চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯

১৩ নভেম্বর, ২০১৯ | ২:২১ অপরাহ্ন

বোয়ালখালী সংবাদদাতা

বোয়ালখালীতে বিধবার রহস্যজনক মৃত্যু

উপজেলার পূর্ব গোমদণ্ডী ফুলতল সংলগ্ন এলাকার তোফায়েল আহমদের বাড়ির ভাড়া ঘর থেকে এক বিধবা নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার (১৩ নভেম্বর) সকাল ১০টার দিকে রবিজা খাতুন (৫০) নামের ওই  বিধবা নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তোফায়েল আহমদের বাড়িতে প্রায় দেড় বছর ধরে ভাড়া থাকত রবিজা খাতুন। তাঁর স্বামী মারা গিয়েছেন প্রায় ২০ বছর আগে। ৩ ছেলে ও ১ মেয়ের জননী রবিজা খাতুন ছেলে এবং মেয়ের সাথে না থেকে তাঁর পাতানো ভাই মো. আলমগীরকে (৪৫) নিয়ে এ ভাড়া বাড়িতে থাকতেন। মো. আলমগীর ঝাড় ফুঁকের কাজ করত। তার বিরুদ্ধে এলাকায় নানান অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে। আজ সকাল পৌনে ১০টার দিকে আলমগীর পার্শ্ববর্তী পানের দোকানিকে জানিয়ে ট্যাক্সি আনতে যাচ্ছিল এই বলে যে বুড়ি ফাঁস খেয়েছেন। বিষয়টি দোকানি জমিদার ও প্রতিবেশিদের জানালে প্রতিবেশিরা রবিজা খাতুনকে বিছানায় শোয়া অবস্থায় মৃত দেখতে পান। এ সময় তাঁর গলায় চিকন দড়ি পেচানো ছিল। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত নিহতের ছোট ছেলে মো. রুবেল জানান, আমার মাকে হত্যা করা হয়েছে। এজন্যে তিনি তাঁর পাতানো ছেলে মো. আলমগীরকে দায়ী করেন। ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছেন মো. আলমগীর। তাঁর বাড়ি কোথায় কেউ জানে না। তবে সীতাকুণ্ড বলে আত্মীয় অনেকেই দাবি করে। নিহতের স্বামীর বাড়ি উপজেলার শ্রীপুর-খরণদ্বীপ ইউনিয়নের শ্রীপুর শাহ আলম ড্রাইভারের বাড়ি এবং বাপের বাড়ি একই ইউনিয়নের জ্যৈষ্ঠপুরা শেখ পাড়া বলে জানিয়েছেন ইউপি সদস্য মো. হাছান চৌধুরী। তিনি শ্রীপুরের বদির আলমের স্ত্রী। পুলিশের সেকেন্ড অফিসার এস আই তাজুল ইসলাম পূর্বকোণকে বলেন, মৃত্যুটা রহস্যেজনক। ময়না তদন্ত রিপোর্ট ছাড়া কিছুই বলা যাচ্ছে না।

 

 

 

 

 

 

পূর্বকোণ/এম

The Post Viewed By: 185 People

সম্পর্কিত পোস্ট