চট্টগ্রাম রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১২ নভেম্বর, ২০১৯ | ২:৩৩ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেড় ঘণ্টার বৃষ্টিতে ডুবল নগরী

জিইসি-বহদ্দারহাটমুখী সড়কে তীব্র যানজট

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’র প্রভাবে গত রবিবার সন্ধ্যার পর নগরীতে ভারী বর্ষণ নামে। দেড় ঘণ্টার এই বৃষ্টিতে নগরীর নিম্নাঞ্চলসহ বিভিন্ন স্থানে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। টানা বৃষ্টির কারণে বিভিন্ন এলাকার ঘরবাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পানি ওঠে যায়। দুর্ভোগে পড়েন গৃহহীন ও দুঃস্থ মানুষেরা। এসময় জশনে জুলুস থেকে ফেরার পথে পানিতে আটকে ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে অসংখ্য গাড়ির। জলাবদ্ধতার কারণে জিইসি থেকে বহদ্দারহাটমুখী সড়কে তীব্র যানজট লেগে যায়।

গত রবিরাব সকাল থেকে থেমে থেমে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি এবং সন্ধ্যা থেকে প্রায় দেড় ঘণ্টা প্রবল ভারী বর্ষণ হয়। গতকাল (সোমবার) বিকেল ৩টা পর্যন্ত ৬৬.২ মিলি মিটার বৃষ্টি পাতের রেকর্ড করেছে চট্টগ্রাম আবহাওয়া অফিস। বর্ষণের ফলে পানিতে ডুবেছে নগরীর বিভিন্ন সড়ক। যার কারণে সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বৃষ্টির পানির কারণে নগরীর আগ্রাবাদ, শান্তিবাগ, বেপারি পাড়া, চকবাজার ডিসি রোড, জামালখান, দামপাড়া ওয়াসা, বহদ্দারহাট, বাদুরতলা, কাপাসগোলা, প্রবর্তক মোড়, অক্সিজেন, ষোলশহর দুই নম্বর গেট, মুরাদপুর, জিইসি, পাঁচলাইশ, পাঠানটুলী, বাকলিয়া, খাতুনগঞ্জসহ নিচু এলাকার কিছু অংশে পানি বন্দী হয়ে পড়ে লোকজন। এরমধ্যে অধিকাংশ এলাকায় পানি নেমে গেলেও নালা ও ড্রেনে কাজ চলমান থাকায় কিছু কিছু স্থানে নালা ভরাট থাকায় দীর্ঘক্ষণ পানি আটকে ছিল। তাতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয় নগরবাসীর।

বৃষ্টির পানিতে রাস্তা ছাড়াও, ড্রেন-নালা ডুবে একাকার হয়ে যায়। রাস্তায় হাঁটার সময় নালা ও ড্রেনে পড়ে যান অনেক পথচারী। নগরীর বিভিন্ন স্থানে এরকম ছোট-বড় অনেক দুর্ঘটনার খবর পাওয়া গেছে। এছাড়াও পানিতে আটকে নষ্ট হয়ে গেছে সিএনজি ট্যাক্সি, প্রাইভেট কার, মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন যানবাহন।

নগরীর আগ্রাবাদ বেপারী পাড়ার বাসিন্দা মো. আশরাফ মাহমুদ জানান, ভারী বর্ষণের ফলে আগ্রাবাদের বেপারী পাড়াসহ বেশ কিছু জায়গায় প্রায় হাঁটু পরিমাণ পানি জমে যায়। কিছুটা ভোগান্তি পোহাতে হলেও রবিবার সরকারি ছুটি থাকায় অনেককেই বাসা থেকে বের হতে হয়নি। তাতে তারা দুর্ভোগ থেকে বেঁচে যান।

The Post Viewed By: 70 People

সম্পর্কিত পোস্ট