চট্টগ্রাম শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১২ নভেম্বর, ২০১৯ | ১:৫৯ পূর্বাহ্ন

মফস্বল ডেস্ক

ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) মাহফিলে বক্তারা

আল্লাহ্কে পেতে হলে আগে নবী (সা.)কে ভালোবাসতে হবে

মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) এর জন্ম ও ওফাত দিবস ১২ রবিউল আউয়াল উপলক্ষে ঈদে মিলাদুন্নবী মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে। আয়োজিত মাহফিলে বক্তারা বলেন, নবীপ্রেমীরাই জান্নাতের প্রকৃত হকদার। জান্নাত বা আল্লাহ্কে পেতে হলে আগে নবী (স.)কে পেতে হবে, তাঁকে ভালোবাসতে হবে।
মাবুদিয়া দরবার: বোয়ালখালীর নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, দরবারের সাজ্জাদান্শীন পীরে ত্বরিকত অধ্যক্ষ মুফতি মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুর রহীম আলকাদেরী (মা.) বলেছেন, প্রিয় নবীর (সা.) আগমনে মানবজাতির কল্যাণ নিহিত। ঈমানের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হচ্ছে মিলাদুন্নবী (সা.)’র প্রতি সম্মান। শনিবার উপজেলার মাবুদিয়া দরবার শরীফের উদ্যোগে জশনে জুলুস ও ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) মাহফিলে তিনি এ কথা বলেন। আঞ্জুমানে আজিজিয়া মাবুদিয়া সুন্নিয়া কেন্দ্রীয় কমিটির ব্যবস্থাপনায় জশনে জুলুস দরুদ শরীফ, তাকবির ও জিকির সহকারে সকাল সাড়ে ৮টায় শাহ মাবুদিয়া দরবার থেকে শুরু হয়। উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে বেলা সাড়ে ১২টায় খিতাপচর আজিজিয়া মাবুদিয়া মাদ্রাসা ময়দানে জমায়েত হয়। এতে জুলুসের উদ্বোধন করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ার‌্যমান মো. নুরুল আলম। মিলাদুন্নবী (সা.) মাহফিলে তকরির পেশ করেন আল্লামা মুহাম্মদ আব্দুল করিম আলকাদেরী, মাওলানা ফরিদ উদ্দিন আলকাদেরী, মাওলানা সৈয়দুল হক আনসারী, মাওলানা মাহবুবুল আলম কাদেরী, কাজী এম এস এমরান কাদেরী, মাওলানা নুরুল ইসলাম রহীমি, মাওলানা মনছুর আলম কাদেরী, মাওলানা মনজুর হোসাইন, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুছ আলকাদেরী, মাওলানা ইমাম উদ্দিন রহীমি, জাফর আহমদ আলকাদেরী, মাওলানা আব্দুল খালেক কাদেরী, মাওলানা সরাফত হোসেন, মাওলানা রুহুল আমীন রহিমী প্রমুখ।
মিলাদুন্নবী (দ.) উদ্যাপন কমিটি শেয়ানপাড়া: পটিয়া পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ড ১২ দিন ব্যাপী ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) উদ্যাপন কমিটির উদ্যোগে ১২ দিনব্যাপী মাহফিলের ১১তম দিবসে প্রধান অতিথি ছিলেন ড. কাজী আহমদ নবী। প্রধান আলোচক ছিলেন- হযরতুলহাজ্ব আল্লামা মুফতি অধ্যক্ষ আহমদ হোসেন আলকাদেরী। বিশেষ বক্তা ছিলেন মাওলানা মুহাম্মদ হামিদুল হক আলকাদেরী। সভাপতিত্ব করেন মাওলানা মুহাম্মদ ফজলে হারুন সিরাজী। উদ্বোধক ছিলেন মুহাম্মদ আমির হোসেন্্্। বিশেষ অতিথি ছিলেন মাওলানা আহমদ হালিমী, হাজী রফীকুল ইসলাম, মো: ফারুকুল ইসলাম, মোহাম্মদ আলী হোসেন, মাওলানা মুহাম্মদ জাকের হোসেন, ক্বারী মো. সিরাজুল মোস্তফা, মাওলানা ফরিদুল আলম, মুহাম্মদ গোলাম মুস্তফা, মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, গাজী আবদুল মামুন, মাওলানা নুরুল হক চিশতি প্রমুখ। মাহফিল পরিচালনা করেন মাহমুদুর রহমান মামুন।
গাউসিয়া হক কমিটি নোয়াজিষপুর ইউনিয়ন শাখা: নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, সংগঠনের ব্যবস্থাপনায় মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে সম্প্রতি। সংগঠনের নোয়াজিষপুর ইউনিয়ন শাখার সভাপতি কাজী মাওলানা ফরিদ উদ্দিনের সভাপতিত্বে মুঈনীয়া আজিজিয়া মাদ্রাসা ময়দানে আয়োজিত মাহফিলে প্রধান অতিথি ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান এম. সরোয়ার্দী সিকদার। উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় পর্ষদের সাংগঠনিক প্রতিনিধি মঞ্জুরুল ইসলাম চৌধুরী। প্রধান বক্তা ছিলেন চবি’র ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের চেয়ারম্যান ড. এ.এস.এম বোরহান উদ্দীন। বিশেষ বক্তা ছিলেন সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভা-ারী রওজা শরীফের প্রধান খাদেম মাওলানা সেলিম উল্লাহ মাইজভা-ারী, আব্দুস ছবুর আল কাদেরী ও মাওলানা বেলাল হোসাইন মাইজভা-ারী। সাধারণ সম্পাদক মাওলানা তরিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় ওলামায়ে কেরাম ছিলেন মাওলানা আবু সালেহ, কাজী ফজলুল কাদের চৌধুরী, মাওলানা হারুন নক্সবন্দী, মাওলানা আবু তৈয়ব ফারুকী, অধ্যাপক কাজী আবুল কাসেম, শাহাবুল আলম সিকদার, মোসলেম উদ্দীন চৌধুরী, মোহাম্মদ ছৈয়দ হোসেন সিকদার, তাজউদ্দীন খান সোলাইমান, কাজী হেলাল, বেদারুল ইসলাম, আক্কাস উদ্দীন মানিক, আনিসুল খান বাবর, তাজ মোহাম্মদ মিয়া, নূর নবী চৌধুরী, জাহাঙ্গীর আলম সিকদার, কে.এম জিয়াউর রহমান, আনোয়ার সিকদার, আমির খসরু, কাজী জালাল, কাজী ওমর, আরাফাত হোসেন, ফোরকান উদ্দীন বাবলু, তসলিম উদ্দীন, সুমন, জুয়েল, এরশাদ, ফারুক সিকদার, মোহাম্মদ বাশেক, আবু সৈয়দ, সাইফুল, শিবলু, বোরহান, মোহাম্মদ বোরহান, ইমন, সাকিব, বাপ্পু, মোহাম্মদ নবাব, জিসান, বক্কর প্রমুখ।

The Post Viewed By: 31 People

সম্পর্কিত পোস্ট