চট্টগ্রাম সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১১ নভেম্বর, ২০১৯ | ১০:৪৭ অপরাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক

জুলুসের গাড়ির জেনারেটরে দগ্ধ শিশুদের পাশে মানবাধিকার কমিশন নেতৃবৃন্দ

জশনে জুলুসের একটি ট্রাকে জেনারেটর থেকে সৃষ্ট অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দগ্ধ ছয় শিশু- কিশোরের চিকিৎসায় পাশে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন। রবিবার চট্টগ্রামের টাইগার পাস এলাকায় জুলুশে অংশ নেয়া একটি গাড়িতে এই ছয় শিশু- কিশোর ছিল।
একটি গণমাধ্যমে দগ্ধ হওয়াদের পাশে কেউ নেই- এই সংবাদ দেখে কমিশনের চট্টগ্রাম আঞ্চলিক শাখার কর্মকর্তারা আজ সোমবার ছুটে যান চমেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে। কমিশনের ডেপুটি গভর্নর আমিনুল হক বাবু ছাড়াও এ সময় অন্যদের মধ্যে ছিল বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন বৃহত্তর চট্টগ্রাম আঞ্চলিক শাখার সদস্য শফিকুল আলম এবং চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণ শাখার সভাপতি নওশাদ চৌধুরী মিটু।
প্রসঙ্গত, আহত হওয়া ছয়জনের মধ্যে বর্তমানে তিনজন চমেক হাসপাতালে ভর্তি আছে। যার মধ্যে দু’জন শিশু। একজনের ৪০% পুড়ে গেছে আর দু’জনের পুড়েছে ২০% এর কিছু কম বেশি। এরমধ্যে একজন আবার জেএসসি পরীক্ষার্থী। শিশুদের যন্ত্রণাদগ্ধ করূণ দশা যে কারো চোখে পানি চলে আসবে বলে জানান কমিশনের কর্মকর্তারা।
বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন চট্টগ্রামের নেতৃবৃন্দ বলেন, আহতদের চিকিৎসার জন্য আমরা সাধ্যমতো পাশে দাঁড়িয়েছি। চমেকে চিকিৎসাধীন তিন জনের মায়ের হাতে ঔষধ খরচ বাবদ তুলে দেওয়া হলো ১৫ হাজার টাকা। আমরা চাই সমাজের সামর্থবানরা এই শিশুদের চিকিৎসা সহায়তায় এগিয়ে আসবেন।

পূর্বকোণ/ এস

The Post Viewed By: 209 People

সম্পর্কিত পোস্ট