেন্স হলে বিভাগীয় পর্যায়ে জয়িতাদের সংবর্ধনা ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব কামরুন নাহার, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বদরুন নেছা ও নগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা মহিউদ্দিন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, আবহমানকাল থেকে নারীরা বিভিন্ন কারণে নির্যাতিত, নিপীড়িত ও লাঞ্চিত। তারা পারিবারিক, সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছে। নারীরা এখন আর সমাজের বোঝা নয়। দেশের বিভিন্ন স্তরে নারীরা আজ নিজ নিজ মেধা ও কর্মদক্ষতায় যোগ্যতার স্বাক্ষর রাখছে। জাতির পিতা সংবিধানে নারী-পুরুষের সমান অধিকার দিয়ে গেছেন। নারীর উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নে তিনি যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়েছেন বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, জয়িতারা বাংলাদেশের আলোকবর্তিকা। তারা অনেক বাধা প্রতিকূলতা অতিক্রম করে সমাজে নিজের স্থান করে নিয়েছেন। জয়িতারা আমাদের দেশে নারীর ক্ষমতায়ন ও উন্নয়নের অনন্য উদাহরণ। বর্তমান সরকারের সহযোগিতায় দেশের নারীরা স্বাবলম্বী হচ্ছে। নারীর ক্ষমতায়ন, নারীর সমমর্যাদা ও সমঅধিকার প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রী এখন সারা বিশ্বে রোল মডেল। বর্তমানে দেশের প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, বিরোধী দলের নেত্রী, সংসদ উপনেতা নারী। বিশ্বের কোথাও রাষ্ট্রীয় উচ্চ পদে এ রকম নেই।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) মো. নুরুল আলম নিজামী, বিভাগীয় স্থানীয় সরকার পরিচালক দীপক চক্রবর্তী, চট্টগ্রাম মহিলা বিষয়ক উপ-পরিচালক অঞ্জনা ভট্টাচার্য।

শ্রেষ্ঠ পাঁচ জয়িতা নির্বাচিত : সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ৫টি ক্যাটাগরিতে বিভাগের ১১ জেলার মোট ৫৫ জন জয়িতার মধ্যে থেকে বিভাগীয় পর্যায়ে ৫ জনকে শ্রেষ্ঠ জয়িতা নির্বাচিত করে প্রত্যেককে নগদ টাকা, ক্রেস্ট ও সনদপত্র প্রদান করেন প্রতিমন্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা। শ্রেষ্ঠ এই পাঁচ জয়িতারা হলেন-অর্থনৈতিকভাবে সাফল্য অর্জনকারী নারী ইয়াছমিন আক্তার (কক্সবাজার), শিক্ষা ও চাকুরি ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী নারী ডা. সুপর্ণা দে সিম্পু (চট্টগ্রাম), সফল জননী নারী সপনেহার বেগম (ব্রাহ্মণবাড়িয়া), নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন শুরু করা নারী রত্না চক্রবর্তী (চট্টগ্রাম) ও সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখা নারী পাইং¤্রাউ মার্মা (বান্দরবান)।

The Post Viewed By: 33 People

সম্পর্কিত পোস্ট