চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর, ২০১৯

১০ নভেম্বর, ২০১৯ | ২:২১ পূর্বাহ্ণ

মফস্বল ডেস্ক

ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উদযাপন

নবীপ্রেমে মাতোয়ারা তৌহিদি জনতা

মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) এর জন্ম ও ওফাত দিবস ১২ রবিউল আউয়াল ঘিরে নবীপ্রেমে মাতোয়ারা হয়ে র‌্যালি ও মাহফিলে অংশগ্রহণ করছে উপজেলার বিভিন্ন স্থানের তৌহিদি জনতা। আয়োজিত মাহফিলে বক্তারা বলেন, জান্নাতপ্রাপ্তির অন্যতম প্রধান শর্ত নবীপ্রেম।

আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআ’ত হলদিয়া ও ডাবুয়া ইউনিয়ন শাখা: রাউজানের নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত বিশাল জসনে জুলুসে নেতৃত্ব দেন গর্জনীয়া ফাযিল মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ পীরে তরিকত সৈয়দ আল্লামা আহসান হাবীব (মা.জি.আ.)। উত্তর চট্টগ্রামের ১৯তম জসনে জুলুসে রাউজানে এদিন নবীপ্রেমিকদের ঢল নেমেছিল। আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআ’ত হলদিয়া-ডাবুয়া ইউনিয়নের প্রতি বছরের ন্যায় পায়ে হাঁটা পরিবর্তন করে মোটরযোগে উত্তর সর্তা দরগাহ বাজার হতে ফটিকছড়ির কোর্টের পাড়, তকিরহাট, রাউজান নোয়াজিষপুর, দলইনগর, কালাচাঁন্দাহাট ব্রিজ, গহিরা চৌমহুনী হয়ে রাউজান সদরের মুন্সিরঘাটা, আদালত ভবন, সেবাখোলা, চৌধুরী বটতল হয়ে এয়াছিন শাহ্ পাবলিক কলেজ ময়দানে জুলুসের সমাপ্তি ঘটে। এতে হাজার হাজার আশেকে রাসুল অংশগ্রহণ করে। জুলুস পরবর্তী আলোচনা সভা কলেজ মাঠে অধ্যক্ষ আল্লামা সৈয়দ আহসান হাবীবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মাহবুবুল আলম ও সৈয়্যদ মোহাম্মদ আলী আকবর তৈয়্যবীর যৌথ পরিচালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন আল্লামা গোলাম মোস্তফা শায়েস্তা খান আল আযহারী। বক্তব্য রাখেন এস.এম বাবর, ইদ্রিছ আনছারী, মাওলানা এম.বেলাল উদ্দিন। এতে মিলাদ কিয়াম পরিচালনা করেন মাওলানা মনছুর আলম নেজামী, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আল্লামা সাঈদুল আলম খাকী, মাওলানা কলিম উল্লাহ নুরী, আল্লামা সোলায়মান মকবুলী, আল্লামা ইয়াছিন হোসাইন হায়দারী, জাহাঙ্গীর আলম সিকদার, মেম্বার শামসুল আলম চৌধুরী, মাওলানা মুহাম্মদ আলী ছিদ্দিকী, মাওলানা রফিকুল ইসলাম রেজভী, মাওলানা শামসুল আলম নঈমী, আবদুচ সালাম মাস্টার, আল্লামা বাহাউদ্দিন ওমর, জিয়াউল হক চৌধুরী সুমন, মেম্বার মোহাম্মদ আলী, মুহাম্মদ সাহাবু সওদাগর, সৈয়্যদ মুহাম্মদ তৈয়বুর রহমান, আল্লামা নুরুল আবছার রেজভী, সোলায়মান চৌধুরী, মাস্টার জামাল উদ্দিন, হোসেন মাস্টার, মাওলানা আব্দুল মালেক প্রমুখ। সকাল ৭টা থেকে নবী প্রেমিকরা ব্যানার, ফেস্টুন, কালেমা ও দরুদ শরীফ সম্বলিত পতাকা নিয়ে উপস্থিত হতে থাকে দরগাহ বাজারে। জুলুসকে কেন্দ্র করে রাউজানে ব্যাপক আনন্দ পরিলক্ষিত হয়। স্কুল কলেজ মাদ্রাসার পাশাপাশি সাধারণ জনসাধারণ এই জুলুসে শরিক হয়ে এলাকাবাসীকে জানান দেয় ‘আজকে মোদের খুশির দিন, সকল ঈদের সেরা ঈদ, ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.)’। পরে আখেরি মোনাজাত ও তবারুক বিতরণ করা হয়।

কাঞ্চননগর জাঁহাগিরিয়া শাহসুফি মমতাজিয়া দরবার শরীফ: চন্দনাইশের নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, দরবার শরীফের অনুসারীদের উদ্যোগে জশনে জুলুসের র‌্যালি চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করে কাঞ্চননগরস্থ দরবারে এসে শেষ হয়। গত ৮ নভেম্বর সকালে র‌্যালি শেষে দরবার মাঠে ১২ দিনব্যাপী মিলাদ মাহফিলের সমাপনী অনুষ্ঠান ও আখেরি মোনাজাত দরবার মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালিটি কাঞ্চননগর শাহসুফি দরবার শরীফ থেকে রওশনহাট, বিজিসি ট্রাস্ট, বাদামতল, পাক্কা দোকান, বধুরপাড়া রাস্তার মাথা, গাছবাড়িয়া কলেজ, খানহাট, গাছবাড়িয়া স্কুল হয়ে দরবার শরীফের মাঠে এসে শেষ হয়। ১২ দিনব্যাপী ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) মাহফিলের সমাপনী অনুষ্ঠানে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন দরবার শাহছুফি সৈয়্যদ মো. আলী। মিলাদ মাহফিলে অতিথি ছিলেন মাওলানা মুহাম্মদ মতি মিয়া মনসুর, মাওলানা মুহাম্মদ মনজুর আলী, মাওলানা মুহাম্মদ হাসান আলী, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাদশা, সোহেল মো. ফখরুদ্দিন, মো. আব্দুর রহিম, মো. নুরুল আলম, মো. হাবিবুর রহমান শাহীন, মুফতি আলি আহমদ মমতাজী প্রমুখ। পরে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করা হয়।

The Post Viewed By: 17 People

সম্পর্কিত পোস্ট