চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৫ ডিসেম্বর, ২০১৯

১৪ নভেম্বর, ২০১৯ | ২:২২ পূর্বাহ্ন

ইমরান বিন ছবুর

একই ব্যক্তি সরকারি দুই পদে

পাহাড়তলী থানা সহকারী শিক্ষা অফিসারের পাশাপাশি তিনি এমইএস কলেজের এমপিওভুক্ত প্রভাষক পদে

শিক্ষা জীবন শেষ করে যেখানে সরকারি একটি চাকরির জন্য যুবকদের বছরের পর ঘুরতে হয়, সেখানে এক ব্যক্তিই সরকারি দুটি পদে চাকরি করে যাচ্ছেন। অনেকের কাছে অসম্ভব মনে হলেও, এই অসম্ভবকে সম্ভব করেছেন জমির উদ্দিন চৌধুরী। তিনি পাহাড়তলী থানা মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষা অফিসার এবং একইসাথে এমইএস কলেজের ইসলাম শিক্ষা বিষয়ের প্রভাষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। চট্টগ্রাম জেলা শিক্ষা অফিসার এবং ওমরগনি এমইএস কলেজের অধ্যক্ষ এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

জানতে চাইলে এমইএস কলেজের অধ্যক্ষ সারোয়ার আলম দৈনিক পূর্বকোণকে বলেন, ‘জমির উদ্দিন ওমরগণি এমইএস কলেজের ইসলাম শিক্ষা বিষয়ের প্রভাষক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন এবং তিনি এমপিওভুক্ত।’ পাহাড়তলী থানা মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষা অফিসার হিসেবে কর্মরত বিষয়ের ব্যাপারে জানতে চাইলে অধ্যক্ষ বলেন, ‘আমি এই কলেজে যোগ দিয়েছি বেশি দিন হয়নি। এ ব্যাপারে আমি আর বিশেষ কিছু জানি না।’

অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম জেলা শিক্ষা অফিসার মো. জসিম উদ্দিন দৈনিক পূর্বকোণকে বলেন, ‘একই ব্যক্তি একই সাথে সরকারি দুটি পদে চাকরি করার কোন সুযোগ নেই। জমির উদ্দিন পাহাড়তলী থানা মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষা অফিসার হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। এছাড়া তিনি অন্য

কোথাও কর্মরত আছেন কিনা আমার জানা নেই। একজন সরকারি কর্মকর্তা কিভাবে দুই জায়গায় কাজ করবে?

তবে পাহাড়তলী থানা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার শামসুল আরেফিনের দাবি জমির উদ্দিন থানা মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষা অফিসার হিসেবে একটি প্রজেক্টের মাধ্যমে খ-কালীন চাকরি করছেন। এটা কোন সরকারি নিয়োগ না। জমির উদ্দিন আমাকে জানান, কিছুদিন আগে এনটিআরসির মাধ্যমে তিনি এমইএস কলেজে যোগ দেন। সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগায় আগের চাকরিটি তিনি ছাড়েননি। এখন ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

এ সম্পর্কে জানতে চাইলে জমির উদ্দিন বলেন, ‘আমি পাহাড়তলী থানা শিক্ষা অফিসের একটি প্রজেক্টে কাজ করছি। এছাড়া এমইএস কলেজে যোগ দেয়ার সময় এ বিষয়ে আমি অধ্যক্ষকে জানিয়েছি।’ একই সাথে দুটি সরকারি চাকরি কিভাবে করছেন এমন প্রশ্নে করলে তিনি কোন উত্তর দিতে পারেননি।

The Post Viewed By: 90 People

সম্পর্কিত পোস্ট